প্রাথমিকের দ্বিতীয় ও তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা যেসব জেলা-উপজেলায়

সারা দেশে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে ৪৫ হাজার সহকারী শিক্ষক নিয়োগের প্রথম ধাপের পরীক্ষার শুরু হয়েছে আজ শুক্রবার (২২ এপ্রিল)। দ্বিতীয় ধাপের লিখিত পরীক্ষা নেওয়া হবে ২০ মে ও তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ৩ জুন।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। দ্বিতীয় ধাপে ৩০ জেলায় পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে ৮ জেলার সব এবং ২২ জেলার কিছু উপজেলায় পরীক্ষা নেওয়া হবে।

তৃতীয় ধাপে ৩১ জেলায় পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে ১৭ জেলার সব এবং ১৪টি জেলার কিছু উপজেলায় পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। দুটি ধাপেরই পরীক্ষা শুক্রবার বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত নেওয়া হবে।

দ্বিতীয় ধাপে মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৪ লাখ ৮৪ হাজার ৭২৫ জন এবং কেন্দ্রের সংখ্যা ৬৫৩টি। দ্বিতীয় ধাপের যেসব জেলার সব উপজেলায় পরীক্ষা হবে সেগুলো হলো রাজশাহী, খুলনা, ফরিদপুর, চাঁদপুর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, সিলেট, রংপুর ও বরিশাল।

যেসব জেলার কিছু উপজেলায় পরীক্ষা হবে সেগুলো হলো—নওগাঁ (সদর, নিয়ামতপুর, পত্নীতলা, রানীনগর, পোরশা, সাপাহার) নাটোর (বাগাতিপাড়া, বড়াইগ্রাম, গুরুদাশপুর, লালপুর), সিরাজগঞ্জ (রায়গঞ্জ, শাহজাদপুর, সদর, তাড়াশ) কুষ্টিয়া (খোকসা, সদর, মিরপুর) ঝিনাইদহ (হরিণাকুণ্ডু, সদর, কালিগঞ্জ) যশোর (অভয়নগর, চৌগাছা, সদর, বাঘেরপাড়া), সাতক্ষীরা (সদর, দেবহাটা, কলারোয়া, কালিগঞ্জ), বাগেরহাট (মোল্লারহাট, মোংলা, মোড়লগঞ্জ, কচুয়া, শরণখোলা), জামালপুর (সদর, মাদারগঞ্জ, মেলান্দহ) ময়মনসিংহ (মুক্তাগাছা, সদর, নান্দাইল, ফুলপুর, তারাকান্দা, ত্রিশাল) নেত্রকোনা (খালিয়াজুড়ী, মদন, মোহনগঞ্জ, সদর, পূর্বধলা) কিশোরগঞ্জ (সদর, কুলিয়াচর, মিঠামইন, নিকলী, পাকুন্দিয়া, তাড়াইল) টাঙ্গাইল (কালিহাতি, মধুপুর, মির্জাপুর, নাগরপুর, সফিপুর, বাসাইল) রাজবাড়ি (কালুখালী, গোয়ালন্দ, পাংশা) কুমিল্লা (দেবিদ্বার, হোমনা, লাকসাম, লালমাই, সদর দক্ষিণ, মনোহরগঞ্জ, মুরাদনগর, নাগলকোট, তিতাস) নোয়াখালী (বেগমগঞ্জ, চাটখিল, কোম্পানিগঞ্জ, হাতিয়া) পিরোজপুর (নাজিরপুর, নেছারাবাদ, সদর) পটুয়াখালী (কলাপাড়া, মির্জাগঞ্জ, সদর, রাঙ্গাবালি, দুমকি) সুনামগঞ্জ (দোয়ারাবাজার, জগন্নাথপুর, জামালগঞ্জ, শাল্লা, সদর, তাহিরপুর) হবিগঞ্জ (সদর, লাখাই, মাধবপুর, নবীগঞ্জ, শায়েস্তাগঞ্জ) কুড়িগ্রাম (ফুলবাড়ী, রাজারহাট, রাজীবপুর, রৌমারী, উলিপুর) গাইবান্ধা (সাদুল্যাপুর, ফুলছড়ি, সাঘাটা, সুন্দরগঞ্জ।

তৃতীয় ধাপে মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৪ লাখ ২৭ হাজার ৯৭৩ জন এবং কেন্দ্রের সংখ্যা ৬৫২টি। তৃতীয় ধাপে যেসব জেলার সব উপজেলায় পরীক্ষা হবে সেগুলো হলো জয়পুরহাট, বগুড়া, পাবনা, চুয়াডাঙ্গা, নড়াইল, মেহেরপুর, নারায়ণগঞ্জ, গোপালগঞ্জ, শরীয়তপুর, কক্সবাজার, ঝালকাঠী, ভোলা, বরগুনা, ঠাকুরগাঁও, দিনাজপুর, নীলফামারী ও পঞ্চগড়।

যেসব জেলার কিছু উপজেলায় পরীক্ষা হবে সেগুলো হলো নওগাঁ (আত্রাই, বদলগাছী, ধামুরহাট, মহাদেবপুর, মান্দা), নাটোর (নলডাঙ্গা, সদর, সিংড়া), কুষ্টিয়া (ভেড়ামারা দৌলতপুর, কুমারখালী), ঝিনাইদহ (কোটচাঁদপুর, মহেশপুর, শৈলকুপা), সাতক্ষীরা (আশাশুনি, শ্যামনগর, তালা), বাগেরহাট (সদর, চিতলমারী, ফকিরহাট, রামপাল), জামালপুর (বকশীগঞ্জ, দেওয়ানগঞ্জ, ইসলামপুর, সরিষাবাড়ী), রাজবাড়ী (বালিয়াকান্দি, সদর), পিরোজপুর (ভাণ্ডারিয়া, ইন্দুরকানী, মঠবাড়িয়া), পটুয়াখালী (বাউফল, দশমিনা, গলাচিপা), সুনামগঞ্জ (ছাতক, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ, দিরাই, ধর্মপাশা), হবিগঞ্জ (আজমিরীগঞ্জ, বানিয়াচং, বাহুবল, চুনারুঘাট), কুড়িগ্রাম (ভুরুঙ্গামারী, চিলমারী, সদর, নাগেশ্বরী), গাইবান্ধা (সদর, গোবিন্দগঞ্জ, পলাশবাড়ী)।