মৌখিক পরীক্ষায় ৪০৯ চিকিৎসক নিয়োগ, আবেদন শেষ ২৭ জুলাই

করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে শুধু মৌখিক পরীক্ষার মাধ্যমেই ৪০৯ জন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক (জুনিয়র কনসালট্যান্ট, অ্যানেসথেসিওলজি) নিয়োগ দেওয়া হবে। এ–সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)। গত ১৩ জুলাই রাতে পিএসসি এ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। এর আগে গত সোমবার (১২ জুলাই) স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে পিএসসিতে চাহিদাপত্র পাঠায়।

জুনিয়র কনসালট্যান্টদের (অ্যানেস্থেসিওলজি) বয়স ৫০ বছরের বেশি হওয়া যাবে না। তাদের এমবিবিএস কিংবা বাংলাদেশ মেডিকেল ও ডেন্টাল কাউন্সিলের স্বীকৃতিপ্রাপ্ত সমমানের শিক্ষাগত যোগ্যতা থাকতে হবে। বিএমডিসির নিবন্ধন থাকতে হবে।

আবেদন শুরু কবে
ঘরে বসে আগ্রহী ব্যক্তিরা অনলাইনে ১৮ জুলাই থেকে আবেদন করতে পারছেন। ওই দিন সকাল ১০টায় শুরু হয়েছে আবেদন। আবেদন করা যাবে ২৭ জুলাই রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত।

পরীক্ষার পদ্ধতি
১০০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষায় পাস নম্বর ৫০।

আবেদনের বয়স
বয়সসীমা ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে সর্বোচ্চ ৫০ বছর পর্যন্ত হতে হবে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলছে, দীর্ঘদিন ধরেই অ্যানেসথেসিওলজি পদে অনেক জনবল শূন্য। এ কারণে চিকিৎসাসেবা দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে সরকারি হাসপাতালগুলোকে। এর মধ্যে করোনাকালে সারা দেশে সিসিইউ ও আইসিইউতে রোগীর চাপ আগের চেয়ে অনেক বেশি। ফলে শূন্য পদ দ্রুত পূরণের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে নির্দেশনা দেওয়া হয়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে বিধিমালা সংশোধন করে ২৮ জুন গেজেট প্রকাশ করা হয়েছে।

এদিকে করোনা সংক্রমণের কারণে দুটি বিশেষ বিসিএসের মাধ্যমে চিকিৎসক নিয়োগের উদ্যোগ নেয় সরকার। এর মধ্যে ৩৯তম বিসিএসে (বিশেষ) ২০০ নম্বরের এমসিকিউ ও ১০০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষা নিয়ে পাঁচ হাজারের মতো চিকিৎসক নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। আর ৪২তম বিশেষ বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের পর মৌখিক পরীক্ষা শুরু হয়েছিল। করোনা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় ভাইভা আপাতত স্থগিত করা হয়েছে। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেই এ ভাইভা শুরু হবে।

*বিজ্ঞপ্তিটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন; the rising campus