সুর পাল্টালেন ট্রাম্প, চীনের সম্মতির অপেক্ষা

যুক্তরাষ্ট্রে চীন ভিডিও অ্যাপ টিকটক নিষিদ্ধ করেছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। কিন্তু দুইদিন না যেতেই আবার সুর পাল্টালেন ট্রাম্প। কারণটা গণমাধ্যমকে জানালেন তিনি।

ট্রাম্পের ভাষ্য মতে, যুক্তরাষ্ট্রে টিকটক চলবে, তবে সেটা ‘টিকটক গ্লোবাল’ নামে। যা পরিচালনার সিংহভাগ দায়িত্ব থাকবে ওরাকল এবং ওয়ালমার্টের হাতেই। ছাত্রপত্র দেয়ার পরই এনিয়ে শর্ত জুড়ে দিয়েছেন তিনি।

শনিবার হোয়াইট হাউসে সাংবাদিক বৈঠকে ট্রাম্প জানান, ওয়ালমার্ট, ওরাকল-এর সঙ্গে টিকটক সংস্থা বাইটডান্সের যে চুক্তির কথা চলছে তা তিনি সমর্থন করছেন। আমেরিকায় টিকটকের সেবা চলবে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, টিকটক গ্লোবাল-কে পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণ করবে ওরাকল এবং ওয়ালমার্ট। এই চুক্তি যদি চূড়ান্ত হয়ে যায় তাহলে মার্কিন নাগরিকদের নিরাপত্তা ১০০ শতাংশই বজায় থাকবে। এমন মন্তব্যও করেছেন ট্রাম্প।

এই চুক্তি প্রসঙ্গে মার্কিন ট্রেজারি এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, অ্যাপটির প্রযুক্তি এবং নিরাপত্তার মূল দায়িত্ব থাকবে ওরাকল এর হাতে। গ্রাহকদের তথ্য যাতে চুরি না হয় সেটা দেখবে এই সংস্থা। মার্কিন প্রশাসন সূত্রে খবর, তিন সংস্থার মধ্যে চূড়ান্ত চুক্তির জন্য এক সপ্তাহ সময় দেওয়া হয়েছে।

জাতীয় নিরাপত্তা বিঘ্নিত হওয়ার প্রশ্ন তুলে দু’টি চীনা অ্যাপ উইচ্যাট ও টিকটক নিষিদ্ধ করে ট্রাম্প প্রশাসন। রোববার থেকেই সেখানে উইচ্যাট পুরোপুরি বন্ধ হয়ে গেছে। তবে ১২ নভেম্বর পর্যন্ত সময় দেওয়া হয়েছে টিকটককে। কিন্তু তার আগেই ট্রাম্প ঘোষণা করলেন, টিকটক সংস্থা বাইটডান্সের সঙ্গে দুই মার্কিন সংস্থার যে চুক্তির কথা চলছে তাতে তিনি সমর্থন জানাচ্ছেন। এবং সব ঠিক থাকলে নতুন রূপে পরিষেবা শুরু করতে পারবে টিকটক।

তবে ট্রাম্প আশা প্রকাশ করেছেন চীন এই চুক্তিতে সম্মতি দেবে। এ প্রসঙ্গে তার মন্তব্য, অপেক্ষা করছি চীন এ ব্যাপারে কী সিদ্ধান্ত নেয়।

সূত্র-আনন্দবাজার পত্রিকা