The Rising Campus
News Media

গণস্বাস্থ্য কতৃক বন্যার্ত কৃষকদের সহায়তা প্রদান

শাহরিয়া আক্তার, গবি প্রতিনিধিঃ সিলেটের বিশ্বনাথে প্রলয়ংকারী বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের মাঝে বোরো ধানের বীজ, ৫ প্রকারের সবজির বীজ, পোনামাছ, হাঁস ও ঢেউটিন বিতরণ কার্যক্রম শুরু করেছে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র।

সোমবার (১৪ নভেম্বর) সোমবার সকাল ১০ টায় Secours Populiare Francais (SPF) এর সহযোগিতায় গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র কৃষি সমবায় বিভাগের আয়োজনে বিশ্বনাথ উপজেলার বৈরাগী বাজার সংলগ্ন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে- নওধারে উক্ত বীজ বিতরণ কার্যক্রম শুরু হয়।

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের কৃষি সমবায় বিভাগের পরিচালক রঞ্জন কুমার মিত্র সাহেবের সভাপতিত্বে ও গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র -নওধার শাখার ম্যানেজার সোহরাব আহমদ পরিচালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিশ্বনাথ উপজেলার রামপাশা ইউনিয়নের বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান এডভোকেট মোহাম্মদ আলমগীর, বিশেষ অথিতি হিসাবে বক্তব্য রাখেন বিশ্বনাথ উপজেলার রামপাশা ইউনিয়নের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা শাহ কামরান আহমদ, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের কৃষি বিভাগের রিজিওনাল ম্যানেজার মনমথ পান্ডে বাদল, গগণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের মানবসম্পদ বিভাগের এডমিন অফিসার শাহনাজ পারভীনপ্রমুখসহ বিভিন্ন কর্মকর্তা ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

এসময় বিশ্বনাথ উপজেলার রামপাশা ইউনিয়নের ২শত জন বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত দরিদ্র কৃষকের মাঝে ১০ কেজি করে উচ্চ ফলনশীল বোরো ধানের বীজ বিতরণ করা হয় এবং এ ধানের চাষাবাদ সম্পর্কে প্রশিক্ষণ দেয়া হয় ও পাশাপাশি এই ধানের চাষাবাদ সম্পর্কে লিফলেট দেয়া হয়।

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের কৃষি সমবায় বিভাগের পরিচালক রঞ্জন কুমার মিত্র বলেন, ‘দক্ষিণ বঙ্গের পাশাপাশি সিলেট – সুনামগঞ্জ অঞ্চলে বন্যা পরবর্তীতে আমরা নিশ্চিত করছি প্রকৃত দরিদ্র কৃষকেরা যেন গণস্বাস্থ্যের কৃষি সেবা পায়।’ আগামীতেও এ অঞ্চলে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের কৃষি সমবায় বিভাগ দরিদ্র কৃষকদের মাঝে এ কার্যক্রম অব্যাহত রাখবে বলেও আশ্বাস দেন তিনি।

হাবিবুল্লাহ নামে একজন সাধারণ কৃষক বলেন, ‘বন্যায় আমরা আবাদী ক্ষেত জমি হারিয়ে অনেক দূর্ভোগের ভেতরে ছিলাম। কিন্তু এসময় গণস্বাস্থ্য আমাদের পাশে দাঁড়িয়ে ধানের বীজ, প্রশিক্ষণ দেওয়ায় আমরা চিরকৃতজ্ঞ। এর আগে বন্যায় আমাদেরকে গণস্বাস্থ্য ত্রাণ চিকিৎসা ও পশু খাদ্য দিয়ে সহায়তা দিয়েছে গণস্বাস্থ্য।’

উল্লেখ্য, বিশ্বনাথ উপজেলার রামপাশা ইউনিয়নের ২শত জন বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত্য কৃষকের মাঝে ১০ কেজি করে উচ্চ ফলনশীল বোরো ধানের বীজ, ৪ শত পরিবারের মাঝে ৫ প্রকারের সবজির বীজ, ১শত পরিবারের মাঝে বিভিন্ন প্রজাতির পোনামাছ, ৫০ টি পরিবারের মাঝে ৪ টি করে হাঁস এবং ৪০ টি পরিবারের মাঝে ১ বান করে ঢেউটিন বিতরণসহ ১০০ লোকের হাঁস পালনের প্রশিক্ষণ কার্যক্রম পরিচালনা করবে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র।

এছাড়া ইতোমধ্যে গণস্বাস্থ্যের উদ্যোগে ১২০ জন কৃষককে বসত বাড়িতে সবজি চাষের প্রশিক্ষণ এবং ১০০ জন লোকের মৎস চাষের প্রশিক্ষণ সম্পন্ন হয়েছে।

0
You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.