স্কুল ও মাদ্রাসায় কারিগরি শিক্ষা বাধ্যতামূলক হবে: শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, স্কুল ও মাদ্রাসায় কারিগরি শিক্ষা বাধ্যতামূলক করার পরিকল্পনা রয়েছে। ২০২১ সালে ষষ্ঠ শ্রেণি থেকে এটা বাধ্যতামূলক চালুর কথা থাকলেও তা সম্ভব হয়নি। তবে ২০২২ সালে চালু করা হবে। সে লক্ষ্যে প্রস্তুতি এগিয়ে চলছে বলে জানান তিনি।

আজ সোমবার (৩১ আগস্ট) ‘কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা: এসডিজি অর্জনে করণীয়’ শীর্ষক ভার্চ্যুয়াল সেমিনারে তিনি এসব বলেন। এডুকেশন রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ (ইরাব) আয়োজিত সেমিনারে তিনি প্রধান অতিথি ছিলেন।

ডা. দীপু মনি বলেন, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষার হার ভবিষ্যতে বৃদ্ধি পাবে। প্রতিটি উপজেলায় কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নির্মাণ করছি। এগুলো অত্যন্ত আধুনিক মানের হবে। সেখানে নিয়োগ করা হবে দক্ষ শিক্ষক। এতে আধুনিক বিভিন্ন ট্রেড থাকবে।

তিনি বলেন, ‘এই পরিস্থিতি দীর্ঘস্থায়ী না হলে ২০২২ সালের মধ্যে সব ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষা চালু করতে পারব। নবম-দশম শ্রেণিতেও অন্তত দুটি ট্রেড বাধ্যতামূলক করা হবে।’

শিক্ষামন্ত্রী আরো বলেন, ‘কারিগরির প্রসারে প্রয়োজন মান উন্নয়ন। দীর্ঘদিন শিক্ষক নিয়োগ হয়নি।নিয়োগ দেওয়ার বড় উদ্যোগ নিয়েছি। শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ দিতে হবে। মানসম্মত ল্যাবরেটরি থাকতে হবে।’

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আমিনুল ইসলাম খাঁন, টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মো. আবুল কাশেম, মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক কায়সার আহমেদ, কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান ড. মোরাদ হোসেন মোল্লা।

ইরাবের সভাপতি মুসতাক আহমদের সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য দেন সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাব্বির নেওয়াজ। সঞ্চালনা করেন ইরাবের সাধারণ সম্পাদক নিজামুল হক। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সংগঠনটির কোষাধ্যক্ষ শরিফুল আলম সুমন।