The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
মঙ্গলবার, ৫ই মার্চ, ২০২৪

আর্জেন্টিনার হারের সাথে সম্পর্ক নেই, তিনি হৃদরোগী ছিলেন : পরিবার

কুমিল্লায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে কাউসার হোসেন কাকন (৫৫) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (২২ নভেম্বর) সন্ধ্যায় জেলার বুড়িচং উপজেলার শিকারপুর এলাকার নিজ বাড়িতে অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। দ্রুত তাকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

কাকনের মৃত্যু নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি গুজব ছড়িয়ে পড়ে। বলা হয়, বিশ্বকাপ ফুটবলে আর্জেন্টিনা হেরে যাওয়ায় হার্ট অ্যাটাক করে তিনি মারা গেছেন। এ নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট দিতে থাকেন স্থানীয় অনেকেই। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে ঘটনাস্থলে ছুটে যান সংবাদ মাধ্যম কর্মিরা।

কাকনের পরিবার জানিয়েছে, তিনি আগে থেকেই হৃদরোগে আক্রান্ত ছিলেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তার আবার হার্ট অ্যাটাক হয়। পরিবারের লোকজন তাকে হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তারা আরো বলেন কাকন খেলাধুলার প্রতি তেমন আগ্রহী ছিলেন না। তিনি খেলা দেখছিলেন ঠিকই। তবে তার হৃদরোগ তো আগে থেকেই ছিল।

দৈনিক সমকালের বুড়িচং উপজেলা প্রতিনিধি জাকির হোসেন, একটা মৃত মানুষকে নিয়ে ঠাট্টা করে গুজব ছড়ানো দুঃখজনক। আমাদের সবার এ বিষয়ে সতর্ক হওয়া উচিত।

কাকনের চাচাতো ভাই নেসার আহমেদ বলেন, কাকন ভাই আগে থেকেই হার্টের রোগী ছিলেন। তিনি স্বাভাবিকভাবেই মৃত্যুবরণ করেছেন। আর্জেন্টিনা হেরে যাওয়ায় মারা গেছেন- এটা ঠিক নয়।

বুড়িচং থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মারুফ রহমান ঢাকা পোস্টকে বলেন, শিকারপুর এলাকায় একজন হার্টের রোগী মারা গেছেন শুনেছি। কিন্তু তিনি আর্জেন্টিনার সমর্থক ছিলেন কিংবা আর্জেন্টিনা হেরে যাওয়ায় হার্ট অ্যাটাক করেছেন, এমন কোনো তথ্য পাইনি।

সৌদি চমক: ফেভারিট আর্জেন্টিনাকে ২-১ ব্যবধানে হারালো সৌদি আরব

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. প্রচ্ছদ
  2. জাতীয়
  3. আর্জেন্টিনার হারের সাথে সম্পর্ক নেই, তিনি হৃদরোগী ছিলেন : পরিবার

আর্জেন্টিনার হারের সাথে সম্পর্ক নেই, তিনি হৃদরোগী ছিলেন : পরিবার

কুমিল্লায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে কাউসার হোসেন কাকন (৫৫) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (২২ নভেম্বর) সন্ধ্যায় জেলার বুড়িচং উপজেলার শিকারপুর এলাকার নিজ বাড়িতে অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। দ্রুত তাকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

কাকনের মৃত্যু নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি গুজব ছড়িয়ে পড়ে। বলা হয়, বিশ্বকাপ ফুটবলে আর্জেন্টিনা হেরে যাওয়ায় হার্ট অ্যাটাক করে তিনি মারা গেছেন। এ নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট দিতে থাকেন স্থানীয় অনেকেই। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে ঘটনাস্থলে ছুটে যান সংবাদ মাধ্যম কর্মিরা।

কাকনের পরিবার জানিয়েছে, তিনি আগে থেকেই হৃদরোগে আক্রান্ত ছিলেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তার আবার হার্ট অ্যাটাক হয়। পরিবারের লোকজন তাকে হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তারা আরো বলেন কাকন খেলাধুলার প্রতি তেমন আগ্রহী ছিলেন না। তিনি খেলা দেখছিলেন ঠিকই। তবে তার হৃদরোগ তো আগে থেকেই ছিল।

দৈনিক সমকালের বুড়িচং উপজেলা প্রতিনিধি জাকির হোসেন, একটা মৃত মানুষকে নিয়ে ঠাট্টা করে গুজব ছড়ানো দুঃখজনক। আমাদের সবার এ বিষয়ে সতর্ক হওয়া উচিত।

কাকনের চাচাতো ভাই নেসার আহমেদ বলেন, কাকন ভাই আগে থেকেই হার্টের রোগী ছিলেন। তিনি স্বাভাবিকভাবেই মৃত্যুবরণ করেছেন। আর্জেন্টিনা হেরে যাওয়ায় মারা গেছেন- এটা ঠিক নয়।

বুড়িচং থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মারুফ রহমান ঢাকা পোস্টকে বলেন, শিকারপুর এলাকায় একজন হার্টের রোগী মারা গেছেন শুনেছি। কিন্তু তিনি আর্জেন্টিনার সমর্থক ছিলেন কিংবা আর্জেন্টিনা হেরে যাওয়ায় হার্ট অ্যাটাক করেছেন, এমন কোনো তথ্য পাইনি।

সৌদি চমক: ফেভারিট আর্জেন্টিনাকে ২-১ ব্যবধানে হারালো সৌদি আরব

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন