The Rising Campus
Education, Scholarship, Job, Campus and Youth
বৃহস্পতিবার, ২৫শে জুলাই, ২০২৪

আমেরিকার টাফটস ইউনিভার্সিটির ভিজিটিং স্কলার হলেন শেকৃবি’র প্রফেসর সাইফুল ইসলাম

শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (শেকৃবি) এর এনিমেল সায়েন্স এন্ড ভেটেরিনারি মেডিসিন অনুষদের ডিন এবং মেডিসিন এন্ড পাবলিক হেলথ বিভাগের চেয়ারম্যান, বাংলাদেশের ভেটেরিনারি শিক্ষা, গবেষণা ও চিকিৎসার অতি পরিচিত মুখ, আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন গবেষক, বাংলাদেশে পোষাপ্রাণীর চিকিৎসা আধুনিকায়নের পথিকৃৎ প্রফেসর ড. কে, বি, এম, সাইফুল ইসলাম আমেরিকার টাফটস ইউনিভার্সিটির কামিংস স্কুল অফ ভেটেরিনারি মেডিসিন এর ভিজিটিং স্কলার হিসেবে আমন্ত্রন লাভ করেছেন।

১৮৫২ সালে মেডফোর্ড, ম্যাসাচুসেটসে স্থাপিত টাফটস ইউনিভার্সিটি আমেরিকার অন্যতম প্রসিদ্ধ বিশ্ববিদ্যালয় যা প্রাণিচিকিৎসা ও গবেষণার জন্য সারা বিশ্বে সুপরিচিত। বিশ্ববিদ্যালয়টির স্কুল অফ ভেটেরিনারি মেডিসিন নর্থ গ্রাফটনে ৬০০ একর জায়গা জুড়ে অবস্থিত। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়টির ৭ টি ভেটেরিনারি টিচিং হাসপাতাল ও ক্লিনিক রয়েছে যার মাধ্যমে প্রতিবছর লক্ষাধিক প্রাণীর চিকিৎসা ও স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করা হয়।

প্রফেসর ড. কে, বি, এম, সাইফুল ইসলাম ভিজিটিং স্কলার হিসেবে উক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণীর চিকিৎসা ও স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারী দুইটি সুপ্রসিদ্ধ স্থাপনা হেনরী এন্ড লইস ফস্টার হাসপাতাল এবং টাফটস এট টেক কমিউনিটি ভেটেরিনারি ক্লিনিকে আগামী ০৮-২৩ জুলাই অ্যাডভ্যান্সড ক্লিনিক্যাল প্র্যাকটিস, কেমোথেরাপি ও ক্যান্সার ম্যানেজমেন্ট, রুটিন ও অ্যাডভ্যান্সড ডায়াগনস্টিক টেস্ট, পোষাপ্রাণীর ডেন্টিস্ট্রি এবং ভেটেরিনারি প্র্যাকটিসের অর্থনৈতিক গুরুত্ব বিষয়ে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিভাগে শিক্ষা ও গবেষণা কার্যক্রম পরিদর্শন, সক্রিয় অংশগ্রহণ এবং মতবিনিময় করবেন। পাশাপাশি তিনি কামিংস স্কুল অফ ভেটেরিনারি মেডিসিনের ডিন, হেনরী এন্ড লইস ফস্টার হাসপাতালের পরিচালক এবং টাফটস এট টেক কমিউনিটি ভেটেরিনারি ক্লিনিকের পরিচালকের সাথে একাধিক সভায় অংশগ্রহণ করবেন।

উল্লেখ্য যে, বাংলাদেশের প্রাণিচিকিৎসা, শিক্ষা ও গবেষণায় এক অনন্য পরিচিত মুখ প্রফেসর ড. কে, বি, এম, সাইফুল ইসলাম (মিরাজ)। তিনি একাধারে শিক্ষক, গবেষক এবং চিকিৎসক। নিজ মেধা এবং পরিশ্রমের স্বীকৃতিস্বরূপ এ পর্যন্ত ২০ বার বিভিন্ন আর্ন্তজাতিক পূরস্কার, বৃত্তি, স্বীকৃতি ও সম্মাণ অর্জন করার পাশাপাশি নিজ দেশের সরকারসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও সংস্থাকর্তৃক বৃত্তি ও সম্মাননা পেয়েছেন ১০ বার। প্রথম বাংলাদেশি একাডেমিক ভেটেরিনারিয়ান হিসেবে তিনি ২০১৯ সালে জাপানের ইম্পেরিয়াল শ্রেণীভুক্ত কৃষি ও প্রানিচিকিৎসা শিক্ষা প্রদানকারি বিশ্ববিদ্যালয় হক্কাইডো ইউনিভার্সিটির গ্রাজুয়েট স্কুল অফ এগ্রিকালচারের ডিভিশন অফ ফান্ডামেন্টাল এগ্রিসায়েন্স রিসার্চ গ্রুপের অধীনস্থ গবেষণাগারে ভিজিটিং রিসার্চ স্কলার এবং ২০১৭ সালে বিশ্বের অন্যতম প্রাচীন প্রাণিচিকিৎসা শিক্ষা প্রদানকারি বিশ্ববিদ্যালয় ফ্রান্সের ন্যাশনাল ভেটেরিনারি স্কুল অফ এলফোর্ট (এনভা) এর ভিজিটিং স্কলার হবার বিরল সম্মান অর্জন করেন।

এছাড়াও তিনি ২০২৩ সালে লাওসে এসএএডিসি ইয়াং ইনভেস্টিগেটর স্কলারশিপ, ২০২০ সালে যুক্তরাষ্ট্রে আইসিএএসভিএম এর ইনোভেটিভ রিসার্চ এওয়ার্ড, ২০১৫ইং সালে থাইল্যান্ডে এসএএডিসি ইয়াং সায়েনটিস্ট এওয়ার্ড, ২০১৪ইং সালে ইঞ্জিনিয়ারিং ইনফরমেশন ইনস্টিটিউট, সায়েন্টিফিক রিসার্চ এবং ওপেন এক্সেস লাইব্রেরীর যৌথ উদ্যোগে প্রদত্ত ইয়ং রিসার্চার এওয়ার্ড, কানাডার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন অফ মাইক্রোবায়োলজিক্যাল সোসাইটি প্রদত্ত ট্রাভেল গ্রান্ট-২০১৪ এবং ২০১১ইং সালে ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন অফ মাইক্রোবায়োলজিক্যাল সোসাইটি (আইইউএমএস) কর্তৃক প্রদত্ত “এশিয়ান ইয়ং ল্যাব সাইন্টিস্ট এওয়ার্ড’ এ ভূষিত হন। পাশাপাশি তিনি বাংলাদেশের একমাত্র ভেটেরিনারিয়ান হিসেবে পরপর তিনবার ২০১৫ইং সালে ভিয়েতনাম ও ফিলিপিনসে এবং ২০১৬ইং সালে মালয়েশিয়ায় অনুষ্ঠিত আর্ন্তজাতিক সম্মেলনে “কি ওপিনিয়ন লিডার” এর স্বীকৃতি অর্জন এবং দেশের প্রতিনিধিত্ব করেন। এর আগে তিনি ২০০৬ সালে ডেনমার্ক সরকারের ড্যানিডা ফেলোশিপ এবং ২০০৬ ও ২০০৮ সালে জাপান সরকার প্রদত্ত মনবুকাগাকুশো বৃত্তি লাভ করেন।

টাফটস ইউনিভার্সিটির কামিংস স্কুল অফ ভেটেরিনারি মেডিসিন এর ভিজিটিং স্কলার মনোনীত হওয়ার অনুভূতি ব্যক্ত করে ড. ইসলাম বলেন বিশ্বখ্যাত একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিজিটিং স্কলার হিসেবে স্বীকৃতি অবশ্যই আনন্দ ও অনুপ্রেরণার। এ প্রোগ্রামে অংশগ্রহন টাফটস ইউনিভার্সিটির ভেটেরিনারি স্কুলের সাথে শেকৃবি’র এনিমেল সায়েন্স এন্ড ভেটেরিনারি মেডিসিন অনুষদের শিক্ষা ও গবেষণার ক্ষেত্র সৃষ্টিতে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে বলে আমি বিশ্বাস করি।

শেকৃবি’র উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. অলক কুমার পাল বলেন, আমেরিকার প্রথম সারির বিশ্ববিদ্যালয় টাফটস ইউনিভার্সিটিতে ভিজিটিং স্কলার হিসেবে আমাদের দেশ থেকে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কেউ যাচ্ছে এটা আমাদের জন্য গর্বের এবং একই সাথে এটা আমাদের জন্য ভালো একটি অর্জন। আমি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্যের পদ থেকে এবং ব্যক্তিগত জায়গা থেকে প্রফেসর ড. কে, বি, এম, সাইফুল ইসলামকে অভিনন্দন জানাচ্ছি। আশাকরছি ভিজিটিং স্কলার হিসেবে তার এই অংশগ্রহণ আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের এএসভিএম অনুষদ এবং ভেট সাইন্স এন্ড এএইচ ডিগ্রির জন্য ভালো কিছু নিয়ে আসবে।

শেকৃবি’র উপাচার্য প্রফেসর ড. শহীদুর রশীদ ভূইয়া বলেন, আমেরিকা সকল দিক দিয়ে আমাদের থেকে অনেক অগ্রসর। ।টেকনোলজি, পড়াশোনার পদ্ধতি, গবেষণা এসব দিক দিয়ে তারা অনেক এডভান্স। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের এএসভিএম অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. কে, বি, এম, সাইফুল ইসলামের ভিজিটিং স্কলার হিসেবে সুযোগ প্রাপ্তি এবং কাজের মাধ্যমে যে অভিজ্ঞতা অর্জন করবে তা আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের এবং এএসভিএম অনুষদের বিভিন্ন ক্ষেত্রে কাজে লাগবে। এছাড়াও এই যাত্রার মাধ্যমে নতুন কোনো পথ উন্মুক্ত হওয়ার সুযোগ রয়েছে। আমার পক্ষ থেকে আমি তাকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।

ভিজিটিং স্কলার হিসেবে টাফটস ইউনিভার্সিটিতে বিভিন্ন শিক্ষা ও গবেষণা কার্যক্রমে অংশগ্রহণের লক্ষ্যে ড. ইসলাম আগামীকাল ০৬ জুলাই শনিবার ভোরে টার্কিস এয়ারলাইন্সের বিমানযোগে বাংলাদেশ ত্যাগ করবেন।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.