পিএসজির জার্সিতে কবে মাঠে নামতে পারবেন মেসি?

বার্সেলোনা অধ্যায় শেষ। পিএসজি অধ্যায় আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়ে গেল লিওনেল মেসির ক্যারিয়ারে। ৩৪ বছর বয়সী আর্জেন্টাইনকে নিজেদের ক্লাবে পেয়ে আনন্দে উন্মাতাল পিএসজি সমর্থকদের এখন অপেক্ষা পিএসজির জার্সিতে মেসির ফুটবল জাদু দেখার।

কিন্তু সে অপেক্ষা কী এখনই ফুরাচ্ছে? পিএসজিতে আজ তাঁকে পরিচয় করিয়ে দেওয়া সংবাদ সম্মেলনে মেসি নিজেই জানিয়ে দিলেন, তাঁকে মাঠে দেখতে অন্তত আরও দিন কয়েক অপেক্ষা করতে হবে পিএসজি সমর্থকদের।

এখনো না জেনে থাকলে পিএসজিতে মেসির জার্সি নম্বরটা দেখে একটু ধাক্কা লাগতে পারে যেকোনো মেসিভক্তের। আর্জেন্টিনা অধিনায়ককে গত এক যুগে ১০ নম্বর জার্সিতে দেখেই তো চোখ অভ্যস্ত হয়ে গেছে! কিন্তু পিএসজিতে ১০ নয়, ৩০ নম্বর জার্সি পরে খেলবেন মেসি।

তাঁর প্রিয় বন্ধু নেইমার পিএসজিতে ১০ নম্বর জার্সি পরেন। মেসি পিএসজিতে যাচ্ছেন জেনে নেইমার নিজে থেকেই ১০ নম্বর জার্সিটা মেসির জন্য ছেড়ে দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু মেসিও নিজের জন্য বন্ধুর এমন স্বার্থত্যাগ চাননি, নেইমারের প্রস্তাব ভালোবেসেই ফিরিয়ে দিয়েছেন।

আগে শোনা গিয়েছিল, বার্সেলোনায় ক্যারিয়ারের তৃতীয় বছর (২০০৬) থেকে ২০০৮ সালে ১০ নম্বর জার্সি পাওয়ার আগপর্যন্ত যে জার্সিটা পরেছিলেন, সেই ১৯ নম্বরই পিএসজিতে পরবেন মেসি। কিন্তু সে জার্সিটিও এখন পাবলো সারাবিয়া পরেন বলে মেসি তাঁর জার্সিও নিতে চাননি। পরে ঠিক হয়, ২০০৪ সালে বার্সেলোনায় পেশাদার অভিষেকের সময়ে যে জার্সি ছিল তাঁর, পিএসজিতে সেই ৩০ নম্বরই পরবেন মেসি! যেখানে শুরু, ক্যারিয়ারের পড়ন্ত বেলায় সেই জার্সিতেই আবার ফিরলেন!

অবশ্য পিএসজির সমর্থকদের কাছে সম্ভবত এখন ব্যাপারটা এমন যে, ৩০ নম্বর হোক বা যে জার্সিই হোক, মেসি পিএসজির জার্সি পরে মাঠে নামলেই হলো! কিন্তু সে পথে আরেকটু অপেক্ষা করতে হচ্ছে পারিসিয়ানদের। মেসি যে অনুশীলন বা খেলার মধ্যে ছিলেন না!

জুনে আর্জেন্টিনাকে কোপা আমেরিকা জেতানোর পর থেকে ছুটিতে ছিলেন। ২ আগস্ট বার্সেলোনার জার্সিতে চুক্তি নবায়ন করে বার্সেলোনায় অনুশীলনে ফেরার কথা ছিল তাঁর। সেখানে চুক্তি নবায়ন আটকে গেল স্প্যানিশ লিগের নিয়মের বেড়াজালে, বার্সেলোনা ছাড়তে হলো মেসিকে, পিএসজিতেও এলেন তিনি। কিন্তু এর মধ্যে অনুশীলন তো আর হয়নি!

সে কারণেই আজ যখন সংবাদ সম্মেলনে প্রশ্ন হলো, পিএসজির জার্সিতে কবে মাঠে দেখা যেতে পারে তাঁকে, মেসি উত্তরে সোজাসুজি বলে দিলেন, ‘সত্যি বলতে আমি জানি না। আমি ছুটিতে ছিলাম, ক্লাবেও সবকিছু আমার জন্য নতুন।’

সিদ্ধান্ত তো দিন শেষে পিএসজির আর্জেন্টাইন কোচ মরিসিও পচেত্তিনো ও তাঁর সহকারীদের, তাঁদের সবুজ সংকেতেরই অপেক্ষায় থাকবেন বলে জানালেন মেসি, ‘কাল কোচদের সঙ্গে কথা হয়েছে। আমার প্রাক্‌-মৌসুমের মতো প্রস্তুতি দরকার। অনুশীলন শুরু করব, কাজ করতে হবে। আশা করি শিগগিরই মাঠে নামতে পারব। কোচরা যখন ‘‘ওকে’’ বলবেন, আমি প্রস্তুত থাকব।’

সে ক্ষেত্রে পিএসজির জার্সিতে লিগের দু-একটা ম্যাচ খেলা না হতে পারে মেসির। ফরাসি লিগ ‘আঁ’ গত ৭ আগস্টই শুরু হয়ে গেছে, গত মৌসুমে লিলের কাছে লিগ শিরোপা হারানো পিএসজি ৮ আগস্ট লিগে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ত্রয়ার বিপক্ষে পিছিয়ে পড়েও জিতেছে ২-১ গোলে।

আগামী শনিবার বাংলাদেশ সময় রাত ১টায় পিএসজির ম্যাচ স্ত্রাসবুর্গের বিপক্ষে, এর পরের ম্যাচ ২০ আগস্ট শুক্রবার বাংলাদেশ সময় রাত ১টায় ব্রেস্তের বিপক্ষে।

সবকিছু ঠিক থাকলে স্ত্রাসবুর্গের বিপক্ষে না হলেও ব্রেস্তের বিপক্ষে ম্যাচেই মেসির পিএসজি অভিষেক হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি, তা বদলি নেমে হলেও। সে ম্যাচেও না হলে ২৯ আগস্ট রেঁসের বিপক্ষে ম্যাচ তো আছেই!

এই মৌসুমে দলবদলে টেনে নেওয়া বড় নামগুলোর মধ্যে মেসির বাইরে সের্হিও রামোসকে নিজেদের জার্সিতে দেখতেও অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে পিএসজি সমর্থকদের। রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে পিএসজিতে যাওয়া রামোস এখনো চোটের সঙ্গে যুঝছেন। সর্বশেষ খবর, চোট কাটিয়ে তাঁর মাঠে ফিরতে আরও ১-২ সপ্তাহ লাগতে পারে! ফরাসি সংবাদমাধ্যম জানাচ্ছে, রামোসেরও পিএসজি অভিষেক হতে পারে ব্রেস্তের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়েই।