প্রতি ডোজ স্পুটনিক ভি টিকার দাম ৯.৯৫ ডলার চায় রাশিয়া

প্রতি ডোজ স্পুটনিক-ভি টিকার বিনিময়ে বাংলাদেশের কাছে রাশিয়া চেয়েছে ৯ দশমিক ৯৫ ডলার।

টিকা কিনতে দুই দেশের মধ্যে এখনো কোনো চুক্তি সই হয়নি। কিন্তু দাম অতিরিক্ত মনে হওয়ায় তা কমাতে রুশ কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠি দিয়েছে বাংলাদেশ সরকার। স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা এমন তথ্য দিয়েছেন।

গত সপ্তাহের শুরুর দিকে রাশিয়া একটি প্রস্তাব পাঠালে তা বিশ্লেষণ করে জবাবে বাংলাদেশ জানিয়েছে, মূল্য নিয়ে আরও আলোচনা করা দরকার।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা সংবাদমাধ্যমকে বলেন, মূল্য নিয়ে আলোচনার প্রস্তাব আমরা দিয়েছি। তবে ফাইজার ও মডার্নার এক ডোজের চেয়ে স্পুটনিক-ভি টিকার দুই ডোজের মূল্য কম।

যথাসময়ে টিকা সরবরাহ করতে না পারলে রুশ কর্তৃপক্ষকে তার দায় নিতে হবে বলেও বাংলাদেশ সরকারের প্রস্তাবে বলা হয়েছে।

কর্মকর্তারা বলেন, টিকার দুটি ডোজ দেওয়ার মধ্যে বিরতি দিতে হবে। যে কারণে দ্বিতীয় ডোজের সরবরাহ যথাসময়ে এসে পৌঁছাতে হবে।

টিকার ৫০ শতাংশ মূল্য অগ্রিম পরিশোধের কথা রয়েছে রাশিয়ার প্রস্তাবে।

এর আগে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক সংবাদমাধ্যমকে জানােন, গত সোমবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছ থেকে চুক্তির দলিল পেয়েছেন তারা।

অন্যান্য দেশে প্রতি ডোজ স্পুটনিক-ভি এর দাম প্রায় ১০ ডলার। মন্ত্রী বলেন, আমরা শিগগিরই চুক্তিটি সই করার চেষ্টা করছি।

সরকার স্থানীয় ওষুধ উৎপাদনকারীদের সঙ্গে যৌথভাবে স্পুটনিক-ভি উৎপাদনের নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে। গত ২৭ এপ্রিল দেশে স্পুটনিক-ভি এর জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দেয় সরকার।