রাবির ভর্তি পরীক্ষা শুরু অক্টোবরে

দেশে করোনা বিরূপ প্রভাব ও সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে দু’ধাপ পেছানোর পর ভর্তি পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি)। ভর্তি কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী রাবির ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা আগামী ৪ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে।

মঙ্গলবার (১৭ অক্টোবর) দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক ড. আজিজুর রহমান।

তিনি বলেন, ভর্তি কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী ৪ অক্টোবর থেকে রাবির ভর্তি পরীক্ষা শুরু হবে। ৪ অক্টোবর সি ইউনিট (বিজ্ঞান), ৫ অক্টোবর এ ইউনিট (মানবিক) এবং ৬ অক্টোবর বি ইউনিটের (ব্যবসায়) পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

রাবি ভর্তি পরীক্ষার মানবন্টন যেভাবে

সভায় ভর্তি পরীক্ষার পূর্বের মানবন্টন বহাল রাখা হয়েছে। ফলে পূর্বের মানবন্টন অনুযায়ী এমসিকিউ প্রশ্নের আলোকে তিন ইউনিটের ভাবে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

মোট ১০০ নম্বরের এমসিকিউ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। পরীক্ষায় ৮০টি প্রশ্ন থাকবে। প্রতিটি প্রশ্নের মান ১.২৫ করে। আর ৫টি ভুল উত্তরের জন্য এক নম্বর করে কাটা যাবে। এক ঘণ্টার এই পরীক্ষার পাশ নম্বর ৪০। প্রতিদিন তিন শিফটে ১৫ হাজার করে ভর্তিচ্ছু পরীক্ষায় অংশ নেবেন। এবার তিন ইউনিটে মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১ লাখ ৩৫ হাজার।

মানবন্টন: এ ইউনিট

এ ইউনিটে (কলা, আইন, চারুকলা, সামাজিক বিজ্ঞান এবং শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউট) ক, খ, গ তিনটি অংশ থাকবে। এর মধ্যে ক(বাংলা) অংশে ৩০, খ(ইংরেজি) অংশে ৩০ এবং গ (সাধারণ জ্ঞান) অংশে ৪০ নম্বরের প্রশ্ন থাকবে। বিভাগ পরিবর্তনে ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের একই প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

এ ইউনিটে শিক্ষার্থী বাছাইয়ের ক্ষেত্রে মোট আসনের ৬০ শতাংশ মানবিকের জন্য নির্ধারিত থাকবে। বাকি ৪০ শতাংশ আসন মানবিক ব্যতিত অন্য বিভাগের জন্য।

মানবন্টন: বি ইউনিট

বি ইউনিটে বাণিজ্য এবং অবাণিজ্য শাখার শিক্ষার্থীরাও পরীক্ষা দিতে পারবেন।

বাণিজ্য শাখার শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে ইংরেজিতে ২৫, আইসিটিতে ১৫, হিসাব বিজ্ঞানে ২৫, ব্যবসায় সংগঠন ও ব্যবস্থাপনায় ২৫ এবং বাংলায় ১০ নম্বরের প্রশ্ন থাকবে।

অবাণিজ্য বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য ইংরেজি ৩০, বাংলায় ২০, সাধারণ জ্ঞান ২৫ এবং আইসিটিতে ২৫ নম্বরের প্রশ্ন থাকবে।

মানবন্টন: সি ইউনিট

সি ইউনিটে বিজ্ঞান এবং অবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা দেয়।

বিজ্ঞানের শিক্ষার্থীদের জন্য দুই ভাগে প্রশ্ন থাকবে। এর মধ্যে ক শাখার উত্তর দেয়া বাধ্যতামূলক। এই শাখায় পদার্থ বিজ্ঞানে ২৫, রসায়নে ২৫ এবং আইসিটি থেকে ৫টি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। খ শাখায় যে কোনো একটি বিষয়ের উত্তর করতে হবে। এর মধ্যে গণিতে ২৫, এবং জীববিজ্ঞানে ২৫ নম্বর এবং গণিত+জীব বিজ্ঞান সম্মিলিতভাবে ২৫ নম্বরের প্রশ্ন থাকবে। এর মধ্যে যেকোন একটি অংশের উত্তর করতে হবে।

যারা অবিজ্ঞান থেক এই ইউনিটে পরীক্ষা দেবেন তাদের জন্য বাংলায় ২৫, ইংরেজিতে ২৫ এবং ভূগোল/মনোবিজ্ঞান/সাধারণ জ্ঞান থেকে ৩০ নম্বরের প্রশ্ন থাকবে।