সরকারি চাকরিপ্রত্যাশীদের জন্য আসছে সুখবর, বয়সে ছাড় দেবে সরকার

করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতিতে নানা ‘বিধিনিষেধ’ বা ‘লকডাউনে’ সরকারি চাকরির পরীক্ষা সময় মতো নিতে না পারায় এ বছরও চাকরিপ্রার্থীদের বয়সে ছাড় দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। মঙ্গলবার (২৯ জুন) দুপুরে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন গণমাধ্যমে এ তথ্য জানিয়েছেন। মন্ত্রণালয় ও বিভাগগুলোকে চাকরিপ্রার্থীদের বয়সে ছাড় দিয়ে বিজ্ঞপ্তি দেওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী।

তিনি বলেন, যে সময় থেকে চাকরির বিজ্ঞপ্তিগুলো হওয়ার কথা কিংবা পরীক্ষা নেওয়ার কথা সেই সময় থেকে কয়েক মাস বয়সে ছাড় পাবেন চাকরিপ্রার্থীরা।

গত বছর করোনা মাহামারিতে সাধারণ ছুটির কারণে ক্ষতিগ্রস্ত চাকরিপ্রার্থীদের বয়সের ছাড় দেয় সরকার। ওই বছর ২৫ মার্চ যাদের বয়স ৩০ বছর পূর্ণ হয়েছিল তাদের পরবর্তী পাঁচ মাস পর্যন্ত সরকারি চাকরিতে আবেদনের সুযোগ দিয়ে মন্ত্রণালয় ও বিভাগগুলোকে নির্দেশনা দেয় জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

এদিকে এই বছরও করোনা মহামারির সংক্রমণ পরিস্থিতিতে গত ৫ এপ্রিল থেকে ‘লকডাউন’ ঘোষণা করে সরকার। কয়েক দফা বাড়ানোর পর এটি আরো কঠোর হয়ে ১ জুলাই থেকে ৭ জুলাই পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় সরকারি চাকরির বিজ্ঞপ্তিগুলো আটকে আছে। কিছু পরীক্ষাও নেওয়া অসম্ভব হয়ে পড়েছে। এ অবস্থায় দেশে বেকারের সংখ্যা বাড়ছে। অন্যদিকে সরকারি চাকরিতে শূন্যপদ তিন লাখের বেশি।

সম্প্রতি প্রকাশিত জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের ‘স্ট্যাটিসটিকস অব সিভিল অফিসার্স অ্যান্ড স্টাফস, ২০২০’ শীর্ষক প্রতিবেদনের তথ্যানুযায়ী, বর্তমানে দেশে সরকারি চাকরিতে তিন লাখ ৮০ হাজার ৯৫৫টি পদ শূন্য রয়েছে।
তবে করোনাকালীন প্রণোদনা হিসেবে সরকারি চাকরিতে আবেদনের বয়সসীমা বাড়িয়ে ৩২ বছর করার দাবি জানিয়ে আসছেন চাকরিপ্রত্যাশীরা।