৩০ নম্বরেই শাবিপ্রবিতে সুযোগ পাবেন একশ শিক্ষার্থী

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে ছয় ধরনের কোটায় শিক্ষার্থী ভর্তি করা হবে। এক্ষেত্রে কেবলমাত্র পাস নম্বরেই এসব কোটায় ভর্তির সুযোগ পাবেন একাধিক ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী। সোমবার (০৫ সেপ্টেম্বর) শাবিপ্রবির ভর্তি কমিটি সংশ্লিষ্ট একাধিক কর্মকর্তা সূত্র এ তথ্য জানিয়েছেন।

শাবিপ্রবির ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতিবছর নতুন শিক্ষাবর্ষে ভর্তির সময় মুক্তিযোদ্ধা, ক্ষুদ্র-নৃগোষ্ঠী/জাতিসত্তা/হরিজন-দলিত, প্রতিবন্ধী, চা শ্রমিক, পোষ্য এবং বিকেএসপি কোটায় শিক্ষার্থীদের ভর্তি করা হয়।

এর মধ্যে- মুক্তিযোদ্ধা কোটায় ২৮ জন, ক্ষুদ্র-নৃগোষ্ঠী/জাতিসত্তা/হরিজন-দলিত কোটায় ২৮ জন, বিকেএসপি কোটায় ছয়জন, চা শ্রমিক কোটায় চারজন, প্রতিবন্ধী কোটায় ১৪ জন, পোষ্য কোটায় ২০ জনসহ মোট ১০০ জন শিক্ষার্থী ভর্তির সুযোগ পাবেন।

জানা গেছে, বর্তমানে শাবিপ্রবিতে মোট ২৮টি বিভাগ এবং ইন্সটিটিউট রয়েছে। যেকোনো কোটায় ভর্তির ক্ষেত্রে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষায় একজন শিক্ষার্থীকে অন্ততপক্ষে ৩০ নম্বর পেতে হবে।

এদিকে আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াড, আন্তর্জাতিক ইনফরমেটিক্স অলিম্পিয়াড, আন্তর্জাতিক পদার্থবিজ্ঞান অলিম্পিয়াড এবং অন্যান্য স্বীকৃত আন্তর্জাতিক অলিম্পিয়াডে স্বর্ণ, রৌপ্য বা ব্রোঞ্জ পদক মেডেল প্রাপ্ত ছাত্র-ছাত্রীরা জিএসটিতে আবেদন করা ছাড়াই সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ভর্তির সুযোগ পাবেন। তবে ‘সংশ্লিষ্ট বিষয়’ সম্পর্কে ভর্তি কমিটির সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত বলে বিবেচিত হবে।

এ ব্যাপারে এক কর্মকর্তা জানান, ‘২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষায় কোনো পাস নম্বর ছিল না। তবে এবার পাস নম্বর ৩০ নির্ধারণ করা হয়েছে। ফলে যারা কোটায় আবেদন করবেন, তাদের ন্যূনতম ৩০ নম্বর পেতে হবে।’

এ কর্মকর্তা আরও জানান, ‘তবে গুচ্ছ কমিটি কিংবা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন যেকোনো সময় এ নিয়ম পরিবর্তন হতে পারে। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ চাইলে আবেদনের শর্ত আরও শিথিল কিংবা বৃদ্ধি করতে পারে।’