শিক্ষাখাতে বাজেট বৃদ্ধির দাবি শিক্ষকদের

প্রস্তাবিত ২০২১-২২ বাজেটে শিক্ষাখাতে বরাদ্দ বৃদ্ধির দাবি জানিয়েছে স্বাধীনতা শিক্ষক কর্মচারী ফেডারেশন। করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় অন্যান্য খাতের বরাদ্দ কমিয়ে শিক্ষাখাতের বাজেট বৃদ্ধির করা প্রয়োজন বলে মনে করে সংগঠনটি।

বৃহস্পতিবার (১৭ জুন) জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এবং স্বাধীনতা শিক্ষক কর্মচারী ফেডারেশনের প্রধান সমন্বয়কারী অধ্যক্ষ শাহজাহান আলম সাজু। লিখিত বক্তব্যে তিনি ছয়টি দাবি তুলে ধরেন।

দাবিগুলো হলো-

>> করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত শিক্ষার্থীদের জন্য আর্থিক প্রণোদনা কিংবা বিশেষ বৃত্তির ব্যবস্থা করা। সকল শিক্ষার্থীর জন্য বিনামূল্যে ডিভাইস, খাতা-কলমসহ অন্যান্য শিক্ষাসামগ্রী প্রদান এবং মাধ্যমিক পর্যায়ের (স্কুল, মাদরাসা, কারিগরি) শিক্ষার্থীদের দুপুরে সরকারি উদ্যোগে খাবার সরবরাহ করা;
>> দীর্ঘদিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় হতাশা, মোবাইল কিংবা ইন্টারনেট আসক্তিসহ বিভিন্ন কারণে অনেক শিক্ষার্থী এমনকি অনেক অভিভাবকও মানসিক বিপর্যয়ের সম্মুখীন হয়েছেন, তাদেরকে রাষ্ট্রীয় উদ্যোগে চিকিৎসা কিংবা কনসালটেশনের ব্যবস্থা করা;
>> অতিদ্রুত বিভিন্ন বোর্ড কর্তৃক যথাযথ নিয়মে এফিলিয়েশনপ্রাপ্ত সকল স্কুল, কলেজ, মাদরাসা ও কারিগরি (স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি, অনার্স/মাস্টার্স সহ) প্রতিষ্ঠানগুলোকে এমপিওভুক্ত করা এবং অবিলম্বে ঐচ্ছিক বদলি বাস্তবায়ন করা;

>> এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীদের সরকারি অনুরূপ শতভাগ বোনাস, উৎসব ভাতা, মেডিকেল ভাতা এবং বাড়ি ভাড়া প্রদানের ব্যবস্থা গ্রহণ করা;
>> করোনার অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে কারিগরি তথা কর্মমুখী শিক্ষার প্রতি বিশেষ নজর দিতে কারিগরি শিক্ষা বোর্ডকে ঢেলে সাজানো এবং
>> সর্বোপরি শিক্ষার্থীদের শিক্ষাকাল ও ভবিষ্যৎ চাকরি জীবনের কথা বিবেচনায় রেখে অন্তত দুইটি শিক্ষা সেশনের মেয়াদ এক বছরের স্থলে ৮/৯ মাস করা।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে প্রফেসর সাজিদুর রহমান, সাইদুর রহমান পান্না, অধ্যক্ষ মোনতাজ উদ্দিন মর্তুজা, মোস্তাফিজ রহমান নাঈম, অধ্যক্ষ নাসির উদ্দিন বাবুল, আব্দুল্লাহ আল মামুন, মোহাম্মদ কামরুজ্জামান, মো. হারুন অর রশিদ, মো. শান্ত ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।