রুয়েটের শিক্ষক কোয়ার্টারে হামলা

রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (রুয়েট) ক্যাম্পাসে শিক্ষকদের আবাসিক কোয়ার্টারে হামলার ঘটনা ঘটেছে। বুধবার ভোর আনুমানিক পৌনে ৬টার দিকে ক্যাম্পাসের ‘অ-২’ শিক্ষক কোয়ার্টারে হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা।

হামলায় কোনো হতাহতের ঘটনা না ঘটলেও শিক্ষক কোয়ার্টারের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে রুয়েট শিক্ষক সমিতি। এদিকে হামলায় জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন রুয়েটের উপাচার্য অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম সেখ।

ঘটনার বর্ণনা দিয়ে রুয়েট শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ফারুক হোসেন বলেন, ‘ভোরে শিক্ষকদের কোয়ার্টারে একদল দুর্বৃত্ত অতর্কিত হামলা চালায়। তারা রুয়েটের সীমানাপ্রাচীরের বাইরে থেকে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকে। এতে শিক্ষক কোয়ার্টারের অনেকগুলো থাই জানালা, বাড়ির পানির পাইপ ও পয়ঃনিষ্কাশনের পাইপ ভেঙে যায়। হামলার সময় শিক্ষক পরিবারের অধিকাংশরাই ঘুমাচ্ছিলেন। এতে তাদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।’

এদিকে এই হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে রুয়েট শিক্ষক সমিতি। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে শিক্ষকদের সর্বোচ্চ নিরাপত্তার দাবি জানিয়েছেন সমিতির নেতারা। বিকেলে সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ফারুক হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মিয়া মো. জগলুল সাদত স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ নিন্দা জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘রুয়েট শিক্ষক সমিতি বর্ণিত ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছে। একইসঙ্গে হামলাকারীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানাচ্ছি। ক্যাম্পাসে শিক্ষকদের বাসস্থানে নিরাপত্তা জোরদার করতে রুয়েট কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয় প্রশাসনের কাছেও সুপারিশ জানাচ্ছি।’

এ ঘটনায় পদক্ষেপের বিষয়ে রুয়েটের উপাচার্য অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম সেখ সমকালকে বলেন, ‘এ ধরনের হামলা দুঃখজনক। ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলেছি। আগামীকাল (বৃহস্পতিবার) রুয়েট প্রশাসনের মিটিং ডাকা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা করা হবে কি-না তা ওই মিটিংয়ে আলোচনা হবে। পাশাপাশি রুয়েট প্রশাসন কী ব্যবস্থা নেবে সেটিও মিটিং আলোচনা হবে।’

উপাচার্য আরও বলেন, ‘শিক্ষকদের কোয়ার্টারে নিরাপত্তারক্ষীর সংখ্যা বাড়ানো হবে। এখন থেকে কোয়ার্টার এলাকায় (ক্যাম্পারের ভেতরে) বহিরাগত কেউ প্রবেশ করতে পারবে না। প্রবেশ করতে হলে তাকে প্রয়োজনীয় পরিচয় দেখাতে হবে।’