The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
শুক্রবার, ২৪শে মে, ২০২৪

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা পেছানো নিয়ে যা বললেন জবি উপাচার্য

গুচ্ছভুক্ত ২২ বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের সমন্বিত ভর্তি নির্ধারিত সময়েই হবে। ভর্তি পরীক্ষা পেছানোর সুযোগ নেই বলে জানিয়েছেন গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা আয়োজক কমিটির যুগ্ম আহবায়ক ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইমদাদুল হক।

তিনি বলেন, ভর্তি পরীক্ষা পেছালে আমরা এই বছর আর পরীক্ষার স্লট পাব না। ‍শিক্ষার্থীদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে ভর্তি পরীক্ষা এগিয়ে নিয়ে আসা হয়েছে। এই পরীক্ষা পেছালে শিক্ষার্থীরাই বেশি সমস্যায় পড়বে।

অধ্যাপক ইমদাদুল হক আরও বলেন, সিলেট-সুনামগঞ্জসহ দেশের বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে। খুব শিগগিরই সবকিছু স্বাভাবিক হয়ে যাবে। তাই শিক্ষার্থীদের প্রতি আহবান থাকবে ভর্তি পরীক্ষার জন্য নিজেকে প্রস্তুত করার। পরীক্ষা যথা সময়েই অনুষ্ঠিত হবে।

এদিকে সিলেট-সুনামগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হওয়া এবং দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ আরও বেড়ে যাওয়ায় ২২ বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা পেছানোর দাবি তুলেছেন শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীরা বলছেন, দেশে প্রতিদিনই করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। সংক্রমের হার ১৫ শতাংশের ঘরে পৌঁছে গেছে। মৃতের সংখ্যাও বাড়ছে। এছাড়া সিলেট, সুনামগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন জেলার বন্যা পরিস্থিতির এখনও উন্নতি হয়নি। অনেকেরই বাড়ি-ঘর ছেড়ে আশ্রয় কেন্দ্রে অবস্থান করতে হচ্ছে। এই অবস্থায় ভর্তি পরীক্ষার প্রস্তুতি নেওয়া কোনো ভাবেই সম্ভব হচ্ছে না।

শিক্ষার্থীদের দাবি, যেখানে বেঁচে থাকতে প্রতিদিন লড়াই করতে হচ্ছে সেখানে ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে চিন্তা করার মতো অবকাশ তাদের নেই। পরিস্থিতি কবে স্বাভাবিক হবে সেটি কেউ জানে না। বন্যার পানি নেমে গেলেও সবকিছু স্বাভাবিক হতে কমপক্ষে এক মাস সময় লাগবে। এই অবস্থায় গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা অন্তত এক মাস পেছানো দরকার।

প্রসঙ্গত, বিজ্ঞপ্তির তথ্য অনুযায়ী আগামী ৩০ জুলাই ২২ বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার মধ্য দিয়ে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা শুরু হবে। ১৩ আগস্ট ‘খ’ ইউনিট এবং ২০ আগস্ট ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.