১৪ থেকে ২১ এপ্রিল ব্যাংক বন্ধের সিদ্ধান্ত বাংলাদেশ ব্যাংকের

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে ১৪ থেকে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে সরকার। এই সময়ে বাংলাদেশের সব ব্যাংক বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী কঠোর বিধিনিষেধ চলাকালে মধ্যে ব্যাংক বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। আজ সোমবার সন্ধ্যায় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নীতিনির্ধারকরা এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। কিছু সময়ের মধ্যে এ নিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে বলে বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক মো. সিরাজুল ইসলাম সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের মাঠ প্রশাসন সমন্বয় অধিশাখার এক প্রজ্ঞাপনে ১৩ দফা নির্দেশনা দেওয়া হয়। সরকারি নির্দেশনায় আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ থাকবে বলে উল্লেখ করা হয়েছিল।

বিধিনিষেধ চলাকালে ব্যাংকের লেনদেন বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার জন্য গভর্নর ফজলে কবিরের নেতৃত্বে বিকেলে বাংলাদেশ ব্যাংকে বৈঠক হয়।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, লকডাউন চলাকালে দেশের সব তফসিলি ব্যাংক বন্ধ থাকবে। তবে স্থল ও নৌ বন্দরে ব্যাংকের শাখা খোলা রাখা যাবে। একই সঙ্গে কোনো ব্যাংক যদি মনে করে নির্দিষ্ট কোনো এডি শাখা খোলা রাখা দরকার, তাহলে স্ব বিবেচনায় সে শাখাটি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য খোলা রাখা যাবে। এডি শাখার সঙ্গে সম্পৃক্ত প্রধান কার্যালয়ের বিভাগগুলো সীমিত জনবল দিয়ে সচল রাখা যাবে।