যুবলীগ থেকে বহিষ্কৃত কিনা জানেন না সম্রাট

যুবলীগের বহিষ্কৃত নেতা ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট বলেছেন, আমি বহিষ্কৃত কি না জানি না। রাজনীতি নিয়ে আমার কোনো ভাবনা নেই, আমি সবসময় শেখ হাসিনার কর্মী ছিলাম, কর্মী হিসেবেই কাজ করে যাবো।

শুক্রবার বিকেলে ধানমণ্ডির ৩২ নম্বরে গিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে এ কথা বলেন তিনি।

শুক্রবার বিকাল ৫টার দিকে নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে তিনি ৩২ নম্বরে যান। তবে দুপুরের পর থেকেই হাজারো নেতাকর্মী ওই এলাকায় জড়ো হওয়ায় যানজট সৃষ্টি হয়।

যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাফর আহমেদ রানা, সাংগঠনিক সম্পাদক মাকসুদুর রহমানসহ নগরের বিভিন্ন ওয়ার্ডের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

নেতাকর্মীরা সেখানে ‘শেখ হাসিনা ভয় নাই, রাজপথ ছাড়ি নাই’, ‘শেখ হাসিনা এগিয়ে চলো, আমরা আছি তোমার সাথে’, ‘পঁচাত্তরের খুনীরা, হুঁশিয়ার সাবধান’ ইত্যাদি স্লোগান দেন।

জামিনে মুক্ত হয়ে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতাল ছাড়েন ক্যাসিনোকাণ্ডে আলোচিত এই সাবেক যুবলীগ নেতা। কারাবন্দি অবস্থাতেও দীর্ঘদিন বিএসএমএমইউতে ছিলেন সম্রাট। সোমবার জামিনে মুক্ত হলেও চিতিৎসার জন্য বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত তিনি হাসপাতালেই ছিলেন।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের যুব সংগঠনটির ঢাকা মহানগরের দক্ষিণ শাখার সাবেক সভাপতি সম্রাট ২০১৯ সালে গ্রেপ্তার হন। এরপর তার বিরুদ্ধে কয়েকটি মামলা হয়। চলমান চারটি মামলায় জামিন হলে ৩১ মাস পর মুক্তি মেলে সম্রাটের। কিন্তু ১৮ মে হাই কোর্ট অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলায় তার জামিন আদেশ বাতিল করে দেয়, ফলে ফের বন্দিজীবন শুরু হয়।

পরে জজ আদালত এ মামলায় সম্রাটকে ১৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দিলে আবারও তার মুক্তি মেলে।

ধানমণ্ডির ৩২ নম্বরে শ্রদ্ধা নিবেদনের সময় অন্যদের মধ্যে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সহসভাপতি সোহরাব হোসেন স্বপন, সরোয়ার হোসেন মনা, হারুনুর রশিদ, নাজমুল হোসেন টুটুল, কামাল উদ্দিন খান, মহসিন মাহমুদ, মজিব মহসিন পিয়াস, আলী আকবর বাবুল, মুরসালিন আহমেদ, খোরশেদ আলম মাসুদ; যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাফর আহমেদ রানা, ওমর ফারুক, সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান বকুল, মোহাম্মদ মাকসুদুর রহমান, ইব্রাহিম খলিল মারুফ, উত্তর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাহাদাত হোসেন সেলিম, দক্ষিণের শিল্প ও বানিজ্য সম্পাদক ওমর শরীফ পলাশ, আইন সম্পাদক শাহনাজ পারভীন হীরা, পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম আকতার, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক গোফরান গাজী, ধর্ম সম্পাদক আবুল কাশেম উপস্থিত ছিলেন।