স্কুল-ছাত্রী হীরামনি ধর্ষণ ও হত্যা, রিমান্ডে দুই তরুণ

নিজস্ব প্রতিবেদক: লক্ষ্মীপুরে স্কুলছাত্রীকে (১৪) ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় জড়িত সন্দেহে গ্রেপ্তার দুই তরুণকে ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। বুধবার (১৭ জুন) দুপুরে লক্ষ্মীপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক মো. সিরাজ্জদ্দৌলাহ কুতুবি তাদের রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেন।

লক্ষ্মীপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম আজিজুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ছাত্রী হত্যা মামলায় অয়ন ও সুমন হোসেনের বিরুদ্ধে তদন্তকারী কর্মকর্তা ও পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোসলেহ উদ্দিন আদালতে ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। বিচারক আবদেনটি আমলে নিয়ে তাদের ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।

ওসি আরো বলেন, ঘটনাটির মূল রহস্য উদঘাটন ও জড়িতদের গ্রেপ্তারে পুলিশের একাধিক দল মাঠে কাজ করছেন।

থানা পুলিশ জানায়, গত ১২ জুন দুপুরে লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার পালের হাট পাবলিক হাইস্কুলের নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ঘরে একা পেয়ে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়। উপজেলার দক্ষিণ হামছাদী ইউনিয়নের গোপীনাথপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ওইদিনই পুলিশ আরিফ ও সুমন নামে দুই তরুণকে সন্দেহভাজন আটক করে।

একইদিন রাতে স্কুলছাত্রীর মা বাদী হয়ে থানায় অজ্ঞাতদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। পরে ওই স্কুলছাত্রীকে বিভিন্ন সময় উত্যক্ত করা অয়ন নামে আরেক যুবককে আটক করে পুলিশ। অয়ন হামছাদী ইউনিয়নের চম্পকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র। সোমবার (১৫ জুন)ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা মামলায় অয়ন ও সুমন হোসেন জড়িত থাকার সন্দেহে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে সৌপর্দ করা হয়।