পুরুষরা রোবট নন, ধর্ষণের জন্য পোশাককে দায়ি করলেন ইমরান

পাকিস্তানে ধর্ষণ বৃদ্ধির জন্য নারীদের ‘স্বল্পবসন’কে দায়ি করে সমালোচনার মুখে পড়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

সম্প্রতি একটি আন্তর্জাতিক টেলিভিশন চ্যানেলকে সঙ্গে একটি সাক্ষাৎকারে ইমরান খান বলেন, ”যদি নারীরা স্বল্পবসন পরেন, তাহলে পুরুষরা রোবট না হলে সেটা তাদের উপর প্রভাব ফেলে। এ খবুই সাধারণ ব্যাপার।”

ইরমান খানের এই মন্তব্যেই বিতর্কের ঝড় উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। এই মন্তব্যের সমালোচনায় মুখর হয়েছে বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতারা। পাকিস্তানের সাংবাদিকরাও দেশের প্রধানমন্ত্রীর মন্তব্যের নিন্দা করেছেন।

এর মাস খানেক আগেও পাকিস্তানে বাড়তে থাকা ধর্ষণের ঘটনার কারণ হিসেবে অশালীনতাকে দায়ী করেছিলেন ইমরান। এপ্রিলে ইমরানের সেই মন্তব্যের প্রতিবাদে লিখিত ভাবে তার ক্ষমা প্রার্থনা করেছিল পাক নাগরিকরদের একটি অংশ।

পাকিস্তানের প্রকাশিত সরকারি তথ্য অনুযায়ী দেশটিতে প্রতি ২৪ ঘণ্টায় অন্তত ১১টি ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। গত ছ’বছরে এ জাতীয় ২২ হাজারটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। তবে পাকিস্তানে ধর্ষণের দায়ে দোষী সাব্যস্ত হওয়ার হার অত্যন্ত কম। পরিসংখ্যান বলছে মোট ঘটনার ০.৩ শতাংশকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়ে থাকে, যা অস্বাভাবিক।

গত বছরের ডিসেম্বরে পাকিস্তানের রাষ্ট্রপতি আরিফ আলভী নারী ও শিশু নির্যাতন মামলার বিচারের জন্য বিশেষ আদালত গঠনের অনুমোদন করেছিলেন। এছাড়াও ধর্ষণবিরোধী অর্ডিন্যান্স ২০২০ ও অনুমোদন হয়েছিল । সেই আইন অনুযায়ী এই জাতীয় মামলা চার মাসের মধ্যে যথাযোগ্যভাবে শুনানি ও সম্পন্ন করার আইনি আদেশ দেয়।