কিউএস র‌্যাংকিংয়ে উন্নতি হয়েছে ঢাবির

যুক্তরাজ্যভিত্তিক শিক্ষা ও গবেষণা সংস্থা কোয়াকোয়ারেলি সায়মন্ডসের (কিউএস) বিষয়ভিত্তিক র‌্যাংকিংয়ে বেশ কয়েকধাপ উন্নতি হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি)। বিশ্বব্যাপী বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর র‌্যাংকিং মূল্যায়নকারী প্রতিষ্ঠান কিউএস গত বুধবার (৬ এপ্রিল) তাদের ওয়েবসাইটে এই র‌্যাংকিংয়ের তথ্য প্রকাশ করেছে।

র‌্যাংকিংয়ে আলাদা দুটি ক্যাটাগরি করা হয়েছে। প্রধান বিষয় (ব্রড সাবজেক্ট এরিয়া) ক্যাটাগরিতে ৫টি বিষয় রয়েছে। এসব হচ্ছে যধাক্রমে-ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টেকনোলজি, সোস্যাল সাইন্স অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট, আটর্স এন্ড হিউমেনিটিস, লাইফ সাইন্স এন্ড মেডিসিন এবং ন্যাচার সাইন্স। তাছাড়া নির্দ্দিষ্ট বিষয় (স্পেসিফিক সাবজেক্ট) ক্যাটাগরিতে ৫১টি আলাদা আলাদা বিষয় রয়েছে।

‘কিউএস ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি র‌্যাংকিংস বাই সাবজেক্ট ২০২২’ শীর্ষক এই র‌্যাংকিংয়ে ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টেকনোলজি ক্যাটাগরিতে ৬৬ দশমিক ২০ স্কোর করে এই তালিকায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থান ৩৩২তম। ২০২১ সালে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থান ছিল ৩৫১ থেকে ৪০০ এর মধ্যে। তবে সেবার সুনির্দিষ্টভাবে কতো নম্বরে তা উল্লেখ করেনি কিউএস।

র‌্যাংকিং তৈরি করতে কিউএস প্রতিবছর কয়েকটি মানদণ্ডের ভিত্তিতে পৃথিবীর বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে গবেষণা করে বার্ষিক একটি র‍্যাঙ্কিং প্রকাশ করে। বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর গবেষণা, উদ্ভাবন, চাকরিতে স্নাতকদের কর্মক্ষমতা, প্রাতিষ্ঠানিক সাফল্য, শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের সাফল্য, আন্তর্জাতিক গবেষণা নেটওয়ার্ক, গবেষণা প্রবন্ধের সাইটেশন, পিএইচডি ডিগ্রিধারী শিক্ষক-কর্মকর্তাদের সংখ্যা, আন্তর্জাতিক শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের অনুপাত, আন্তর্জাতিক পর্যায়ে শিক্ষার্থী বিনিময়ের হার বিচার করেই এ তালিকা করা হয়।

উল্লেখ্য, আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত কিউএস র‌্যাংকিং ২০০৪ সাল থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত যুক্তরাজ্যভিত্তিক শিক্ষা সাময়িকী টাইমস হায়ার এডুকেশনের সঙ্গে যৌথভাবে ‘সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের’ তালিকা প্রকাশ করছিল; ২০১০ সালে আলাদা হয়ে যায় কিউএস৷