The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
শনিবার, ২রা মার্চ, ২০২৪

ইবিতে হাল্ট প্রাইজের কমিটি ঘোষণা

মোস্তাক মোর্শেদ ইমন, ইবি : ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) তৃতীয় বারের মতো আয়োজিত হতে যাচ্ছে হাল্ট প্রাইজ। শিক্ষার্থীদের নোবেল প্রাইজ খ্যাত বিশ্বব্যাপী আয়োজিত “হাল্ট প্রাইজ” একটি বার্ষিক প্রতিযোগিতায় এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় থাকবে “Redesigning Fashion”। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ইবি হাল্ট প্রাইজের ক্যাম্পাস ডিরেক্টর রাফায়েল আহমেদ অংকন।

এছাড়াও অন ক্যাম্পাস রাউন্ড সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য ২৩ সদস্য বিশিষ্ট একটি অর্গানাইজিং কমিটি গঠন করা হয়েছে। অর্গানাইজিং টিমের ক্যাম্পাস ডিরেক্টর হিসেবে রাফায়েল আহমেদ অংকন এবং ডেপুটি ক্যাম্পাস ডিরেক্টর হিসেবে খান ফাহবিহা আসনিম নির্বাচিত হয়েছেন।

কম্পিটিশনকে সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার সুবিধার্থে মোট দশটি সাবটিম গঠন করা হয়েছে। এতে করে প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর হিসেবে মৃত্তিকা খান, ওমর ফারুক হৃদয়, হেড অফ গ্রাফিক্স অ্যান্ড আইটি ডিপার্টমেন্ট নয়ন বিশ্বাস, গ্রাফিক্স অ্যান্ড আইটি ডিপার্টমেন্ট আলামিন হোসেন, মো রাকিব হাসান, হেড অফ ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট রনি সাহা, ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট মোহাম্মদ শাখাওয়াত, হোসেন ইনতাশাফ অর্প,হেড অফ নিউজ অ্যান্ড মিডিয়া সামী আল সাদ আওন, নিউজ অ্যান্ড মিডিয়া কো-অর্ডিনেটর মাসুম শাহরিয়ার, যায়িদ বিন ফিরোজ, সোশ্যাল মিডিয়া কো-অর্ডিনেটর নিশাত সুবাহ, কনটেন্ট অ্যান্ড র‍্যাইটিং মোঃ সালমান আহমেদ শাওন, টিম কো-অর্ডিনেটর জহুরুল ইসলাম ও পারভেজ হোসেন, স্পন্সর অ্যান্ড পার্টনারশীপ কো-অর্ডিনেটর ঋত্বিক মজুমদার, ফাইরোজ রোজা, জাজেজ অ্যান্ড মেন্টরস লিয়ানা দেওয়ান, আঁখি খাতুন, হেড অফ ফাইনান্স অ্যান্ড একাউন্টস আবু মোঃ জুবায়ের সালমান, ফাইনান্স অ্যান্ড একাউন্টস কো-অর্ডিনেটর মোহাম্মদ জুয়েল কে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, ‘হাল্ট প্রাইজ’কে বলা হয় বিশ্বের সবচেয়ে বড় ব্যবসায় উদ্যোগ প্রতিযোগিতা। যৌথভাবে যার আয়োজক জাতিসংঘ ও বিল ক্লিনটন ফাউন্ডেশন। যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদমাধ্যম হাফিংটন পোস্ট এই প্রতিযোগিতার নাম দিয়েছে ‘শিক্ষার্থীদের নোবেল পুরস্কার’। প্রতিবছর সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটনের আহ্বানে বহু শিক্ষার্থী একটি নির্দিষ্ট সমস্যার সমাধান করতে ঝাঁপিয়ে পড়ে এই প্রতিযোগিতার সুবাদে। সমস্যার সমাধান ও সেই সমাধান থেকে ব্যবসার সুযোগ তৈরি করার জন্য পুরস্কার হিসেবে বিজয়ী দলকে দেওয়া হয় ১ মিলিয়ন ইউএস ডলার (সাড়ে ১০ কোটি টাকা)।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. প্রচ্ছদ
  2. ক্যাম্পাস
  3. ইবিতে হাল্ট প্রাইজের কমিটি ঘোষণা

ইবিতে হাল্ট প্রাইজের কমিটি ঘোষণা

মোস্তাক মোর্শেদ ইমন, ইবি : ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) তৃতীয় বারের মতো আয়োজিত হতে যাচ্ছে হাল্ট প্রাইজ। শিক্ষার্থীদের নোবেল প্রাইজ খ্যাত বিশ্বব্যাপী আয়োজিত “হাল্ট প্রাইজ” একটি বার্ষিক প্রতিযোগিতায় এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় থাকবে “Redesigning Fashion”। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ইবি হাল্ট প্রাইজের ক্যাম্পাস ডিরেক্টর রাফায়েল আহমেদ অংকন।

এছাড়াও অন ক্যাম্পাস রাউন্ড সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য ২৩ সদস্য বিশিষ্ট একটি অর্গানাইজিং কমিটি গঠন করা হয়েছে। অর্গানাইজিং টিমের ক্যাম্পাস ডিরেক্টর হিসেবে রাফায়েল আহমেদ অংকন এবং ডেপুটি ক্যাম্পাস ডিরেক্টর হিসেবে খান ফাহবিহা আসনিম নির্বাচিত হয়েছেন।

কম্পিটিশনকে সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার সুবিধার্থে মোট দশটি সাবটিম গঠন করা হয়েছে। এতে করে প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর হিসেবে মৃত্তিকা খান, ওমর ফারুক হৃদয়, হেড অফ গ্রাফিক্স অ্যান্ড আইটি ডিপার্টমেন্ট নয়ন বিশ্বাস, গ্রাফিক্স অ্যান্ড আইটি ডিপার্টমেন্ট আলামিন হোসেন, মো রাকিব হাসান, হেড অফ ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট রনি সাহা, ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট মোহাম্মদ শাখাওয়াত, হোসেন ইনতাশাফ অর্প,হেড অফ নিউজ অ্যান্ড মিডিয়া সামী আল সাদ আওন, নিউজ অ্যান্ড মিডিয়া কো-অর্ডিনেটর মাসুম শাহরিয়ার, যায়িদ বিন ফিরোজ, সোশ্যাল মিডিয়া কো-অর্ডিনেটর নিশাত সুবাহ, কনটেন্ট অ্যান্ড র‍্যাইটিং মোঃ সালমান আহমেদ শাওন, টিম কো-অর্ডিনেটর জহুরুল ইসলাম ও পারভেজ হোসেন, স্পন্সর অ্যান্ড পার্টনারশীপ কো-অর্ডিনেটর ঋত্বিক মজুমদার, ফাইরোজ রোজা, জাজেজ অ্যান্ড মেন্টরস লিয়ানা দেওয়ান, আঁখি খাতুন, হেড অফ ফাইনান্স অ্যান্ড একাউন্টস আবু মোঃ জুবায়ের সালমান, ফাইনান্স অ্যান্ড একাউন্টস কো-অর্ডিনেটর মোহাম্মদ জুয়েল কে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, 'হাল্ট প্রাইজ’কে বলা হয় বিশ্বের সবচেয়ে বড় ব্যবসায় উদ্যোগ প্রতিযোগিতা। যৌথভাবে যার আয়োজক জাতিসংঘ ও বিল ক্লিনটন ফাউন্ডেশন। যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদমাধ্যম হাফিংটন পোস্ট এই প্রতিযোগিতার নাম দিয়েছে ‘শিক্ষার্থীদের নোবেল পুরস্কার’। প্রতিবছর সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটনের আহ্বানে বহু শিক্ষার্থী একটি নির্দিষ্ট সমস্যার সমাধান করতে ঝাঁপিয়ে পড়ে এই প্রতিযোগিতার সুবাদে। সমস্যার সমাধান ও সেই সমাধান থেকে ব্যবসার সুযোগ তৈরি করার জন্য পুরস্কার হিসেবে বিজয়ী দলকে দেওয়া হয় ১ মিলিয়ন ইউএস ডলার (সাড়ে ১০ কোটি টাকা)।

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন