সময় এসেছে পরিবারের বাইরে থেকে নেতৃত্ব খোঁজার: প্রিয়াঙ্কা

আগামীতে কংগ্রেসের নেতৃত্ব গান্ধী পরিবারের বাইরে থেকে বেছে নেয়া প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াংকা গান্ধী।

‘দ্য বুক ইন্ডিয়া টুমরো’র গ্রন্থে এ কথা জানিয়েছেন কংগ্রেসের সভাপতি প্রিয়াঙ্কা। এ বিষয়ে ভাই রাহুল গান্ধীও মত দিয়েছেন বলে প্রকাশিত গ্রন্থে উল্লেখ করেছেন তিনি।

আগামী প্রজন্মের রাজনৈতিক নেতৃত্বের মতামত, দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে ‘দ্য বুক ইন্ডিয়া টুমরো’ লিখেছেন প্রদীপ ছিব্বার এবং হর্ষ শাহ। এই বইয়ে এক প্রশ্নের উত্তরে বর্তমান সভাপতি প্রিয়াঙ্কা জানান, সময় এসেছে পরিবারের বাইরে থেকে যোগ্য নেতা খোঁজার। এ বিষয়ে দলেরও সম্মতি জানানো উচিত বলে মনে করেন তিনি। আর সেটা যদি গান্ধী পরিবারের বাইরে কেউ সভাপতি হন, তবে খুশি মনেই মেনে নেবেন কংগ্রেসের এ জ্যেষ্ঠ নেত্রী।

বইয়ে প্রশ্ন উঠে এসেছে, দল চাইলে রাহুল কি আবার সভাপতি পদে ফিরবেন? জবাবে রাহুল বলেন, ‘আমি কংগ্রেসের আদর্শে বিশ্বাস করি। তাই আমি দলের হয়ে লড়াই চালিয়ে যাব। তবে, এই লড়াই ও দলকে শক্তিশালী করার জন্য আমার সভাপতি হওয়ার প্রয়োজন নেই।

রাহুল বলেন, কংগ্রেসের দায়বদ্ধতার সংস্কৃতি রয়েছে।

২০১৯ লোকসভায় দলের পরাজয়ের জন্য নিজেকেই দায়ী করেন সাবেক কংগ্রেস সভাপতি। আর এ কারণেই তিনি সভাপতি পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছে বলে জানান রাহুল।

এই সিদ্ধান্ত কি তার পরিবার সমর্থন করেছিল? এ প্রসঙ্গে ওয়ানাডের কংগ্রেস সংসদ সদস্য বলেন, ‘অবশ্যই আমি পরিবারের সঙ্গে কথা বলেছিলাম। এ বিষয়ে আমি আমার মা ও বোনের মতামতকে সম্মান করি।’

দলের অগ্রগতিতে তার পরিবারের ভূমিকাকে কীভাবে দেখেন প্রিয়াংকা গান্ধী? জবাবে কংগ্রেস সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘যদি আমরা নতুন নেতৃত্বকে উদ্বুদ্ধ করতে পারি, তবেই আমরা সফল বলে মনে করব।’

তার কথায়, ‘আমার দাদাই দলের পরাজয় স্বীকার করে সরে গেছেন।

অন্য একটি জায়গায় তিনি জানিয়েছেন, আমাদের পরিবার থেকে কারও কংগ্রেস সভাপতি হওয়া উচিত নয়। এ সিদ্ধান্তকে আমি সমর্থন করি। দল তার নিজের ছন্দে এগোবে বলে বিশ্বাস রাখি।’

গান্ধী পরিবারের বাইরে কেউ সভাপতি হলে তিনি কি কাজ করার সুযোগ পাবেন? এমন প্রশ্নের উত্তরে প্রিয়াংকা বলেন, ‘আমাদের মতো করে দল চালাতে গেলে তুলনা আসবে। নিজের মতো করে তাকে দল পরিচালনা করতে হবে। গণতন্ত্র মেনে দল চালাতে হবে। এতে সমস্যা হওয়ার কথা নয়। আমাদের পরিবার দলীয় স্বাধীনতায় বিশ্বাসী।