ভারতে ১০ম শ্রেণীতে অটোপাসের সিদ্ধান্ত, একাদশে ভর্তির নির্দেশ

করোনাভাইরাস সংক্রমণ ও মৃত্যুতে এশিয়া মহাদেশের মধ্যে সবচেয়ে বিপর্যস্ত ভারত। করোনার প্রথম ঢেউ কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই দেশটিতে দ্বিতীয় ঢেউ আঘাত হানে। এর মধ্যে করোনার টিকাদান শুরু করলেও দ্বিতীয় ঢেউ সামলাতে গিয়ে লেজে গোবরে অবস্থায় পড়েছে দেশটির কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারগুলো। এখন প্রতিদিনই দেশটিতে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্ত আর মৃত্যুর সংখ্যা।

সোমবার এক দিনেই ভারতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে প্রায় পৌনে তিন লাখ মানুষ। এটি গত ১২ দিন ধরে ধারাবাহিকভাবে আক্রান্ত বেড়ে চলার অংশ। আর এই সংখ্যা দেশটিতে এক দিনে আক্রান্তের সর্বোচ্চ রেকর্ডও বটে। এমন প্রেক্ষাপটে সোমবার রাতেই ভারতে সিদ্ধান্ত হয়েছে চলতি বছর ১০ম শ্রেণীতে পরীক্ষা ছাড়াই অটোপাস দেয়ার। একইসাথে একাদশ শ্রেণীতে কলেজে শিক্ষার্থীদের ভর্তির প্রক্রিয়া শুরু করতে দেশটির শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

সোমবার রাতে এক নোটিস জারি করে এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে ভারতের মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড (সিআইএসসিই)। একই নোটিসে আইএসসি (দ্বাদশ শ্রেণীর) পরীক্ষা কবে হবে, এ ব্যাপারে জুন মাসে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। নোটিসে বলা হয়েছে, বাতিল করা হয়েছে আইসিএসই (দশম শ্রেণীর) পরীক্ষা। দেশে করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ের আবহেই এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

এর আগে শুক্রবার দেশটিতে করোনা সংক্রমণ বাড়ার কথা মাথায় রেখে আইসিএসই ও আইএসসি পরীক্ষা পিছিয়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকার। বোর্ডের পক্ষ থেকে তখন জানানো হয়েছিল জুন মাসের প্রথম সপ্তাহে পরীক্ষার নতুন সূচির ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। কোভিড-১৯ পরিস্থিতি পর্যালোচনা করেই এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল।

পরে সোমবার রাতের নোটিসে সিআইএসসিই তাদের অনুমোদিত স্কুলগুলোকে নির্দেশ দিয়েছে অবিলম্বে ১০ম শ্রেণীর ছাত্র-ছাত্রীদের একাদশ শ্রেণীতে ভর্তি করার প্রক্রিয়া শুরু করতে। একইসাথে অনলাইনে একাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের পাঠদান শুরু করে দেয়ার কথাও বলা হয়েছে নোটিসে। এতে আরো বলা হয়েছে, আইএসসির পাঠ্যক্রম অনুযায়ী পড়ানো হবে ছাত্র-ছাত্রীদের।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা