আবেদনের তিন বছর পর পরীক্ষার তারিখ, সব পদে প্রিলি একই সময়ে

রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক) ২৫টি পদে জনবল নিয়োগের জন্য ২০১৯ সালের ৫ মে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছিল। এসব পদে পরীক্ষা না নিয়ে ২০২০ সালের ২৯ নভেম্বর আবার একই নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের তিন বছর পর অবশেষে পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করেছে রাজউক। আগামী শুক্র ও শনিবার এসব পদের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা নেওয়া হবে।

২০১৯ ও ২০২০ সালের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে যেসব পদে লোক চাওয়া হয়েছিল, সেগুলো হলো সহকারী প্রকৌশলী (সিভিল), সহকারী প্রকৌশলী (যান্ত্রিক), সহকারী পরিচালক, সহকারী পরিচালক (রিসার্চ ও ডকুমেন্টেশন), সহকারী অথরাইজড অফিসার, সহকারী নগর–পরিকল্পনাবিদ, সহকারী স্থপতি, সহকারী আইন কর্মকর্তা, উপসহকারী প্রকৌশলী (সিভিল), উপসহকারী প্রকৌশলী (যান্ত্রিক), প্রধান ইমারত পরিদর্শক, হিসাবরক্ষক, তত্ত্বাবধায়ক, এস্টেট পরিদর্শক, কানুনগো, ইমারত পরিদর্শক, নথিরক্ষণ কর্মকর্তা, সাঁটলিপিকার কাম কম্পিউটার অপারেটর, নিরীক্ষক, উচ্চমান সহকারী, সাঁটমুদ্রাক্ষরিক কাম কম্পিউটার অপারেটর, ফটোগ্রাফার, সার্ভেয়ার, অপারেটর ও লিফটম্যান। এই ২৫ পদে মোট ২১৯ জনকে নেওয়া হবে।

২০২০ সালের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছিল, যাঁরা ২০১৯ সালে এসব পদে আবেদন করেছেন, তাঁদের নতুন করে আবেদনের প্রয়োজন নেই। তাই অনেক প্রার্থী ২০১৯ সালে আবেদন করে দীর্ঘ তিন বছর পর ২০২২ সালে পরীক্ষা দেওয়ার প্রবেশপত্র পেয়েছেন। অনেকে আবেদন করার কথা ভুলেও গিয়েছিলেন। অনেকের চাকরির বয়সও ইতিমধ্যে শেষ হয়েছে।

এমন একজন পরীক্ষার্থী ছাব্বির রহমান প্রথম আলোকে বলেন, ‘সেই ২০১৯ সালে আবেদন করেছিলাম। করোনা দেশে এল, আবার চলেও গেল, তবু রাজউক পরীক্ষা নেওয়ার সময় পেল না। তিন বছর পর মুঠোফোনে প্রবেশপত্র ডাউনলোড করার খুদে বার্তা পেয়ে অবাকই হয়েছিলাম।’

দীর্ঘ তিন বছর পর পরীক্ষা নেওয়ার কারণ জানতে চাইলে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের পরিচালক (প্রশাসন) মুহম্মদ কামরুজ্জামান প্রথম আলোকে বলেন, মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে এত দিন পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হয়নি। করোনা বিধিনিষেধ উঠে যাওয়ায় এখন পরীক্ষা নেওয়া হচ্ছে।

পরীক্ষা নেওয়ার বিলম্ব কারণ হিসেবে রাজউকের পক্ষ থেকে করোনাভাইরাসকে দায়ী করা হলেও প্রথম নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের প্রায় এক বছর পর পৃথিবীতে এই ভাইরাসের আবির্ভাব ঘটে। রাজউকের এই ২৫টি পদের মধ্যে কিছু পদ টেকনিক্যাল এবং কিছু সাধারণ। টেকনিক্যাল ও সাধারণ সব পদের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা একই সময়ে নেওয়ার সূচি প্রকাশ করা হয়েছে। এর ফলে বিপাকে পড়েছেন পরীক্ষার্থীরা।
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নগর ও অঞ্চল–পরিকল্পনা বিভাগের প্রাক্তন শিক্ষার্থী মো. রাকিব হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, সহকারী নগর–পরিকল্পনাবিদ, সহকারী পরিচালক (রিসার্চ ও ডকুমেন্টেশন) ও সহকারী অথরাইজড অফিসার—এ তিনটি টেকনিক্যাল পদ।

২০১৫ সালে আলাদাভাবে এসব পদের পরীক্ষা নিয়েছিল রাজউক। কিন্তু এবার সাধারণ ও টেকনিক্যাল সব পদের পরীক্ষা শুক্রবার বিকেল ৪টা থেকে ৫টা পর্যন্ত নেওয়ার সময়সূচি প্রকাশ করা হয়েছে। তিনি বলেন, ‘আমার চাকরির বয়স ইতিমধ্যে শেষ হয়েছে। রাজউকের এই পদগুলোই শেষ সম্বল হিসেবে ধরে নিয়েছিলাম। আমার মতো যারা টেকনিক্যাল ও সাধারণ দুই পদেই আবেদন করেছে, তাদের শুধু একটি পরীক্ষা দিতে হবে। চাকরির পরীক্ষা দেওয়ার আগেই একটি পদ ছেড়ে দিতে হচ্ছে। এর চেয়ে কষ্টের আর কিছু হতে পারে?’

নগর ও অঞ্চল–পরিকল্পনা বিভাগের আরেক প্রাক্তন শিক্ষার্থী তরিকুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, ‘রাজউক আর কিছু সিটি করপোরেশন ছাড়া নগর ও অঞ্চল–পরিকল্পনা বিভাগের শিক্ষার্থীদের বিষয়ভিত্তিক আর তেমন চাকরির সুযোগ নেই। রাজউকের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি আসে পাঁচ থেকে ছয় বছর পরপর। তিনটি পদে আবেদন করতে খরচ হয়েছে ২ হাজার ১০০ টাকা। একই সময়ে পরীক্ষা হওয়ার কারণে শুধু একটি পদে পরীক্ষা দিতে পারব।

নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে একই সময়ে পরীক্ষা নেওয়ার কথা লেখা ছিল না। পরীক্ষার সময় না পেছালে আমাদের টাকা ফেরত দেওয়া হোক।’ একই সময়ে সব পদের পরীক্ষার সূচির বিষয়ে জানতে চাইলে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের পরিচালক (প্রশাসন) মুহম্মদ কামরুজ্জামান প্রথম আলোকে বলেন, এটি অনেক পুরোনো নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি। দীর্ঘ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে পরীক্ষার তারিখ ও সময় ঘোষণা করা হয়েছে। ইতিমধ্যে প্রবেশপত্রও দেওয়া হয়েছে। নতুন করে পরীক্ষার তারিখ পরিবর্তন করার সুযোগ নেই।