বিয়েতে হ্যাটট্রিক করেছেন যেসব টালিউড তারকা

টলিউডে বিয়ে ভাঙার ঘটনা নতুন নয়। বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক, মনের অমিল থেকে সাংসারিক কলহ আর এরপরই বিবাহবিচ্ছেদ হয় তারকাদের। প্রথম বিয়ে ভাঙার পর দ্বিতীয় বিয়েও ভেঙেছে অনেক তারকার। তাই কোনো কোনো তারকা একবার দুবার নয়, সাতপাকে ঘুরেছেন তিনবার।

প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়

১৯৯৩ সালে অভিনেত্রী দেবশ্রী রায়কে ভালোবেসে বিবাহ করেন প্রসেনজিৎ। তবে সংসার বেশি দিন স্থায়ী হয়নি। মাত্র দুবছরের মধ্যেই ১৯৯৫ সালে দুজনের সম্মতিতে আলাদা হন তারা। এরপর ১৯৯৭ সালে বিবাহ করেন অভিনেত্রী অপর্ণা গুহঠাকুরতাকে। কিন্তু মাত্র দু’বছরের ব্যবধানে সেই বিয়েও ভেঙে যায়। অবশ্য এই দম্পতির প্রেরণা চ্যাটার্জি নামে একটি মেয়ে আছে। পরে ২০০২ সালে প্রসেনজিৎ তৃতীয় বার বিবাহ করেন অর্পিতা পালকে। এই ঘরে ত্রিসানজিৎ নামে একটি ছেলে রয়েছে। বর্তমানে অর্পিতার সঙ্গেই সংসার করছেন তিনি।

শ্রাবন্তী চ্যাটার্জি

মাত্র ১০ বছর বয়সে ‘মায়ার বাঁধন’ সিনেমার মাধ্যমে টলিউডে পা রাখেন শ্রাবন্তী। ইন্টারমিডিয়েটে পড়াকালে ২০০৩ সালে তিনি ভালোবেসে বিয়ে করেন পরিচালক রাজীবকে। এই ঘরে ঝিনুক নামে একটি ছেলে রয়েছে। কিন্তু ২০১৬ সংসার ভাঙে শ্রাবন্তীর।

এরপর কৃষ্ণ ব্রজ নামে এক মডেলকে বিয়ে করেন তিনি। একবছরও টেকেনি এই সংসার। ২০১৭ সালে কৃষ্ণের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর ২০১৯ সালে বিয়ে করেন রোশন সিংকে। কিন্তু সেই সম্পর্কও ভাঙনের মুখে বলে গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে।

এদিকে সম্প্রতি রচনা ব্যানার্জীর দ্বিতীয় সংসার ভাঙার গুঞ্জন চাউর হয়েছে। বাংলা সিনেমার পাশাপাশি তামিল, তেলেগু, কানাডা, ওড়িয়া ভাষার একাধিক ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি। হিন্দি ছবি ‘সূর্যবংশম’তে অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে অভিনয় করে প্রশংসিত হয়েছেন রচনা।

ক্যারিয়ারের শুরুর দিকেই ওড়িয়া ছবিরসহ অভিনেতা সিদ্ধার্থ মহাপাত্র বিয়ে করেন এ নায়িকা। কিন্তু ২০০৪ সালে তাদের ডিভোর্স হয়। এর তিন বছরের মধ্যেই শিল্পপতি প্রবাল বসুকে বিয়ে করেন তিনি। প্রনীল নামে এ দম্পতির একটি ছেলে আছে। তবে সিনেমাপাড়ায় কিছুদিন ধরেই গুঞ্জন চলছে, আরও একটি সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ায় দ্বিতীয় সংসার ভাঙতে চলেছে রচনার। এ গুঞ্জন যদি সত্যি হয় তাহলে বিয়েতে তিনিও হ্যাটট্রিক করবেন।

সূত্র: কলকাতা২৪