পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের আগেই জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি

প্রতি বছর পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি কার্যক্রম শেষ হলে ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু করে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়। কিন্তু এবার তা পাল্টে যাচ্ছে। করোনার কারণে স্থগিত হওয়া জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষার আবেদনের কার্যক্রম গতকাল বুধবার (২৮ জুলাই) থেকে শুরু হয়েছে। ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তির এ আবেদন চলবে আগামী ১৪ আগস্ট পর্যন্ত।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, ২৮ জুলাই বিকেল ৪টা থেকে স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি আবেদন শুরু হয়েছে। অনলাইনের মাধ্যমে এই আবেদন চলবে আগামী ১৪ আগস্ট রাত ১২টা পর্যন্ত। অধিভুক্ত কলেজে বিগত কয়েক বছরের মতো এবারও এসএসসি ও এইচএসসির ফলের ভিত্তিতে ভর্তি নেয়া হবে। ফলে এবারও কোনো ভর্তি পরীক্ষা হচ্ছে না।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম বর্ষে ভর্তি করা শিক্ষার্থীদের অনলাইন ক্লাস শুরু হবে ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে। অথচ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ অন্য বেশির ভাগ বিশ্ববিদ্যালয়েরই ভর্তি পরীক্ষা শুরুর কথা রয়েছে অক্টোবরে। এছাড়া অন্যান্য পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি কার্যক্রম শুরু তো এখনো প্রক্রিয়াধীন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রথমে আগামী ৩১ জুলাই থেকে ভর্তি পরীক্ষা শুরু করতে চেয়েছিল, কিন্তু তারা সেই তারিখ পরিবর্তন করে আগামী ১ অক্টোবর থেকে ভর্তি পরীক্ষা শুরু করার বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত রাজধানীর সাত কলেজেও ভর্তি আবেদন গ্রহণ শুরু হয়েছে, আগামী ২০ আগস্ট পর্যন্ত চলবে।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় এখনো ভর্তি পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করেনি। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে আগামী ২০ আগস্ট থেকে এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৬ আগস্ট থেকে ভর্তি পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা রয়েছে।

এছাড়া বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) আবেদন গ্রহণ শেষ হয়েছে। ১০ জুন তাদের মূল ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তা স্থগিত করা হয়েছে। প্রাক-নির্বাচনী ও চূড়ান্ত ভর্তি পরীক্ষার তারিখ ১০ দিন আগে জানানো হবে বলে জানানো হয়েছে।

গুচ্ছভুক্ত ২০টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার প্রাথমিক আবেদন গ্রহণ গত ২৫ জুন শেষ হয়েছে। মোট তিন লাখ ৬১ হাজার আবেদন পড়েছে। তারা এখনো ভর্তি পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা করেনি। গুচ্ছভুক্ত সাত কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা আগামী ৪ সেপ্টেম্বর। আর আগামী ১২ আগস্ট ভর্তি পরীক্ষার তারিখ নির্ধারণ করলেও গুচ্ছভুক্ত তিন প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় গতকাল মঙ্গলবার পরীক্ষা স্থগিত করেছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক এ এস এম মাকসুদ কামাল বলেন, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ায় ঢাবি প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষার তারিখ পেছানো হয়েছে। নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আগামী ১ অক্টোবর ক ইউনিটের পরীক্ষার মধ্য দিয়ে ভর্তি পরীক্ষা শুরু হবে। এরপর খ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা হবে ২ অক্টোবর, গ ইউনিটের ২২ অক্টোবর, ঘ ইউনিটের ২৩ অক্টোবর এবং চারুকলা অনুষদের লিখিত (অঙ্কন) পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ৯ অক্টোবর।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. মশিউর রহমান গণমাধ্যমকে জানান, যাঁরা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়বেন তাঁদের লক্ষ্য স্থির থাকে, তাঁদের সেভাবে প্রস্তুতি থাকে। ফলে তাঁরা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তিতে অংশ নেন না। তবে এটাও ঠিক, অনেকেই পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ না পেয়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত কলেজে ভর্তি হন।

তিনি বলেন, গত কয়েক বছর ধরেই আমরা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সঙ্গেই ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে আসছি। সেখানে দেখেছি, ১ শতাংশ শিক্ষার্থী ভর্তির পর চলে যায়। এ জন্য আমরা দ্বিতীয় রিলিজ স্লিপের মাধ্যমে মেধাক্রম অনুযায়ী ভর্তি করে থাকি। তবে এবার যদি দেখি বেশি শিক্ষার্থী চলে গেছে, প্রয়োজনে তৃতীয় রিলিজ স্লিপের ব্যবস্থা করা হবে।