The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
সোমবার, ৪ঠা মার্চ, ২০২৪

কৃষি গুচ্ছে দ্বিতীয়বার ভর্তি পরীক্ষার সুযোগ, আবেদন শেষ ১০ জুলাই

কৃষিবিজ্ঞান গুচ্ছের আটটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে ১ম বর্ষ স্নাতক (সম্মান)  শ্রেণির ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। ভর্তিচ্ছুরা ৮ জুন থেকে আবেদন করতে পারবেন। ভর্তিচ্ছুদের অনলাইনে আবেদন করতে বলা হয়েছে। কৃষিবিজ্ঞান গুচ্ছে আট বিশ্ববিদ্যালয়ে এবার আসন সংখ্যা ৩ হাজার ৫৪৮টি।

কৃষিবিজ্ঞান গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি এবং সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্য অধ্যাপক মো. জামাল উদ্দিন ভূঞা স্বাক্ষরিত এ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

গুচ্ছ ভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হলো, ১) বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ময়মনসিংহ; ২) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, গাজীপুর; ৩) শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা; ৪) পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পটুয়াখালী; ৫) চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম; ৬) সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেট; ৭) খুলনা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা ৮) হবিগঞ্জ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, হবিগঞ্জ।

আবেদনের যোগ্যতাঃ  ২০১৮, ২০১৯ ও ২০২০ সালে এসএসসি/সমমান এবং ২০২১ ও ২০২২ সালে এইচএসসি/সমমানের পরীক্ষায় যারা বিজ্ঞান বিভাগ হতে জীববিজ্ঞান, রসায়ন, পদার্থবিজ্ঞান ও গণিত বিষয়সহ উত্তীর্ণ হয়েছে, কেবলমাত্র তারাই আবেদন করতে পারবে। ২০২১ সালে এসএসসি/সমমান মানোন্নয়ন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীরাও আবেদন করতে পারবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

আবেদনকারী প্রত্যেক ভর্তিচ্ছু শিক্ষর্থীর এসএসসি/সমমান এবং এইচএসসি/সমমানের পরীক্ষায় উভয় ক্ষেত্রে প্রতিটিতে চতুর্থ বিষয় বাতীত ন্যূনতম জিপিএ ৪.০০ এবং সর্বমোট ন্যূনতম জিপিএ ৮.৫০ থাকা আবশ্যক। জিসিই O এবং A লেভেল পাসকৃত প্রার্থীর ক্ষেত্রে O লেভেল পরীক্ষায় অন্তত ৫টি বিষয়ে এবং A লেভেল পরীক্ষায় বিজ্ঞানের অন্তত ২টি বিষয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে। উভয় পরীক্ষায় প্রতিটিতে ন্যূনতম জিপিএ ৪.০০ এবং সর্বমোট ন্যূনতম জিপিএ ৮.৫০ থাকা আবশ্যক। এক্ষেত্রে A ও B গ্রেডের জন্য যথাক্রমে ৫ ও ৪ জিপিএ গণনা করা হবে।

আবেদনের সময়সীমা ও ফিঃ আবেদন গ্রহণের সময়সীমা ৮ জুন থেকে ১০ জুলাই পর্যন্ত। আবেদন ফি এক হাজার ২০০ টাকা মাত্র (ট্রানজেকশন চার্জ ব্যতীত)।

ভর্তি পরীক্ষার কেন্দ্রঃ কৃষি গুচ্ছের ভর্তি পরীক্ষা দেশের আটটি কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হবে। যথাক্রমে: ১. বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ময়মনসিংহ, ২. বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, গাজীপুর, ৩. শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা; ৪. পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পটুয়াখালী; ৫. চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম; ৬. সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেট; ৭. খুলনা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা; ৮ হবিগঞ্জ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, হবিগঞ্জ-এর অধীনে একযোগে অনুষ্ঠিত হবে।

পরীক্ষা কেন্দ্রসমূহের তালিকা অনুযায়ী আবেদনকারীকে ১ থেকে ৮ পর্যন্ত পরীক্ষা কেন্দ্রের পছন্দক্রম উল্লেখ করতে হবে। আসন শূন্য থাকা সাপেক্ষে আবেদনকারীর পছন্দক্রম এবং আবেদন ফি প্রদানের তারিখ ও সময়ের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পরীক্ষা কেন্দ্র নির্ধারণ করা হবে।

লিখিত পরীক্ষাঃ এমসিকিউ পদ্ধতিতে ১০০ নম্বরের ভর্তি পরীক্ষা আগামী ৫ আগস্ট শনিবার বেলা সাড়ে ১১টা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত আটটি কেন্দ্র ও প্রযোজ্য ক্ষেত্রে এক বা একাধিক উপকেন্দ্রের অধীনে একযোগে অনুষ্ঠিত হবে।

২০২২ সালের এইচএসসি/সমমানের পরীক্ষার সিলেবাস অনুযায়ী ইংরেজিতে ১০, প্রাণিবিজ্ঞানে ১৫, উদ্ভিদবিজ্ঞানে ১৫, পদার্থবিজ্ঞানে ২০, রসায়নে ২০ এবং গণিতে ২০ নম্বরের প্রশ্ন থাকবে। প্রতিটি সঠিক উত্তরের জন্য ১.০০ (এক) নম্বর প্রদান করা হবে এবং প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.২৫ নম্বর কাটা যাবে।

মেধা স্কোর নির্ণয়ঃ পরীক্ষায় মোট ১৫০ নম্বরের ভিত্তিতে ফলাফল তৈরি করা হবে। ভর্তি পরীক্ষার ১০০ নম্বরের সাথে এসএসসি/সমমানের পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বরের (চতুর্থ বিষয় বার্তীত) ভিত্তিতে ২৫ এবং এইচএসসি/সমমানের পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বরের (চতুর্থ বিষয় বাতীত) ভিত্তিতে ২৫ নম্বর যোগ করে ফলাফল প্রস্তুত করে মেধা ও অপেক্ষমাণ তালিকা তৈরি করা হবে। যা পরীক্ষা সংশ্লিষ্ট ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা ‍হবে।

ভর্তি পরীক্ষার সংক্রান্ত তথ্যাবলিঃ কৃষি গুচ্ছের আবেদন সংক্রান্ত যে কোন তথ্য (acas.edu.bd) ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে। ভর্তিচ্ছুদের ওয়েবসাইটের ভর্তি নির্দেশিকা অনুযায়ী অনলাইনে আবেদন ফরম পূরণ করতে হবে। ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত যে কোন বিষয়ে কেন্দ্রীয় ভর্তি কমিটির সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত বলে গণ্য হবে এবং ভর্তি কমিটি যে কোন সিদ্ধান্ত পরিবর্তন ও পরিমার্জনের অধিকার রাখে।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. প্রচ্ছদ
  2. পরীক্ষা ও ফালাফল
  3. কৃষি গুচ্ছে দ্বিতীয়বার ভর্তি পরীক্ষার সুযোগ, আবেদন শেষ ১০ জুলাই

কৃষি গুচ্ছে দ্বিতীয়বার ভর্তি পরীক্ষার সুযোগ, আবেদন শেষ ১০ জুলাই

কৃষিবিজ্ঞান গুচ্ছের আটটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে ১ম বর্ষ স্নাতক (সম্মান)  শ্রেণির ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। ভর্তিচ্ছুরা ৮ জুন থেকে আবেদন করতে পারবেন। ভর্তিচ্ছুদের অনলাইনে আবেদন করতে বলা হয়েছে। কৃষিবিজ্ঞান গুচ্ছে আট বিশ্ববিদ্যালয়ে এবার আসন সংখ্যা ৩ হাজার ৫৪৮টি।

কৃষিবিজ্ঞান গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি এবং সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্য অধ্যাপক মো. জামাল উদ্দিন ভূঞা স্বাক্ষরিত এ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

গুচ্ছ ভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হলো, ১) বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ময়মনসিংহ; ২) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, গাজীপুর; ৩) শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা; ৪) পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পটুয়াখালী; ৫) চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম; ৬) সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেট; ৭) খুলনা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা ৮) হবিগঞ্জ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, হবিগঞ্জ।

আবেদনের যোগ্যতাঃ  ২০১৮, ২০১৯ ও ২০২০ সালে এসএসসি/সমমান এবং ২০২১ ও ২০২২ সালে এইচএসসি/সমমানের পরীক্ষায় যারা বিজ্ঞান বিভাগ হতে জীববিজ্ঞান, রসায়ন, পদার্থবিজ্ঞান ও গণিত বিষয়সহ উত্তীর্ণ হয়েছে, কেবলমাত্র তারাই আবেদন করতে পারবে। ২০২১ সালে এসএসসি/সমমান মানোন্নয়ন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীরাও আবেদন করতে পারবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

আবেদনকারী প্রত্যেক ভর্তিচ্ছু শিক্ষর্থীর এসএসসি/সমমান এবং এইচএসসি/সমমানের পরীক্ষায় উভয় ক্ষেত্রে প্রতিটিতে চতুর্থ বিষয় বাতীত ন্যূনতম জিপিএ ৪.০০ এবং সর্বমোট ন্যূনতম জিপিএ ৮.৫০ থাকা আবশ্যক। জিসিই O এবং A লেভেল পাসকৃত প্রার্থীর ক্ষেত্রে O লেভেল পরীক্ষায় অন্তত ৫টি বিষয়ে এবং A লেভেল পরীক্ষায় বিজ্ঞানের অন্তত ২টি বিষয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে। উভয় পরীক্ষায় প্রতিটিতে ন্যূনতম জিপিএ ৪.০০ এবং সর্বমোট ন্যূনতম জিপিএ ৮.৫০ থাকা আবশ্যক। এক্ষেত্রে A ও B গ্রেডের জন্য যথাক্রমে ৫ ও ৪ জিপিএ গণনা করা হবে।

আবেদনের সময়সীমা ও ফিঃ আবেদন গ্রহণের সময়সীমা ৮ জুন থেকে ১০ জুলাই পর্যন্ত। আবেদন ফি এক হাজার ২০০ টাকা মাত্র (ট্রানজেকশন চার্জ ব্যতীত)।

ভর্তি পরীক্ষার কেন্দ্রঃ কৃষি গুচ্ছের ভর্তি পরীক্ষা দেশের আটটি কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হবে। যথাক্রমে: ১. বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ময়মনসিংহ, ২. বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, গাজীপুর, ৩. শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা; ৪. পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পটুয়াখালী; ৫. চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম; ৬. সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেট; ৭. খুলনা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা; ৮ হবিগঞ্জ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, হবিগঞ্জ-এর অধীনে একযোগে অনুষ্ঠিত হবে।

পরীক্ষা কেন্দ্রসমূহের তালিকা অনুযায়ী আবেদনকারীকে ১ থেকে ৮ পর্যন্ত পরীক্ষা কেন্দ্রের পছন্দক্রম উল্লেখ করতে হবে। আসন শূন্য থাকা সাপেক্ষে আবেদনকারীর পছন্দক্রম এবং আবেদন ফি প্রদানের তারিখ ও সময়ের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পরীক্ষা কেন্দ্র নির্ধারণ করা হবে।

লিখিত পরীক্ষাঃ এমসিকিউ পদ্ধতিতে ১০০ নম্বরের ভর্তি পরীক্ষা আগামী ৫ আগস্ট শনিবার বেলা সাড়ে ১১টা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত আটটি কেন্দ্র ও প্রযোজ্য ক্ষেত্রে এক বা একাধিক উপকেন্দ্রের অধীনে একযোগে অনুষ্ঠিত হবে।

২০২২ সালের এইচএসসি/সমমানের পরীক্ষার সিলেবাস অনুযায়ী ইংরেজিতে ১০, প্রাণিবিজ্ঞানে ১৫, উদ্ভিদবিজ্ঞানে ১৫, পদার্থবিজ্ঞানে ২০, রসায়নে ২০ এবং গণিতে ২০ নম্বরের প্রশ্ন থাকবে। প্রতিটি সঠিক উত্তরের জন্য ১.০০ (এক) নম্বর প্রদান করা হবে এবং প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.২৫ নম্বর কাটা যাবে।

মেধা স্কোর নির্ণয়ঃ পরীক্ষায় মোট ১৫০ নম্বরের ভিত্তিতে ফলাফল তৈরি করা হবে। ভর্তি পরীক্ষার ১০০ নম্বরের সাথে এসএসসি/সমমানের পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বরের (চতুর্থ বিষয় বার্তীত) ভিত্তিতে ২৫ এবং এইচএসসি/সমমানের পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বরের (চতুর্থ বিষয় বাতীত) ভিত্তিতে ২৫ নম্বর যোগ করে ফলাফল প্রস্তুত করে মেধা ও অপেক্ষমাণ তালিকা তৈরি করা হবে। যা পরীক্ষা সংশ্লিষ্ট ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা ‍হবে।

ভর্তি পরীক্ষার সংক্রান্ত তথ্যাবলিঃ কৃষি গুচ্ছের আবেদন সংক্রান্ত যে কোন তথ্য (acas.edu.bd) ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে। ভর্তিচ্ছুদের ওয়েবসাইটের ভর্তি নির্দেশিকা অনুযায়ী অনলাইনে আবেদন ফরম পূরণ করতে হবে। ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত যে কোন বিষয়ে কেন্দ্রীয় ভর্তি কমিটির সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত বলে গণ্য হবে এবং ভর্তি কমিটি যে কোন সিদ্ধান্ত পরিবর্তন ও পরিমার্জনের অধিকার রাখে।

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন