The Rising Campus
News Media
শুক্রবার, ২৭শে জানুয়ারি, ২০২৩

বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে তরুণীর অনশন

পটুয়াখালীর দুমকিতে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে দুই দিন ধরে অনশনে আছেন এক তরুণী। তরুণীর অনশন নিয়ে এলাকায় ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে।

অনশনকারী শিক্ষার্থী ও প্রেমিকের পারিবারের কাছ থেকে জানা যায়, মৃত. ইউনুস হাওলাদারের ছেলে রিয়াজুল ইসলাম রাব্বির (২৬) সাথে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের কল্যাণে পৌনে চার বছর আগে পরিচয় থেকে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে অনশনকারী তরুণীর সাথে। তারই প্রেক্ষিতে মাস দুই আগে উভয় পরিবারের পক্ষ থেকে বিয়ের কথাবার্তা ও দেখাদেখি হয়। কিন্তু সেটি বেশিদুর আগায়নি। এরপর থেকে তরুণী প্রেমিক রাব্বিকে বিয়ের চাপ দিয়ে আসছিলেন। কিন্তু রাব্বি তার পরিবারকে রাজি করাতে না পারার অজুহাতে তাকে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানায়। এমনকি গত সপ্তাহ থেকে ওই তরুণীর সঙ্গে সব ধরনের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়।

কোনো উপায় না পেয়ে গত শনিবার (৭ ডিসেম্বর) সকালে ওই তরুণী বিয়ের দাবিতে রাব্বির বাড়িতে অনশন শুরু করে। বিষয়টি মুহূর্তেই এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে। রাব্বি ঢাকায় চাকরি করায় তাকে বাড়িতে পাওয়া যায়নি।

অনশনকারী তরুণী জানায়, আমার সরলতার সুযোগে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ও আমার সব শেষ করে দিয়েছে। তার বাড়ির লোকজন আমাকে নানাভাবে ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। জোরপূর্বক বাড়ি থেকে বের করে দেওয়ার পাঁয়তারা করছে। হয় বিয়ে না হয় আত্মহত্যা; এছাড়া এখন আমার আর কোনো পথ নেই।

রাব্বির মা বলেন, আমার বড় ছেলের বউ আর আমার ভাই এই মেয়েকে তার বাড়িতে দেখতে গিয়েছিল। পছন্দ না হওয়ায় বিয়ে হয়নি।

দুমকি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বলেন, ৯৯৯-এ কল পেয়ে সেখানে ফোর্স পাঠানো হয়েছে।

দুমকি উপজেলা নির্বাহী অফিসার আল ইমরান বলেন, যেহেতু দুজনেই প্রাপ্তবয়স্ক, এ বিষয়ে দুই পরিবারকে মিলে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। তবে যদি কোনো পক্ষ মনে করে আইন লঙ্ঘন হয়েছে তাহলে আইনের আশ্রয় নিতে পারেন। আমি যতটা জানি, সোমবার দুই পক্ষই নিজেদের মধ্যে আলোচনা সাপেক্ষে একটি সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবেন।

0
You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. হোম
  2. জাতীয়
  3. বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে তরুণীর অনশন

বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে তরুণীর অনশন

পটুয়াখালীর দুমকিতে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে দুই দিন ধরে অনশনে আছেন এক তরুণী। তরুণীর অনশন নিয়ে এলাকায় ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে।

অনশনকারী শিক্ষার্থী ও প্রেমিকের পারিবারের কাছ থেকে জানা যায়, মৃত. ইউনুস হাওলাদারের ছেলে রিয়াজুল ইসলাম রাব্বির (২৬) সাথে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের কল্যাণে পৌনে চার বছর আগে পরিচয় থেকে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে অনশনকারী তরুণীর সাথে। তারই প্রেক্ষিতে মাস দুই আগে উভয় পরিবারের পক্ষ থেকে বিয়ের কথাবার্তা ও দেখাদেখি হয়। কিন্তু সেটি বেশিদুর আগায়নি। এরপর থেকে তরুণী প্রেমিক রাব্বিকে বিয়ের চাপ দিয়ে আসছিলেন। কিন্তু রাব্বি তার পরিবারকে রাজি করাতে না পারার অজুহাতে তাকে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানায়। এমনকি গত সপ্তাহ থেকে ওই তরুণীর সঙ্গে সব ধরনের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়।

কোনো উপায় না পেয়ে গত শনিবার (৭ ডিসেম্বর) সকালে ওই তরুণী বিয়ের দাবিতে রাব্বির বাড়িতে অনশন শুরু করে। বিষয়টি মুহূর্তেই এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে। রাব্বি ঢাকায় চাকরি করায় তাকে বাড়িতে পাওয়া যায়নি।

অনশনকারী তরুণী জানায়, আমার সরলতার সুযোগে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ও আমার সব শেষ করে দিয়েছে। তার বাড়ির লোকজন আমাকে নানাভাবে ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। জোরপূর্বক বাড়ি থেকে বের করে দেওয়ার পাঁয়তারা করছে। হয় বিয়ে না হয় আত্মহত্যা; এছাড়া এখন আমার আর কোনো পথ নেই।

রাব্বির মা বলেন, আমার বড় ছেলের বউ আর আমার ভাই এই মেয়েকে তার বাড়িতে দেখতে গিয়েছিল। পছন্দ না হওয়ায় বিয়ে হয়নি।

দুমকি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বলেন, ৯৯৯-এ কল পেয়ে সেখানে ফোর্স পাঠানো হয়েছে।

দুমকি উপজেলা নির্বাহী অফিসার আল ইমরান বলেন, যেহেতু দুজনেই প্রাপ্তবয়স্ক, এ বিষয়ে দুই পরিবারকে মিলে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। তবে যদি কোনো পক্ষ মনে করে আইন লঙ্ঘন হয়েছে তাহলে আইনের আশ্রয় নিতে পারেন। আমি যতটা জানি, সোমবার দুই পক্ষই নিজেদের মধ্যে আলোচনা সাপেক্ষে একটি সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবেন।

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন