খুলনা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়োগে ইউজিসির আপত্তি

খুলনা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারী নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ তদন্ত করছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)। কিন্তু এর মধ্যেও কর্মকর্তা ও কর্মচারী নিয়োগের কার্যক্রম শুরু করেছে বিশ্ববিদ্যালয়টি। এ অবস্থায় ইউজিসি বিশ্ববিদ্যালয়টির রেজিস্ট্রারকে চিঠি দিয়ে বলেছে কর্মকর্তা ও কর্মচারী নিয়োগের চলমান কার্যক্রম সম্পন্ন করা সমীচীন নয়।

আজ বৃহস্পতিবার ইউজিসি এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানিয়েছে।

রেজিস্ট্রারকে পাঠানো চিঠিতে ইউজিসি বলেছে, খুলনা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারী নিয়োগ কার্যক্রম পর্যালোচনা ও তদন্ত করার জন্য বর্তমানে ইউজিসির একটি তদন্ত কমিটি কাজ করছে। কমিটি শিগগিরই তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেবে। কিন্তু খুলনা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ১৭ থেকে ১৮ জানুয়ারি এবং ২০ থেকে ২৩ জানুয়ারি বিভিন্ন পদে কর্মকর্তা ও কর্মচারী নিয়োগের জন্য পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশ করেছে। ইউজিসি মনে করে তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন জমার আগে কোনো ধরনের নিয়োগ কার্যক্রম সম্পন্ন করা সমীচীন নয়।

জানা গেছে, ওই বিশ্ববিদ্যালয়টিতে শিক্ষকসহ বিভিন্ন পদে নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ তদন্ত করার জন্য প্রায় এক বছর আগে ইউজিসি তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেছিল। কিন্তু দীর্ঘ সময়েও কমিটি তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে পারেনি। একটি তদন্তকাজ শেষ করে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিত এত দীর্ঘ সময় লাগা নিয়ে ইউজিসির কর্মকর্তাদের মধ্যেও আলোচনা আছে।