সাকিব ফেরায় স্বস্তি নির্বাচকদের

জিম্বাবুয়ে সফর দিয়ে তিন সংস্করণের ক্রিকেটে ফিরছেন সাকিব আল হাসান। গত ফেব্রুয়ারিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টে খেলেছিলেন সাকিব। এরপর শ্রীলঙ্কায় সর্বশেষ টেস্ট সিরিজ থেকে ছুটি নিয়ে সাকিব খেলেছেন আইপিএলে। এবার জিম্বাবুয়েতে একমাত্র টেস্টের ১৭ সদস্যের দলে আছেন সাকিব। নিউজিল্যান্ড সিরিজের পর এ সিরিজ দিয়ে ছোট সংস্করণের ক্রিকেটেও ফিরছেন সাকিব।

আজ জিম্বাবুয়ে সফরে তিন সংস্করণের দল ঘোষণার পর প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘সেরা খেলোয়াড়কে তিনটা সংস্করণে পাচ্ছি, এটা আমাদের জন্য ইতিবাচক দিক। দলও এতে মানসিকভাবে চাঙা হবে। আশা করছি সাকিবের কাছ থেকে অনেক ভালো পারফরম্যান্স পাব। দলের পারফরম্যান্সও ভালো হবে ইনশা আল্লাহ।

ঘরোয়া ক্রিকেটে দারুণ ফর্মে থাকা উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান নুরুল হাসান এবার তিন সংস্করণেই সুযোগ পেয়েছেন। এবারের ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ টি-টোয়েন্টিতে শেখ জামালের জার্সিতে ১৩ ইনিংসে ১৫১ স্ট্রাইকরেটে ৩৪৬ রান করেছেন নুরুল। মে মাসে শ্রীলঙ্কা সফরে টেস্ট দলের সফরেও নুরুলকে অনুশীলনে দেখে নাকি মনে ধরেছে জাতীয় দলের কোচদের। ‘নুরুলের বর্তমান পারফরম্যান্স ভালো। শ্রীলঙ্কায় ওকে দেখে টিম ম্যানেজমেন্ট অনেক খুশি ছিল। আমরাও সন্তুষ্ট। বর্তমান পারফরম্যান্স দেখে চিন্তা করলাম, নুরুলের অন্তর্ভুক্তির প্রয়োজন আছে,’ বলেছেন মিনহাজুল।

জিম্বাবুয়েতে একমাত্র নতুন মুখ হিসেবে সুযোগ পেয়েছেন অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ী দলের অলরাউন্ডার শামীম হোসেন। সাম্প্রতিক ফর্ম শামীমের জাতীয় দলের দুয়ার খুলে দিয়েছে। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে ১০ ইনিংসে ১৪৯ স্ট্রাইকরেটে ১৮১ রান করেছেন এই তরুণ। এর আগে আয়ারল্যান্ড উলভস দলের বিপক্ষে বিসিবি ইমার্জিং দলের হয়েও ভালো খেলেছেন। আগে থেকেই শামীমের দিকে চোখ রাখছিলেন নির্বাচকেরা, ‘শামীম যখন যুব বিশ্বকাপ শেষে আমাদের হাই পারফরম্যান্সে (এইচপি) সুযোগ পান, তখন থেকেই তাঁকে দেখা হচ্ছিল। আয়ারল্যান্ড উলভস সিরিজে বেশ ভালো করেছেন। এরপর আমাদের এখানে যেসব সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের ম্যাচ হয়েছে, সেখানে ভালো করেছেন। ওনার যে দক্ষতা, আশা করি জাতীয় দলে জন্য বেশ সহায়ক হবে।

প্রশ্ন উঠেছে, ওয়ানডে দলে সৌম্য সরকার ও মেহেদী হাসানের না থাকা নিয়ে। দুজনই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সর্বশেষ ওয়ানডে সিরিজের দলে থাকলেও ম্যাচ খেলার সুযোগ পাননি। প্রমাণের সুযোগ না দিয়েই জিম্বাবুয়ে সফরের দল থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে তাঁদের। মিনহাজুল অবশ্য তাঁর ব্যাখ্যায় বলেছেন, ‘টিম ম্যানেজমেন্টের একজন বাড়তি বাঁহাতি স্পিনারের চাহিদা ছিল। আর সে ভাবনায় তাইজুল ইসলামকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে, যে কারণে আমরা সৌম্যকে বাদ দিয়েছি। ব্যাটসম্যান হিসেবে মিডল অর্ডারে অন্তর্ভুক্ত করেছি নুরুলকে।