বেশি পরীক্ষা করায় যুক্তরাষ্ট্রে সংক্রমণ বেশি দেখাচ্ছে: ডোনাল্ড ট্রাম্প

বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাসে এ যাবতকালের সবচেয়ে নাজুক পরিস্থিতিতে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এরই মধ্যে করোনা নিয়ে একের পর এক অযাচিত মন্তব্য করে বিতর্কের জন্ম দিচ্ছেন দেশটির রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্প। এবার করোনাভাইরাস শনাক্তের পরীক্ষা বেশি হচ্ছে বলেই যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন রাজ্যে সংক্রমণ বেড়ে যাচ্ছে এবং পরীক্ষা বন্ধ করলেই সংক্রমণ কমে যাবে বলে মন্তব্য করে নতুন বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন তিনি।

সোমবার (১৫ জুন) বয়স্ক নাগরিকদের সহযোগিতা বিষয়ক এক সভায় এসব কথা বলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। এর আগে করোনাভাইরাস রোধে শরীরে জীবাণুনাশক ইনজেকশন নেয়ার পরামর্শ দিয়ে বিতর্কের জন্ম দেন মার্কিন রাষ্ট্রপ্রতি।

তিনি বলেন,‘যদি আপনি পরীক্ষা করা বন্ধ করে দেন তাহলে কোনো করোনা রোগীই পাবেন না। যদি আমরা এই মুহূর্তে করোনা পরীক্ষা করা বন্ধ করে দেই তাহলে আমরা খুব কমই করোনা রোগী পাব।’

একই দিন সকালে দেওয়া এক টুইটবার্তায় ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, অন্য দেশের চেয়ে তার দেশে করোনার পরীক্ষা ব্যাপক আকারে এবং উন্নত পদ্ধতিতে হচ্ছে । এ কারণেই দেশটিতে অনেক বেশি সংক্রমণ দেখা যাচ্ছে। পরীক্ষা না হলে বা দুর্বল পদ্ধতিতে পরীক্ষা হলে দেখা যেত, যুক্তরাষ্ট্রে করোনা সংক্রমিত কোনো রোগীই প্রায় নেই।

করোনাভাইরাস নিয়ে একেক সময়ে একেক কথা বলছেন তিনি। একদিকে অধিক পরীক্ষার কথা গর্ভের সাথে বলছেন আপরদিকে এর সামালোচনাও করছেন।

সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘করোনার পরীক্ষা হলো দুদিকে ধার দেওয়া তরবারি, এটা আমাদের খারাপ অবস্থাকে প্রকাশ্য করছে। অন্যদিকে, এটা একটি ভালো কাজ।’

প্রসঙ্গত, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে করোনা মহামারিতে এ পর্যন্ত ১ লাখ ১৬ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বিশ্বে সর্বোচ্চ ২১ লাখ ১৪ হাজার ২৬ জন। সুস্থ হয়েছে ৫ লাখ ৭৬ হাজার ৩৩৪ জন।

সম্প্রতি, আরকানসাস, টেক্সাস, অ্যারিজোনা, অ্যালাবামা, ওকলাহোমা, ফ্লোরিডাসহ অন্তত ২০টি রাজ্যে সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে নিউইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। তবে এসব বিবেচনা না করে সবকিছু স্বাভাবিক আছে বলে প্রচার করছে ট্রাম্প প্রশাসন।