ব্যবহারকারীদের ১৫ মে পর্যন্ত সময় বেঁধে দিল হোয়াটসঅ্যাপ!

২০২১ সালের শুরুতেই প্রাইভেসি পলিসি নিয়ে বিপদে পড়েছিল হোয়াটসঅ্যাপ। ব্যক্তিগত তথ্য চুরি হয়ে যেতে পারে এ ভয়ে অনেকেই ছেড়ে দিয়েছেন হোয়াটসঅ্যাপের ব্যবহার। বিতর্কের মুখে পড়ে ফেসবুকের মালিকানাধীন এই প্রতিষ্ঠানটি। কিছুটা পিছুও হাটে তারা। তবে কিছুদিন বিরতির পর আবার নড়েচড়ে বসেছে তারা।

এক ব্লগপোস্টে হোয়াটসঅ্যাপ জানিয়েছে, নতুন চেষ্টায় আরো সহনীয়ভাবে কয়েক সপ্তাহের মধ্যে এ ব্যাপারে ব্যবহারকারীদের নোটিফিকেশন পাঠাবে তারা।

নতুন বিবৃতিতে হোয়াটসঅ্যাপ জানিয়েছে, ‘স্মরণ করিয়ে দিতে চাই, চ্যাট অথবা শপিংয়ের নতুন উপায় তৈরি করছি, যা কিনা পুরোপুরি ঐচ্ছিক। ব্যক্তিগত মেসেজ সব সময় সুরক্ষিত থাকবে, যা হোয়াটসঅ্যাপ পড়তে পারবে না। আর নতুন নীতিমালার ব্যাপারে সম্মতি দিতে ব্যবহারকারীদের ১৫ মে পর্যন্ত সময় দেওয়া হবে।

হোয়াটসঅ্যাপ আরো জানিয়েছে, নতুন নীতিমালা যাদের ভালো লাগবে না তারা চাইলে নিজের অ্যাকাউন্ট মুছতে পারবেন, অ্যাকাউন্টের রিপোর্ট ডাউনলোডসহ নিজের চ্যাট হিস্ট্রি এক্সপোর্টও করতে পারেন।