মানবতার দৃষ্টান্ত দেখালেন সোনু সুদ

২০২০ সালে বদলে গিয়েছিল সোনু সুদের চেনা লুক। সিনেমার পর্দা নয়, বাস্তব জীবনের সাধারণ মানুষের চোখে হিরো হয়ে উঠেছিলেন তিনি। লকডাউনে পথে নেমে সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন সোনু। খাবার এবং চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছেন হাজার হাজার গরিব মানুষের।

এক বছরের মাথাতেই সেই একই ভূমিকায় অভিনেতা সোনু। এবার করোনা আক্রান্ত সংকটাপন্ন এক নারীকে নাগপুর থেকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে হায়দরাবাদ পাঠালেন তিনি।

ভারতী নামে ওই নারীর ফুসফুসের ৮৫ থেকে শতাংশ ক্ষতিগ্রস। ওই নারীর ২৫ বছরের একটি মেয়ে রয়েছে। মায়ের প্রাণ বাঁচানোর জন্য মেয়ে সোনু সুদের কাছে আকুতি জানান। সোনু সুদ থেকে ওই নারীর প্রাণ বাঁচানোর জন্য দ্রুত উন্নত চিকিৎসার উদ্যোগ নেন। সোনু ওই নারী নাগপুরের যে হাসপাতালে ভর্তি ছিল সেখানকার চিকিৎসকদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। তখন চিকিৎসকরা সোনুকে জিজ্ঞেস করেন, এই অবস্থায় তিনি ঝুঁকি নিতে চান কি না? কারণ ওই মহিলার বাঁচার আশা মাত্র ২০ শতাংশের মতো। আর তাকে বাঁচাতে হলে ফুসফুস প্রতিস্থাপন করতে হবে। আর তা একমাত্র হায়দরাবাদ সম্ভব।

সোনু এক মুহূর্তও না ভেবে ওই মহিলাকে বাঁচানোর জন্য যা করার দরকার করবেন বলে জানান। তিনি নাগপুরের চিকিৎসকদের বলেন, হায়দরাবাদের অ্যাপোলো হাসপাতালের সেরা চিকিৎসকদের দিয়ে তিনি চিকিৎসার ব্যবস্থা করবেন। সেই মতো সোনু ভারতীকে নাগপুর থেকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে হায়দরাবাদ পাঠানোর ব্যবস্থা করেন।

এদিকে সোনু নিজেও করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন। বাড়িতেই আলাদাই ছিলেন। শুক্রবার (২৩ এপ্রিল) টুইট করেন নিজেই জানিয়েছেন, তিনি এখন করোনামুক্ত। স্বাভাবিকভাবেই সোনুর সুস্থ হয়ে ওঠার খুশির খবর তার অনুগামীদেরর মধ্যে।