রমজানে ক্লাসের বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করা হচ্ছে: শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, আসন্ন রমজান মাসে ২৬ এপ্রিল পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ক্লাস চলার সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করা হচ্ছে। আগামী রোববার (৩ এপ্রিল) এ বিষয়ে মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হবে বলে।

শুক্রবার (১ এপ্রিল) দুপুরে বাংলা একাডেমিতে আয়োজিত বাংলাদেশ ইতিহাস সম্মিলনীর সপ্তম বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।

অনুষ্ঠান দীপু মনি বলেন, ‘করোনার কারণে প্রায় দুই বছর শ্রেণিকক্ষে পাঠদান সম্ভব হয়নি। এ জন্য রোজায় ক্লাস চালানো জরুরি। সামনে এসএসসি, এইচএসসি পরীক্ষা। তাদের জন্য ক্লাসটা এখন জরুরি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য নিয়োগ সুনির্দিষ্ট নীতিমালা অনুসরণ বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘সুনির্দিষ্ট নীতিমালা নয়, যেই নিয়মগুলো আমরা বিবেচনা করি, সেগুলো সচেতনভাবে মেনে চলা হয়। দু-একজনের জন্য সামগ্রিক ব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন তোলার অবকাশ নেই।’

করোনাকালীন প্রান্তিক পর্যায়ে যেসব মেয়ের বিয়ে হয়ে গেছে, তারা যেন শ্বশুরবাড়ি এলাকার প্রতিষ্ঠানে ক্লাস করার সুযোগ পায়, সেই ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও জানান মন্ত্রী।

এর আগে গতকাল বৃহস্পতিবার পবিত্র রমজান মাসে স্কুল-কলেজে সর্বোচ্চ সাড়ে ৩ ঘণ্টা ক্লাস হবে বলে এক বিজ্ঞপ্তিতে জানায় মাউশি।

মাউশি মহাপরিচালক প্রফেসর নেহাল আহমেদ স্বাক্ষরিত আদেশে বলা হয়েছে, কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শ্রেণি কার্যক্রম বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীদের শিখন ঘাটতি মেটাতে স্কুল-কলেজে সশরীরে পাঠদান পরিচালনার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

এক শিফটের প্রতিষ্ঠানে সকাল সাড়ে ৯টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত ক্লাস হবে। দুই শিফটের প্রতিষ্ঠানে প্রথম শিফট সকাল সাড়ে ৮টা থেকে ১১টা ১০ মিনিট পর্যন্ত এবং দ্বিতীয় শিফটের ক্লাস বেলা সাড়ে ১১টা থেকে দুপুর ২টা ১০ মিনিট পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে।

এতে আরও বলা হয়, দুই শিফটের স্কুল-কলেজে প্রতিদিন ৪টি ক্লাস হবে। আর এক শিফটের প্রতিষ্ঠানে ৫টি ক্লাস হবে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো স্ব স্ব রুটিন প্রনয়ন করবে।