মেডিকেলে আসন ফাঁকা দুই শতাধিক

দেশের সরকারি মেডিকেল কলেজগুলোতে এমবিবিএস প্রথম বর্ষে ২০১টি আসন ফাঁকা হয়েছে। এই আসনগুলোর বিপরীতে শিগগিরই দ্বিতীয় দফার মাইগ্রেশন সম্পন্ন করা হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গত ৫ জুন এমবিবিএস প্রথম বর্ষের প্রথম দফার মাইগ্রেশনের তালিকা প্রকাশ করা হয়। প্রকাশিত তালিকায় ৪৭টি আসন সাধারণ কোটা, মুক্তিযোদ্ধা কোটায় ৮টি এবং উপজাতীয় কোটায় আসন ছিল ৫টি। প্রথম দফার মাইগ্রেশন শেষে ৬টি আসন ফাঁকা হয়। পরবর্তী অনেক শিক্ষার্থী ভর্তি বাতিল করায় ফাঁকা আসনের সংখ্যা বেড়ে ২০১-এ দাঁড়িয়েছে।

স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তর বলছে, মেডিকেল ভর্তি হওয়া অনেক শিক্ষার্থী বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি হয়েছে। এর ফলে এমবিবিএস প্রথম বর্ষে অনেক আসন ফাঁকা হয়েছে। শিগগিরই এই আসনগুলোতে দ্বিতীয় মাইগ্রেশন সম্পন্ন হবে।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক (চিকিৎসা শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. এ কে এম আহসান হাবীব বুধবার (৩ আগস্ট) বিকালে বলেন, এমবিবিএস প্রথম বর্ষে ২০১টি আসন ফাঁকা। এই আসনগুলোর বিপরীতে দ্বিতীয় মাইগ্রেশন খুব তাড়াতাড়ি করা হবে।

প্রসঙ্গত, গত ১ এপ্রিল সারাদেশের ১৯টি কেন্দ্রের ৫৭টি ভেন্যুতে একযোগে সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। আর মঙ্গলবার (৫ এপ্রিল) দুপুরে পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়।

এবার ভর্তি পরীক্ষায় আবেদন করেছিলেন ১ লাখ ৪৩ হাজার ৯১৫ জন। এর মধ্যে ভর্তি পরীক্ষায় ১ লাখ ৩৯ হাজার ৭৪০ জন ভর্তিচ্ছু অংশ নিয়েছেন। অনুপস্থিত ছিলেন ৪ হাজার ১৭৫ জন। পরীক্ষায় অনুপস্থিতির হার ২ দশমিক ৯ শতাংশ।