ভালোবাসার ৭৩ বছর: প্রথম যখন দেখা হয় তাদের

প্রথম যখন দেখা হয় সে সময় একজনের বয়স ৭ আর অন্যজনের ১২ বছর। তখনই গণমাধ্যমের শিরোনাম হন তারা। ঢালাও প্রচার করা হয় ভবিষ্যৎ এ দম্পতির খবর। এরপর প্রেম, প্রিয় মানুষটির জন্য নাগরিকত্ব পরিবর্তন, পরিণয় দীর্ঘ ৭৩ বছরের দাম্পত্যজীবন। বলা হচ্ছে ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ ও তার স্বামী প্রিন্স ফিলিপের কথা। ডিউক অব এডিনবরার মৃত্যুর পর তাদের কালজয়ী প্রেমকাহিনী আন্তর্জাতিক সব গণমাধ্যমে উঠে এসেছে।

১৯৩৪ সালে এক বিয়ের অনুষ্ঠানে প্রথমবারের মতো দেখা হয় প্রিন্সেস এলিজাবেথ আর প্রিন্স ফিলিপের। সে সময় দুজনের বয়স মাত্র ৭ আর ১২। তখনই ভবিষ্যতের দম্পতি হিসেবে খবরের শিরোনাম হন তারা।

এর পাঁচ বছর পর আবারো দেখা হয় তাদের। ১৯৩৯ সালে প্রিন্সেস এলিজাবেথ ও প্রিন্সেস মার্গারেটকে নিয়ে রাজা ষষ্ঠ জর্জ এক সরকারি সফরে যান ডার্টমুথের র‌য়্যাল নেভাল কলেজে। সে সময় প্রিন্স ফিলিপের ওপর রাজার দুই মেয়েকে দেখাশোনার দায়িত্ব পড়ে। এলিজাবেথের মনে তখনই জায়গা করে নেন ফিলিপ।

এরপর দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে অংশ নেন প্রিন্স। কিন্তু তাদের মধ্যে যোগাযোগ অব্যাহত থাকে। এ সময় দুজনের মধ্যে প্রচুর চিঠি চালাচালি চলে। তাদের সম্পর্ক গভীর হতে থাকে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ পরবর্তী সময়ে।

কিন্তু বাধা হয়ে দাঁড়ায় রাজপরিবার। ফিলিপকে নিয়ে অনেকের মনেই ছিল সংশয়। অনেকেই বলেন, প্রিন্স ফিলিপ বেশ রুক্ষ-অশিক্ষিত। এমনকি স্ত্রীর প্রতি বিশ্বস্ত থাকবেন না বলেও কথা ওঠে। এলিজাবেথের প্রতি তীব্র ভালোবাসা থেকেই প্রিন্স ১৯৪৬ সালে রাজার কাছে গিয়ে সরাসরি তার কন্যাকে বিয়ের প্রস্তাব দেন।

মেয়ের ভালোবাসা মেনে বিয়ের অনুমতি দিলেও নানা শর্ত দেন রাজা জর্জ। শর্ত মেনেই গ্রিসের নাগরিকত্ব ছেড়ে ব্রিটেনের নাগরিকত্ব গ্রহণ করেন প্রিন্স ফিলিপ। ১৯৪৭ সালের ২০ নভেম্বর বিয়ের পিড়িতে বসেন তারা। ওই দিনই ফিলিপকে খেতাব দেয়া হয় ডিউক অব এডিনবরা।

বিয়ের কয়টা বছর খুব আনন্দে কাটান এ দম্পতি। কিন্তু ১৯৫২ সালে আকস্মিক রাজা জর্জ মারা যাওয়ায় সবকিছু এলোমেলো হয়ে যায়। ৫৩ সালে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ সিংহাসনে আরোহণের পর নিজের সব স্বপ্ন বিসর্জন দিয়ে রানির পাশে দাঁড়ান ফিলিপ। তখন থেকেই রানির সঙ্গী ছিলেন তিনি। সাংবিধানিক কোনো দায়িত্ব না থাকলেও তার কাজ ছিল স্ত্রীকে সব কাজে সহযোগিতা করা।

৭৩ বছর তিনি ছিলেন রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের স্বামী। এই দম্পতির চার সন্তান রয়েছে। কিন্তু নিজের সন্তানদের পিতৃপরিচয়ে পরিচিত করাতে না পারার আক্ষেপ ছিল তার মনে।

ব্রিটিশ রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের স্বামী ডিউক অব এডিনবরা প্রিন্স ফিলিপ মারা গেছেন। শুক্রবার (০৯ এপ্রিল) এক বিবৃতিতে তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে বাকিংহ্যাম প্যালেস। দীর্ঘদিন ধরে নানা অসুস্থতায় ভুগছিলেন ৯৯ বছর বয়সী প্রিন্স ফিলিপ।