বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিজেদেরকে প্রস্তুত করতে হবে: স্পীকার

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (হাবিপ্রবি) ‘জ্যোতির্ময় স্মৃতিতে বঙ্গবন্ধু ও বর্তমান বাংলাদেশ’ শীর্ষক এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

আজ বুধবার (১৮ আগস্ট) বিকেলে ভার্চুয়ালি এই আলোচনা সভাটি অনুষ্ঠিত হয়েছে। হাবিপ্রবির উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম কামরুজ্জামানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।

মুখ্য আলোচক হিসেবে ছিলেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. এ কে আজাদ চৌধুরী, সম্মানিত আলোচক হিসেবে যুক্ত ছিলেন ইউজিসি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ফেলো ও হাবিপ্রবির সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম. আফজাল হোসেন ও হাবিপ্রবির কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. বিধান চন্দ্র হালদার।

বায়োকেমিস্ট্রি এন্ড মলিকুলার বায়োলজি বিভাগের চেয়ারম্যান ড. নুর-ই-নাজমুন নাহার এর সঞ্চালনায় আলোচনা সভার শুরুতে সূচনা বক্তব্য রাখেন ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা বিভাগের পরিচালক অধ্যাপক ড. ইমরান পারভেজ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বঙ্গবন্ধুর কর্মময় জীবনের স্মৃতিচারণ করে বলেন, বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ একটি অবিচ্ছেদ্য নাম। প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে জনগণকে সম্পৃক্ত করে অধিকার আদায়ে রাজনৈতিক কর্মসূচি চালাতেন বঙ্গবন্ধু। এ কারণে ছাত্রজীবন থেকে শুরু করে জীবনের সকল অধ্যায়ে সফল নেতা হয়ে উঠেছিলেন তিনি।

“অনেকে তার বর্ণাঢ্য কর্মময় জীবন ও স্বাধীনতায় অবদানকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা চালিয়েছে, এ ব্যাপারে নতুন প্রজন্মকে সজাগ থাকতে হবে। প্রজন্ম থেকে প্রজন্মান্তরে ছড়িয়ে দিতে হবে তার জীবনাদর্শ।”

তিনি আরও বলেন, জ্ঞান-বিজ্ঞানের উচ্চ শিখরে হাবিপ্রবির তরুণ মেধাবীদের দীপ্ত পদচারণায় মুখর হয়ে উঠুক এই ক্যাম্পাস। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিজেদেরকে প্রস্তুত করতে হবে পরবর্তী বিশ্বের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায়।