The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
রবিবার, ১৪ই এপ্রিল, ২০২৪

কুবি শিক্ষার্থীরা ঝালমুড়ি বিক্রেতা খালাকে ভ্যান উপহার দিলেন

শুকলা রাণী ত্রিপুরা কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় (কুবি) ক্যাম্পাসের ভেতরে ঝালমুড়ি বিক্রি করেন। অভাবের সংসারে আছে তিন সন্তান। একজন পড়ে পঞ্চম শ্রেণিতে আরেকজন তৃতীয় শ্রেণিতে। ছোট সন্তানকে নিয়ে তিনি ক্যাম্পাসের ভেতরে ঝালমুড়ি বিক্রি করেন। কিন্তু ঝালমুড়ির দোকান বলতে যা বুঝায় তা ছিলো না তার। ঝালমুড়ির ভ্যান গাড়ি বা নিত্যপ্রয়োজনীয় কোন কিছুই ছিলো না তার।

তার এই আর্থিক দুর্দশার কথা জেনে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থী সুপন সূত্রধরের উদ্যোগে শুকলা রাণীকে একটি ভ্যানগাড়ি উপহার দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

রোববার (১ জানুয়ারি) সকাল ১০টায় সুপন সূত্রধর ভ্যানের চাবি তুলে দেন শুকলা রাণীর হাতে।

ভ্যানগাড়ির চাবি হাতে আবেগ আপ্লুত হয়ে শুকলা রাণী ত্রিপুরা বলেন, আগে আমি বাইরে বসে জিনিস বেছতাম। এখন এই গাড়িতে বেছতে পারব। আসলে আমি খুবই খুশী এই মামাদের প্রতি। এই সময়ে নিজের সন্তানেরাও এমন করে না যা এই মামারা আমার জন্য করেছে।

ভ্যানগাড়ি ক্রয়ের জন্য প্রায় একমাস ধরে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে টাকা সংগ্রহ করা হয়। টাকা সংগ্রহের জন্য একটি মানবিক সহযোগিতা তদারকি কমিটি গঠন করা হয়। কমিটিতে ছিলেন সুপন সূত্রধর, সাজ্জাদ বাশার,  ঐশি ভৌমিক, দীপ চৌধুরী, আসিফ রাব্বি, গোলাম কিবরিয়া, হাসানুর রহমান, তরিকুল ইসলাম এবং ইশতিয়াক আহমেদ।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. প্রচ্ছদ
  2. ক্যাম্পাস
  3. কুবি শিক্ষার্থীরা ঝালমুড়ি বিক্রেতা খালাকে ভ্যান উপহার দিলেন

কুবি শিক্ষার্থীরা ঝালমুড়ি বিক্রেতা খালাকে ভ্যান উপহার দিলেন

শুকলা রাণী ত্রিপুরা কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় (কুবি) ক্যাম্পাসের ভেতরে ঝালমুড়ি বিক্রি করেন। অভাবের সংসারে আছে তিন সন্তান। একজন পড়ে পঞ্চম শ্রেণিতে আরেকজন তৃতীয় শ্রেণিতে। ছোট সন্তানকে নিয়ে তিনি ক্যাম্পাসের ভেতরে ঝালমুড়ি বিক্রি করেন। কিন্তু ঝালমুড়ির দোকান বলতে যা বুঝায় তা ছিলো না তার। ঝালমুড়ির ভ্যান গাড়ি বা নিত্যপ্রয়োজনীয় কোন কিছুই ছিলো না তার।

তার এই আর্থিক দুর্দশার কথা জেনে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থী সুপন সূত্রধরের উদ্যোগে শুকলা রাণীকে একটি ভ্যানগাড়ি উপহার দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

রোববার (১ জানুয়ারি) সকাল ১০টায় সুপন সূত্রধর ভ্যানের চাবি তুলে দেন শুকলা রাণীর হাতে।

ভ্যানগাড়ির চাবি হাতে আবেগ আপ্লুত হয়ে শুকলা রাণী ত্রিপুরা বলেন, আগে আমি বাইরে বসে জিনিস বেছতাম। এখন এই গাড়িতে বেছতে পারব। আসলে আমি খুবই খুশী এই মামাদের প্রতি। এই সময়ে নিজের সন্তানেরাও এমন করে না যা এই মামারা আমার জন্য করেছে।

ভ্যানগাড়ি ক্রয়ের জন্য প্রায় একমাস ধরে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে টাকা সংগ্রহ করা হয়। টাকা সংগ্রহের জন্য একটি মানবিক সহযোগিতা তদারকি কমিটি গঠন করা হয়। কমিটিতে ছিলেন সুপন সূত্রধর, সাজ্জাদ বাশার,  ঐশি ভৌমিক, দীপ চৌধুরী, আসিফ রাব্বি, গোলাম কিবরিয়া, হাসানুর রহমান, তরিকুল ইসলাম এবং ইশতিয়াক আহমেদ।

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন