সেরা গল্প লেখক-২০২০ প্রতিযোগিতায় বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের গল্প- ‘আমার ক্যাম্পাসে স্মৃতিগুলো’

মিস করি প্রিয়, SKTEC

সবুজে ঘেরা বিশুদ্ধ বাতাসে পরিপূর্ণ শান্ত ও ছোট্ট ক্যাম্পাস আমার। ক্লাস, প্রাকটিক্যাল, অ্যাসাইনমেন্টের চাপে এক মুহূর্ত অবকাশ নেই এখানে। সবসময় মনে হয় কবে ছুটিপাবো! কারন ছুটি মানেই এক প্রকার আনন্দ, ছুটি মানেই অন্যরকম প্রশান্তি। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় ( কলেজ)জীবনে এই শব্দটা বড়ই দুর্লভ। বিশ্ববিদ্যালয়ের (কলেজ)প্রত্যেক শিক্ষার্থী ক্যাম্পাসে থাকাকালে সবসময় ভাবে, কবে ছুটি পাব? আর বাসায় যাওয়ার এত আনন্দের মধ্যে ক্যাম্পাসকে মিস করার প্রশ্ন অনেকের মনে নাও আসতে পারে। তবুও ছুটিতে বাসায় থাকাকালে শত ব্যস্ততার মধ্যেও হুট করে মনে পড়ে যায় প্রিয় ক্যাম্পাসকে, মনে পড়ে যায় প্রিয় বন্ধুদের সঙ্গে কাটানো মুহূর্তগুলো। এবারের করোনা ভাইরাসের ছুটিতে প্রিয় ক্যাম্পাসকে খুব মিস করছি। ছুটিতে বাসায় এসে মিস করছি ফজরের নামাজের পর ভোরবেলা ক্যাম্পাসের ফিল্ডে ঘাসের ওপর খালি পায়ে প্রিয় বন্ধুদের সঙ্গে হাঁটা, এছাড়া মিস করি প্রিয় বন্ধুদের যাদের সঙ্গে সারাদিন খুনসুটি লেগেই থাকে, মিস করি মাঝেমধ্যে হুটহাট করে ভালো রেস্টুরেন্টে নান-রুটি খেতে যাওয়া। সবচেয়ে বেশি যে জিনিসটা মিস করি সেটা হল হয়রত মামার টঙ্গের মালায় চা টাকে সাথে বৃষ্টি তে ফুটবল খেলাটা। আর তো হলের সাদে রিয়েলের গিটার বাজানোর সাথে তালে তালে গান গাওয়া কথা নাইবা বলি।ছুটিতে বাসায় এসে সৃস্তুি গুলো বেশি মিস হচ্ছে। সাথে মোসতাফিজুর স্যার এর ম্যাথ ক্লাসটাকে।ক্যাম্পাস জীবনের এক বছর সময় অতিবাহিত হয়ে গেল। আল্লাহর কাছে মিনতি করি এই যে, পৃথিবী থেকে জেনো করোনা ভাইরাস বিলিন হয় খুব তাড়াতাড়ি।আমিও জেনো যেতে পারি আমার নিজ ঠিকানা প্রিয় SKTEC কে।