The Rising Campus
News Media
শুক্রবার, ২৭শে জানুয়ারি, ২০২৩

বাকৃবিতে সাহিত্য প্রতিযোগিতার পুরষ্কার বিতরণী

আমান উল্লাহ, বাকৃবিঃ বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) মহান বিজয় দিবস সাহিত্য প্রতিযোগিতার পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার (১৯ ডিসেম্বর) সন্ধা সাড়ে ৫ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদীয় গ্যালারীতে ঐ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বাকৃবি সাহিত্য সংঘ।

সাহিত্য প্রতিযোগিতাটি দুইটি ক্যাটাগরিতে অনুষ্ঠিত হয়। মোট ১২ জন শিক্ষার্থীকে পুরষ্কৃত করা হয়। ৫১ শব্দে বিজয়ের গল্প লেখা নিয়ে অণুগল্প। এই বিভাগে স্নাতক প্রথম বর্ষ থেকে তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে। বিজয়ের ৫১ বছর, সাফল্য ও সম্ভাবনায় বাংলাদেশ লেখা নিয়ে প্রবন্ধ বিভাগ। এ বিভাগে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে। অনুষ্ঠান শেষে অতিথিরা সাহিত্য প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের পুরষ্কার প্রদান করেন ।

সাহিত্য সংঘের সভাপতি অধ্যাপক ড. ফাতেমা হক শিখার সভাপতিত্বে এবং সাহিত্য সংঘের সাদিয়া ইসলাম জেবুর সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাকৃবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো আব্দুস সালাম। উপস্থিত ছিলেন সাহিত্য সংঘের সহ-সভাপতি সহকারী অধ্যাপক ফজলে এলাহী এছাড়াও সাহিত্য সংঘের অন্যান্য সদস্যরা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. আব্দুস সালাম বলেন, প্রত্যেকের ভিতরে লুকায়িত প্রতিভা রয়েছে। এই প্রতিভা বিভিন্ন প্রতিযোগিতার মাধ্যমে বিকাশিত করতে হবে। প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে চেষ্টা করতে হবে। শিক্ষার্থীদের প্রতিভা বিকাশিত করতে পারলেই সারা বিশ্ব জ্ঞানের আলোয় আলোকিত হবে। শিক্ষার্থীদের একাডেমিক পড়ালেখার পাশাপাশি অতিরিক্ত পাঠ্যক্রম বহির্ভূত কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করতে হবে। বঙ্গবন্ধু আমাদের জন্য স্বপ্ন দেখেছিলেন। তিনি স্বপ্ন দেখেছিলেন আমরা যেন বিশ্বের বুকে মাথা উচিয়ে দাড়িয়ে থাকতে পারি। আমাদের মানবিকতা হারিয়ে গেলে হবে না। সবাইকে এক সাথে নিয়ে আমাদের এগিয়ে যেতে হবে।

0
You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. হোম
  2. ক্যাম্পাস
  3. বাকৃবিতে সাহিত্য প্রতিযোগিতার পুরষ্কার বিতরণী

বাকৃবিতে সাহিত্য প্রতিযোগিতার পুরষ্কার বিতরণী

আমান উল্লাহ, বাকৃবিঃ বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) মহান বিজয় দিবস সাহিত্য প্রতিযোগিতার পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার (১৯ ডিসেম্বর) সন্ধা সাড়ে ৫ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের মাৎস্যবিজ্ঞান অনুষদীয় গ্যালারীতে ঐ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বাকৃবি সাহিত্য সংঘ।

সাহিত্য প্রতিযোগিতাটি দুইটি ক্যাটাগরিতে অনুষ্ঠিত হয়। মোট ১২ জন শিক্ষার্থীকে পুরষ্কৃত করা হয়। ৫১ শব্দে বিজয়ের গল্প লেখা নিয়ে অণুগল্প। এই বিভাগে স্নাতক প্রথম বর্ষ থেকে তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে। বিজয়ের ৫১ বছর, সাফল্য ও সম্ভাবনায় বাংলাদেশ লেখা নিয়ে প্রবন্ধ বিভাগ। এ বিভাগে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে। অনুষ্ঠান শেষে অতিথিরা সাহিত্য প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের পুরষ্কার প্রদান করেন ।

সাহিত্য সংঘের সভাপতি অধ্যাপক ড. ফাতেমা হক শিখার সভাপতিত্বে এবং সাহিত্য সংঘের সাদিয়া ইসলাম জেবুর সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাকৃবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো আব্দুস সালাম। উপস্থিত ছিলেন সাহিত্য সংঘের সহ-সভাপতি সহকারী অধ্যাপক ফজলে এলাহী এছাড়াও সাহিত্য সংঘের অন্যান্য সদস্যরা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. আব্দুস সালাম বলেন, প্রত্যেকের ভিতরে লুকায়িত প্রতিভা রয়েছে। এই প্রতিভা বিভিন্ন প্রতিযোগিতার মাধ্যমে বিকাশিত করতে হবে। প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে চেষ্টা করতে হবে। শিক্ষার্থীদের প্রতিভা বিকাশিত করতে পারলেই সারা বিশ্ব জ্ঞানের আলোয় আলোকিত হবে। শিক্ষার্থীদের একাডেমিক পড়ালেখার পাশাপাশি অতিরিক্ত পাঠ্যক্রম বহির্ভূত কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করতে হবে। বঙ্গবন্ধু আমাদের জন্য স্বপ্ন দেখেছিলেন। তিনি স্বপ্ন দেখেছিলেন আমরা যেন বিশ্বের বুকে মাথা উচিয়ে দাড়িয়ে থাকতে পারি। আমাদের মানবিকতা হারিয়ে গেলে হবে না। সবাইকে এক সাথে নিয়ে আমাদের এগিয়ে যেতে হবে।

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন