The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
মঙ্গলবার, ২৩শে এপ্রিল, ২০২৪

এবার ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ, ইন্সটাগ্রাম ব্যবহারে টাকা লাগবে?

আর্থিক সংকটের মোকাবিলা করতে মেটা তার জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া নেটওয়ার্কিং সাইটগুলোর জন্য কয়েকটি ‘পেইড’ ফিচার্স আনছে। অথাৎ হোয়াটসঅ্যাপ, ফেসবুক এবং ইনস্টাগ্রামের নির্দিষ্ট কয়েকটি ফিচার ব্যবহার করতে চাইলে টাকা খরচ করতে হবে।

বছরের শুরু থেকেই আর্থিক সংকটের মুখে মেটা মালিকানাধীন ফেসবুক ও হোয়াটসঅ্যাপ। সেই সংকট কাটিয়ে উঠার জন্য এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে মেটা কর্তৃপক্ষ।

এখন এসব সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করতে ডেটা থাকলেই চলে। এর মধ্যে কোনোটি ব্যবহার করতেই আলাদা করে টাকা লাগে না। সেক্ষেত্রে আগামীদিনে এই চেনা ছবি পাল্টাবে বলে মনে হচ্ছে।

প্রযুক্তি বিষয়ক সংবাদমাধ্যম দ্য ভার্জের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মেটা তার কর্মচারীদের কাছে একটি ইন্টার্নাল নোটিশ পাঠিয়েছে। তাতে অনুমান করা যাচ্ছে ফিচারগুলো নিয়ে ইতিমধ্যেই কাজ শুরু করে দিয়েছে মেটা। যদিও এ নিয়ে মেটা সিইও মার্ক ‍জুকারবার্গ আগেই ইঙ্গিত দিয়েছিল।

রিপোর্ট অনুযায়ী, মেটার পেইড ফিচার কার্যকর করার জন্য ইতিমধ্যে ‘নিউ মনিটাইজেশন এক্সপিরিয়েন্সেস’ নামক একটি নতুন পণ্য সংস্থা তৈরি করা হয়েছে।

সংবাদমাধ্যম দ্য ভার্জের কাছে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে মেটার ভাইস প্রেসিডেন্ট জন হেগম্যান বলেছেন, কোম্পানি আসন্ন পেইড ফিচারগুলির মাধ্যমে ইউটিউব বা অন্যান্য ওটিটি প্ল্যাটফর্মগুলির মত ইউজারদের বিজ্ঞাপন বন্ধ করার কোনো অপশন দেবে না। কারণ মেটা তার বিজ্ঞাপন ব্যবসা বৃদ্ধিতে নিযুক্ত রয়েছে। তাছাড়া স্ন্যাপ, টুইটার এবং মেটার বেশিরভাগ আয় ডিজিটাল বিজ্ঞাপন থেকেই উঠে আসে। সেক্ষেত্রে কিছু পেইড ফিচার এনে কোম্পানি বিজ্ঞাপন ছাড়া অন্য উপার্জনের পথ পাবে।

সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মগুলোর এই সাবস্ক্রিপশন মডেল নতুন কোনো বিষয়টি নয়। আগে থেকেই টুইটারের ‘টুইটার ব্লু’ পেইড সাবস্ক্রিপশন পরিষেবা রয়েছে, যেখানে ব্যবহারকারীরা অর্থ প্রদান করে বিশেষ ফিচারের অ্যাক্সেস পান।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. প্রচ্ছদ
  2. বিজ্ঞান ও তথ্য-প্রযুক্তি
  3. এবার ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ, ইন্সটাগ্রাম ব্যবহারে টাকা লাগবে?

এবার ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ, ইন্সটাগ্রাম ব্যবহারে টাকা লাগবে?

আর্থিক সংকটের মোকাবিলা করতে মেটা তার জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া নেটওয়ার্কিং সাইটগুলোর জন্য কয়েকটি ‘পেইড’ ফিচার্স আনছে। অথাৎ হোয়াটসঅ্যাপ, ফেসবুক এবং ইনস্টাগ্রামের নির্দিষ্ট কয়েকটি ফিচার ব্যবহার করতে চাইলে টাকা খরচ করতে হবে।

বছরের শুরু থেকেই আর্থিক সংকটের মুখে মেটা মালিকানাধীন ফেসবুক ও হোয়াটসঅ্যাপ। সেই সংকট কাটিয়ে উঠার জন্য এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে মেটা কর্তৃপক্ষ।

এখন এসব সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করতে ডেটা থাকলেই চলে। এর মধ্যে কোনোটি ব্যবহার করতেই আলাদা করে টাকা লাগে না। সেক্ষেত্রে আগামীদিনে এই চেনা ছবি পাল্টাবে বলে মনে হচ্ছে।

প্রযুক্তি বিষয়ক সংবাদমাধ্যম দ্য ভার্জের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মেটা তার কর্মচারীদের কাছে একটি ইন্টার্নাল নোটিশ পাঠিয়েছে। তাতে অনুমান করা যাচ্ছে ফিচারগুলো নিয়ে ইতিমধ্যেই কাজ শুরু করে দিয়েছে মেটা। যদিও এ নিয়ে মেটা সিইও মার্ক ‍জুকারবার্গ আগেই ইঙ্গিত দিয়েছিল।

রিপোর্ট অনুযায়ী, মেটার পেইড ফিচার কার্যকর করার জন্য ইতিমধ্যে ‘নিউ মনিটাইজেশন এক্সপিরিয়েন্সেস’ নামক একটি নতুন পণ্য সংস্থা তৈরি করা হয়েছে।

সংবাদমাধ্যম দ্য ভার্জের কাছে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে মেটার ভাইস প্রেসিডেন্ট জন হেগম্যান বলেছেন, কোম্পানি আসন্ন পেইড ফিচারগুলির মাধ্যমে ইউটিউব বা অন্যান্য ওটিটি প্ল্যাটফর্মগুলির মত ইউজারদের বিজ্ঞাপন বন্ধ করার কোনো অপশন দেবে না। কারণ মেটা তার বিজ্ঞাপন ব্যবসা বৃদ্ধিতে নিযুক্ত রয়েছে। তাছাড়া স্ন্যাপ, টুইটার এবং মেটার বেশিরভাগ আয় ডিজিটাল বিজ্ঞাপন থেকেই উঠে আসে। সেক্ষেত্রে কিছু পেইড ফিচার এনে কোম্পানি বিজ্ঞাপন ছাড়া অন্য উপার্জনের পথ পাবে।

সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মগুলোর এই সাবস্ক্রিপশন মডেল নতুন কোনো বিষয়টি নয়। আগে থেকেই টুইটারের ‘টুইটার ব্লু’ পেইড সাবস্ক্রিপশন পরিষেবা রয়েছে, যেখানে ব্যবহারকারীরা অর্থ প্রদান করে বিশেষ ফিচারের অ্যাক্সেস পান।

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন