সিলেট বিভাগের বিদেশগামীদের জন্য ছয় নির্দেশনা

করোনাভাইরাস মহামারী চলাকালে বিদেশগামীদের জন্য করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। সিলেটেও সরকারি নির্দেশনা মেনে বিশেষভাবে এই পরীক্ষা করা হচ্ছে। তবে সুস্পষ্ট নির্দেশনা থাকলেও এ নিয়ে বিভ্রান্তি দেখা দিয়েছে। এই বিভ্রান্তি দূর করতে পুনরায় ছয়টি নির্দেশনা দিয়েছে সিলেট স্বাস্থ্য বিভাগ।

আজ মঙ্গলবার (২৮ জুলাই) সিলেট সিভিল সার্জন অফিসের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

এতে বলা হয়, সিভিল সার্জনের কার্যালয়ে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের সহযোগীতায় সিলেট বিভাগের সকল বিদেশগামী যাত্রীদের করোনা পরীক্ষার নিবন্ধন গত ২২ জুলাই থেকে শুরু হয়েছে। এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তিতে সুস্পষ্ট ভাবে উল্লেখ থাকা সত্ত্বেও শুরু থেকেই কিছু বিষয় নিয়ে যাত্রীদের মধ্যে বিভ্রান্তি দেখা দিয়েছে। এছাড়া কতৃপক্ষও বিদেশগামী যাত্রীদের সেবা নিশ্চিত করতে গিয়ে বিভিন্ন অসুবিধা ও সমস্যার সম্মুখিন হচ্ছে। এ অবস্থা নিরসনে কিছু বিষয়ে গুরুত্ব আরোপ করার জন্য বিশেষ ভাবে অনুরোধ করা হয়েছে।

নির্দেশনাসমূহ হলো:

ক) টিকেটে উল্লেখিত তারিখই ফ্লাইটের তারিখ হিসেবে গন্য হবে। এইজন্য টিকেটে ফ্লাইটের তারিখ নিশ্চিত হয়ে শিডিউল অনুযায়ী নিবন্ধন করবেন।
খ) নিবন্ধনের দিন নির্দেশিত কাগজ-পত্র নিয়ে উপস্থিত হবেন। ফটোকপি যেনো সুস্পষ্ট হয়, সেদিকে লক্ষ রাখবেন। পাসপোর্টের ফটোকপি স্পষ্ট না থাকার কারনে রিপোর্টে ভূলভ্রান্তি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।
গ) দালাল হতে সাবধান। করোনা পরীক্ষায় সিভিল সার্জনের কার্যালয়ের নিবন্ধনের নির্দিষ্ট বুথ ছাড়া অন্য কারো সাথে কোন ধরনের আর্থিক লেনদেনের মাধ্যমে প্রতারিত হলে কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না।
ঘ) কারো মুখের কথায় প্রভাবিত না হয়ে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখিত নির্দেশনা ও শিডিউল অনুযায়ী নিবন্ধন করবেন ও নমুনা প্রদান করবেন।
ঙ) রিপোর্ট গ্রহণের পর কোন বানানে ভুল আছে কিনা, তা ভাল করে দেখে নেবেন।
চ) নিবন্ধন করা, নমুনা প্রদান ও রিপোর্ট গ্রহণের সময় সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখুন। কারণ, আপনার পাশের লোকের মাধ্যমে আপনি করোনায় আক্রান্ত হতে পারেন।

►বিজ্ঞপ্তিটি দেখুন: The Rising Campus