প্রতিটি জেলা হাসপাতালে ১০ আইসিইউ বেড থাকবে: প্রধানমন্ত্রী

সারাদেশের প্রত্যেকটি জেলা সদর হাসপাতালে ১০টি করে ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিট (আইসিইউ) এবং কিডনি ডায়ালাইসিসের জন্য বেড রাখা হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এজন্য নির্মাণ ইতোমধ্যেই শুরু হয়েছে বলে তিনি জানান।

বুধবার (৩০ মার্চ) জাতীয় সংসদের অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রীর জন্য নির্ধারিক প্রশ্ন উত্তর পর্বে বিরোধীদল জাতীয় পার্টির সদস্য রুস্তম আলী ফরাজীর এক সম্পূরক প্রশ্নের উত্তরে প্রধানমন্ত্রী এ কথা জানান। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এ অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দেশের প্রতিটি জেলা সদর হাসপাতালে আইসিইউ এজন্য ১০টি বেড থাকবে। সেসঙ্গে কিডনি ডায়ালাইসিসের জন্যও ১০টি করে বেড থাকবে। এই চিন্তা আমাদের রয়েছে। কারণ কিডনি ডায়ালাইসিসের জন্য অনেক খরচ করতে হয়। সরকারিভাবে এ চিকিৎসা খুব অল্প টাকায় দেওয়া হয়। বেসরকারিভাবে এই চিকিৎসায় বেশি টাকা দিতে হয় এতে কোনো সন্দেহ নেই। শুধু হাসপাতালে গেলেই হবে না ডায়লাইসিসের জন্য দক্ষ জনবল দরকার। জেলা পর্যায়ে স্বল্প খরচে কিডনি ডায়ালাইসিসের সুযোগ পেতে পারে সেই ব্যবস্থা করে দিচ্ছি। এর নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে। ৮টি বিভাগীয় হাসপাতালে ক্যানসার, কিডনি ও হার্টের চিকিৎসা যাতে হয়, সে ব্যবস্থাও আমরা করছি। এর নির্মাণকাজও শুরু হয়েছে। আমরা এখন লোকবল নিয়োগের ব্যবস্থা করছি।

কিডনি সংক্রান্ত চিকিৎসার সময় চিকিৎসকদের সচেতন হওয়ার পরামর্শ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আদৌও কিডনি রোগ আছে কিনা তা ভালোভাবে পরীক্ষা করে দেখতে হবে। কীভাবে কিডনি রোগ থেকে দূরে থাকা যায় সে ব্যাপারেও সচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী প্রশ্ন উপস্থাপনকারী রুস্তম আলী ফরাজীর উদ্দেশ্যে একটু রসিকতা করে বলেন, যিনি প্রশ্ন করেছেন তিনি একজন চিকিৎসক। তিনি কী এখনও বিনাপয়সায় রোগী দেখেন? না কী শুধু, এমপিগিরিই করেন? সেটাও মাঝেমধ্যে বললে একটু ভালো হয়।