বিসিএস: অনার্স শেষ বর্ষের শিক্ষার্থীদের জন্য দারুণ সুখবর

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স শেষ বর্ষের পরীক্ষায় অংশ নেওয়া শিক্ষার্থীরা অ্যাপিয়ার্ড হিসেবে ৪৩তম বিসিএস পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে মঙ্গলবার (৮ ডিসেম্বর) এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৯ সালের অনার্স শেষ বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষায় যেসব পরীক্ষার্থী অংশ নিয়েছেন কিন্তু এখনো করোনা মহামারির কারণে সব পরীক্ষা শেষ করা সম্ভব হয়নি, সেসব পরীক্ষার্থীরা অ্যাপিয়ার্ড হিসেবে ৪৩তম বিসিএস পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন।

তবে যে সব শিক্ষার্থী অনার্স শেষ বর্ষের পরীক্ষায় অংশ নিলেও ১ম বর্ষ, ২য় বর্ষ, তৃতীয় বর্ষের পরীক্ষায় এক বা একাধিক কোর্সে অকৃতকার্য হয়েছেন কিংবা এখনো উত্তীর্ণ হননি তারা এ সুযোগের বাইরে থাকবেন।

এছাড়া প্রফেশনাল কোর্স (বিবিএ, সিইসি, বিএড অনার্স এবং ইসিই) এ যে সব শিক্ষার্থী ১ম সেমিস্টার থেকে ৭ম সেমিস্টারের সব কোর্সে উত্তীর্ণ হয়ে ৮ম সেমিস্টারের চূড়ান্ত পরীক্ষায় অংশ নিয়েছেন কেবল তারাই ৪৩তম বিসিএস পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন।

এদিকে গত ৩০ নভেম্বর রাতে ৪২তম বি‌শেষ এবং ৪৩তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ ক‌রে সরকা‌রি কর্মক‌মিশন (পিএসসি)।

অনলাইনের ৪৩তম বিসিএসের আবেদন ৩০ ডিসেম্বরে শুরু হবে। প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত।

৪৩তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এ বিসিএসে বিভিন্ন ক্যাডারে ১ হাজার ৮১৪ জন কর্মকর্তা নেওয়া হবে। এর মধ্যে প্রশাসন ক্যাডারে ৩০০ জন, পুলিশ ক্যাডারে ১০০ জন, পররাষ্ট্র ক্যাডারে ২৫ জন, শিক্ষা ক্যাডারের জন্য ৮৪৩ জন, অডিটে ৩৫ জন, তথ্যে ২২ জন, ট্যাক্সে ১৯ জন, কাস্টমসে ১৪ জন ও সমবায়ে ১৯ জন নিয়োগ দেওয়া হবে।

২০০ নম্বরের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা আগামী বছরের মার্চে অনুষ্ঠিত হতে পারে বলে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে। তবে পরীক্ষার সুনির্দিষ্ট তারিখ ও সময় যথাসময়ে কমিশনের ওয়েবসাইট ও সাংবাদমাধ্যমে প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছে পিএসসি।

এছাড়া করোনাভাইরাস মহামারিকালে চিকিৎসক সঙ্কট কাটাতে ৪২তম বিশেষ বিসিএসের মাধ্যমে দুই হাজার চিকিৎসক নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে।

এজন্য জরুরি ভিত্তিতে ‘বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস (বয়স, যোগ্যতা ও সরাসরি নিয়োগের জন্য পরীক্ষা) বিধিমালা, ২০১৪’ সংশোধন করা হয়েছে।

৪২তম বিশেষ বিসিএসের মাধ্যমে ৩০০ নম্বরের (এমসিকিউ লিখিত পরীক্ষা ২০০ নম্বর ও ১০০ নম্বরের মৌখিক) পরীক্ষার মাধ্যমে বিসিএস স্বাস্থ্য ক্যাডারে নিয়োগ দেওয়া হবে।

৪২তম বিসিএসে অংশ নিতে ৭ ডিসেম্বর সকাল ১০টা থেকে আবেদন পূরণ করে ফি জমা দেওয়া যাবে। ২৭ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে আবেদন করতে হবে।