যুক্তরাষ্ট্রে ২৩৫ বছরের রেকর্ড বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত নিনা আহমেদের

যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভেনিয়া অঙ্গরাজ্যে দেশটির ২৩৫ বছরের ইতিহাস ভেঙে রেকর্ড গড়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিক নিনা আহমেদ। অঙ্গরাজ্যের প্রাইমারি নির্বাচনে তিনি নারী অডিটর জেনারেল পদে ব্যাপক ভোটের ব্যাবধানে জয়ী হয়েছেন।

শ্বেতাঙ্গ অধ্যুষিত এ অঙ্গরাজ্যে একজন অশ্বেতাঙ্গ, মুসলিম এবং বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত হিসেবে নিনা আহমেদের বিজয় সেখানে বেশ হইচই ফেলে দিয়েছে। তার বিজয় দেশটিতে চলমান বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলনে জড়িতদের বিজয় হিসেবে দেখছেন বিশ্লেষকরা।

তবে নিনা আহমেদের এ বিজয় মোটেও সহজ ছিল না। পেনসিলভানিয়ায় ডেমোক্রেট দলের রাজনীতির নিয়ন্ত্রক ডেমোক্রেট শ্বেতাঙ্গদের প্রচণ্ড বিরোধিতা কাটিয়ে উঠতে হয়েছে তাকে। একই সঙ্গে অঙ্গরাজ্যের বড় বড় নেতাদেরও বিরোধিতার মুখে পড়তে হয় এ মুসলিম নারীকে।

নিনা আহমেদের বিজয়ের পেছনে বড় ভূমিকা রেখেছে রাজ্যের অনগ্রসর কমিউনিটির নানা শ্রমিক সংগঠন। তিনি দীর্ঘদিন ওইসব শ্রমিকদের সঙ্গে কাজ করেছেন। তাছাড়া বিজয়ী হলে কর্মস্থলে নারী নির্যাতন প্রতিরোধের যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তিনি তা দারুণ ফল দিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

অডিটর জেনারেল পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় ২ জুন। সব ভোট গণনা শেষে দেখা যায় তিনি নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বীর চেয়ে ৬০ হাজার ভোটে এগিয়ে আছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মাইকেল ল্যাম্ব অভিনন্দন জানিয়েছেন। বৃহস্পতিবার (১১ জুন) তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচিত ঘোষণা করার কথা রয়েছে।

নির্বাচনের পর বাংলাদেশের একটি সংবাদমাধ্যমকে দেয়া সাক্ষাৎকারে নিনা আহমেদ বলেন, এ বিজয় আমেরিকায় চলমান বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলনে জড়িতদের বিজয়। বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত একজন হিসেবে আমি গর্বিত।

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে আমেরিকায় সদা সরব নিনা আহমেদ বলেন, আমেরিকায় কৃষ্ণাঙ্গসহ সংখ্যালঘুদের অধিকার আদায়ে এ বিজয় এক মাইলফলক হয়ে থাকবে।

নিনা আহমেদের নির্বাচনে অন্যতম উপদেষ্টা ছিলেন অধ্যাপক জিয়াউদ্দিন আহমেদ। তিনি বলেন, আমেরিকার ২৩৫ বছরের ইতিহাসে বাংলাদেশিদের এ অর্জন আমাদের আরও এগিয়ে যাওয়ার প্রেরণা দেবে।

তিনি জানান, নিনা আহমেদের নির্বাচিত হওয়া কঠিন ছিল। দলের শক্তিশালী পক্ষটি তার বিরোধিতা করেছে। নিনা আহমেদ মুসলমান, গাত্রবর্ণে শ্বেতাঙ্গ নয়। শুধু রাজ্যের অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর সঙ্গে দীর্ঘদিনের কাজের সম্পর্কের কারণেই তার এ বিজয় সম্ভব হয়েছে বলে জিয়াউদ্দিন আহমেদ উল্লেখ করেন।

এর আগে নিনা আহমেদ ফিলাডেলফিয়া নগরে ডেপুটি মেয়র, নারী কমিশন, ব্ল্যাকমেল এনগেজমেন্ট অফিস ও যুব কমিশনের তদারকি করেছেন। তিনি এলজিবিটিবিষয়ক কার্যালয়ের সঙ্গেও কাজ করেছেন। নিনা আহমেদ বারাক ওমারার উপদেষ্টা কমিশনে দায়িত্ব পালন করেছেন।

নিনার জন্ম বাংলাদেশে। ২১ বছর বয়সে তিনি যুক্তরাষ্ট্র যান। সেখানে পরিবার নিয়ে প্রায় ৩০ বছর ফিলাডেলফিয়ায় বসবাস করছেন। সেখানে তার দুই মেয়ে সন্তানও রয়েছেন।