The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
মঙ্গলবার, ২৫শে জুন, ২০২৪

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা বিভাগ পরিবর্তন ইউনিটের দাবিতে ইউজিসি চেয়ারম্যানকে স্মারকলিপি

২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষায় বিভাগ পরিবর্তনের জন্য আলাদা ইউনিটে পরীক্ষার দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) চেয়ারম্যানকে স্মারকলিপি দিয়েছেন ভর্তিচ্ছুরা। বুধবার (২৭ এপ্রিল) ইউজিসি কার্যালয়ে এই স্মারকলিপি জমা দেন শিক্ষার্থীরা।

স্মারকলিপিতে শিক্ষার্থীরা জানান, ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীরা গুচ্ছ পরীক্ষায় বিভিন্ন ধরনের সমস্যার মধ্যে দিয়ে অতিক্রম করেছে। সেই ধারাবাহিকতাকে কিছুটা রোধ করার জন্য ইউজিসি ও গুচ্ছ কমিটির আলোচনায় বেশ কিছু পরিবর্তন এসেছে। কিন্তু অনেক পরিবর্তনের মাঝেও লাখো শিক্ষার্থীর প্রাণের দাবি, ‘গুচ্ছে বিভাগ পরিবর্তনে আলাদা ইউনিট’ বহাল তবিয়তেই উপেক্ষিত হয়েছে। এমতাবস্থায় বিভাগ পরিবর্তনের প্রস্তুতি নেয়া লাখো শিক্ষার্থী গতবছরের ন্যায় আবারও ২২টি বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি আসন হারানোর শঙ্কায় পতিত হয়েছে।

তারা জানান, গত বছর বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীরা বিভাগ পরিবর্তন করতে পারত বিজ্ঞানের বিষয়াবলি পরীক্ষা দিয়ে। বিভাগ পরিবর্তনের ফলে প্রাপ্ত বিষয়সমূহ হলো, আইন, ইংরেজি, লোকপ্রশাসন, অর্থনীতি প্রভৃতি। কিন্তু আমাদের প্রশ্ন হলো এই বিষয়গুলোতে পড়তে গেলে একজন ছাত্রকে পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, জীববিজ্ঞান কিংবা গণিত এর মাধ্যমে কেস মেধা যাচাই করতে হবে। এই বিষয়গুলোর জন্য বাংলা, ইংরেজি, সাধারণ জ্ঞান বা বুদ্ধিমত্তা/আইসিটি বিষয়ে পরীক্ষা নেয়াটাই যুক্তিযুক্ত।

গুচ্ছ পরীক্ষায় যুক্ত হবার পূর্বে বর্তমান গুচ্ছ অধিভুক্ত সাধারণ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে বিভাগ পরিবর্তনের জন্য আলাদা একটা ইউনিট থাকত। এছাড়া গুচ্ছভুক্ত ছাড়া যে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো (ঢাবি, রাবি, চবি, জাবি, বিইউপি, বঙ্গবন্ধু মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয়) রয়েছি সেগুলোতে বিভাগ পরিবর্তনের আলাদা ইউনিটে পরীক্ষা নেয়া হচ্ছে। তাহলে গুচ্ছের মতো বড় পরিসরের এক পরীক্ষায় কেন বিভাগ পরিবর্তনের জন্য আলাদা ইউনিট রাখা হবে না। এটি পরীক্ষার্থীদের সাথে এক ধরনের বৈষম্য।

শিক্ষার্থীরা আরও জানান, ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে গুচ্ছে বিজ্ঞান বিভাগ অর্থাৎ ‘ক ইউনিটে’ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে অনেক আসন ফাঁকা ছিল। এর পেছনের কারণও কিন্তু বিভাগ পরিবর্তন ইউনিট যুক্ত না করে বিভাগ পরিবর্তনের বিষয়গুলোকে ওই ইউনিটে যুক্ত করা। যারা ‘ক ইউনিটে’ পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিলেন তাদের মধ্যে প্রায় ৮০ শতাংশ পরীক্ষার্থী ছিলেন বিজ্ঞান বিষযয়ে পড়ালেখার পক্ষে। যার ফলে

তারা বিভাগ পরিবর্তনের বিষয়গুলো পেয়েও ভর্তি হননি। সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষায় বিভাগ পরিবর্তনের জন্য আলাদা ইউনিট বহাল রাখার জোড় দাবি জানাচ্ছি।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.