পাক সহায়তায় আশকারা পাচ্ছে আফগান তালেবান, মত বিশেষজ্ঞের

আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানির সঙ্গে তালেবানরা ততদিন কোনো ধরনের আলোচনায় বসবে না, যতদিন পাকিস্তান সেনাবাহিনী এবং গোয়েন্দা বাহিনী জঙ্গিদের সহায়তা দেবে। আফগানিস্তানের বিশিষ্ট একজন বিশেষজ্ঞ এ কথা বলেছেন। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এএনআই এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

ডয়চেভেলে-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সাংবাদিক এবং আফগানিস্তানের পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ক সর্বাধিক বিক্রিত কিছু বইয়ের লেখক আহমেদ রশিদ বলেছেন, আফগানিস্তানের এই বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি প্রতিবেশী দেশগুলো থেকে আরো জ্বালানি সংগ্রহ করতে পারে।

তিনি মনে করেন, এ ধরনের ঘটনা ঘটে গেলে আফগানিস্তান শেষ হয়ে যাবে। এখানে কি তারা এবং তাদের পরিবার নিরাপদ? পাকিস্তান যদি নিজেদের দায়বদ্ধতার জায়গাটুকু দেখাতে চায়, তাহলে তালেবান নেতাদের আপস করতে বাধ্য করতে হবে; কিংবা তাদের অভয়ারণ্য কুয়েত্তা কিংবা পেশওয়ারে চলে যেতে বাধ্য করতে হবে।

বিদেশিরা তাদের সেনা সরিয়ে নেওয়ার মতো পরিস্থিতিতে আফগানিস্তানে ব্যাপক হারে সহিংসতা দেখা দিয়েছে। আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চলের জেলাগুলো তালেবানরা দখলে নিতেই শঙ্কা দেখা দিয়েছে, সে দেশে গৃহযুদ্ধ শুরু হতে পারে।

এদিকে তালেবানদের নানাভাবে সহায়তা দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে ইসলামাবাদের বিরুদ্ধে। ইসলামাবাদ নিজেদের স্বার্থে তালেবানদের দিয়ে এসব করানোরও অভিযোগ শোনা যাচ্ছে।

সম্প্রতি পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ রাশিদ আহমেদ বলেছেন, আফগানিস্তানের তালেবানদের পরিবারের সদস্যরা পাকিস্তানে বসবাস করছে। এমনকি ইসলামাবাদেও তারা রয়েছে। পাকিস্তানের হাসপাতালে তালেবানরা চিকিৎসা নিচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

সূত্র: এএনআই