সুশান্তের মৃত্যু: ধোনি কেন নির্বাক?

ভারতে আত্মহত্যা নিয়মিত ঘটনা। কিন্তু বলিউডের উঠতি তারকা সুশান্তের আত্মহত্যা সিনে পাড়া থেকে শুরু করে ভক্তদের কাছে একেবারেই অপ্রত্যাশিত ছিল। যা নাড়িয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ ও ভারতের ক্রিকেট অঙ্গনকেও।

সুশান্ত চলচ্চিত্রের মানুষ হলেও ক্রিকেট দুনিয়ার সমর্থকদের হৃদয়ে আলাদা করে জায়গা করে নিয়েছিলেন। মূলত সুশান্ত সিং রাজপুত্রের চলচ্চিত্রে অভিষেক ২০১৩ সালে কাই পো ছে’ এই ছবির মধ্যে দিয়ে রুপালী পর্দায় আগমনী বার্তা দেন সুশান্ত।

কিন্তু, ভারতের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির জীবন অবলম্বনে নিরাজ পাণ্ডের পরিচালনায় তৈরি করা ‘এম এস ধোনি-দ্যা আনটোল্ড স্টোরি’। অসাধারণ অভিনয় দক্ষতায় সবার দৃষ্টিতে আসেন। ধোনি চরিত্রে অভিনয়ের জন্য ৯ মাস ধোনির মতো হতে অসীম ধৈর্যের সাথে নিজেকে তৈরী করেছেন। ধোনির ব্যাটিং ধরন আয়েত্ব আনতে কঠোর পরিশ্রম করেছেন সুশান্ত। উইকেটের পেছনে কিপিং স্কিল উন্নতি করতে ভোর থেকে বিকেল পর্যন্ত তিনভাগে অনুশীলন করতেন পাটনায় জন্ম নেয়া ৩৪ বয়সী টগবগে সুশান্ত।

সাধনা করলে নাকি ঈশ্বরকেও পাওয়া যায়। পর্দায় দারুণ ভাবে ধোনিকে রপ্ত করেছিলেন। ধোনির চলন বলন বিশেষ করে ধোনির হেলিকপ্টার শট নিক্ষুতভাবে শিখেছিলেন সুশান্ত। চলচ্চিত্রে ধোনির অভাব বিন্দুমাত্র অনুভব করেনি দর্শকরা। বরং আরেক ধোনিকে পেয়েছিল চলচ্চিত্র প্রেমীরা।
এম এস ধোনি দ্য আনটোল্ড স্টোরি মুক্তি পেয়েছিলো ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরে। দারুণ ব্যবসা সফল ছবিটিতে ধোনি চরিত্রে সুনিপুণ অভিনয় দক্ষতায় দর্শক হৃদয়ে শক্ত একটা জায়গা করে নেন সুশান্ত। ঐ ছবিটির শুটিংয়ের সময় ধোনির সাথে দেখা সাক্ষাৎ সুশান্তের। গড়ে উঠে বেশ সখ্যতা।

সুশান্তের আত্মহত্যার পর বলিউড তো বটেই, শোকে স্তব্ধ হয়ে পড়ে ভারত, পাকিস্তান ও বাংলাদেশের অনেক তারকা ক্রিকেটাররা। কারণ ঐ একটায়, ধোনি চরিত্র অভিনয়ের পর সুশান্তের প্রতি ক্রিকেট পাড়ার লোকদের আলাদা ভালবাসা তৈরি হয়। ভারতের জাতীয় দলের ক্রিকেটার থেকে কোচ রবি শাস্ত্রি টুইট করে আক্ষেপ প্রকাশ করেন।

কিন্তু বিস্ময়কর ব্যাপার হলো সুশান্তের আত্মহত্যার এক সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও কোন প্রতিক্রিয়া নেই মহেন্দ্র সিং ধোনির! এখন পর্যন্ত কোন গণমাধ্যমেও ধোনির এ ব্যাপারে মন্তব্য পাওয়া যায়নি। ধোনির ভেরিফাইড ফেসবুকে সর্বশেষ পোস্ট ১৬ মার্চে। এরপর আর কোন পোস্টের আপডেট পাওয়া যায়নি।

যদিও ধোনির টুইটার ফ্যান পেজে সুশান্তকে দু’একটা পোস্ট থাকলেও ওটা ধোনির সত্যি অফিসিয়াল ফ্যান পেজ কি না তা নিয়ে সন্দেহ আছে। যাই হোক, একটা ব্যাপার পরিস্কার ধোনি নিজেকে আড়ালেই রেখেছেন। তাই অনেকের প্রশ্ন সুশান্তের এমন মৃত্যু কি ধোনির আবেগকে ছুঁতে পারেনি। কেন নির্বাক ধোনি? বলিউড থেকে শুরু করে ভারতের ক্রিকেট পাড়া অশ্রু জলে ভিজে গেছে। কিন্তু আনুষ্ঠানিক কোন এবং কোন বক্তব্য নেই ধোনির। কেন এই নিষ্ঠুর নীরবতা ধোনির? এ প্রশ্নের উত্তর মিলবে কি?