The Rising Campus
News Media
শুক্রবার, ২৭শে জানুয়ারি, ২০২৩

নানা আয়োজনে নোবিপ্রবিতে বিজ্ঞান মেলা অনুষ্ঠিত

নোবিপ্রবি প্রতিনিধিঃ নানা আয়োজনে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে(নোবিপ্রবি) দ্বিতীয়বারের মত বিজ্ঞান মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সায়েন্স ক্লাবের আয়োজনে আজ বৃহস্পতিবার( ৮ ডিসেম্বর) বেলা ১০ টায় বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী মোহাম্মদ ইদ্রিস অডিটোরিয়ামে এই মেলা শুরু হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. দিদার-উল-আলম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আব্দুল বাকী, প্রক্টর ও শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. নেওয়াজ মোহাম্মদ বাহাদুর। কি নোট স্পিকার হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োটেকনোলজি অ্যান্ড জেনিটিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. আনোয়ারুল আজিম আকন্দ।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন নোবিপ্রবি সায়েন্স ক্লাবের উপদেষ্টা ও ফার্মেসী বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. শফিকুল ইসলাম, নোবিপ্রবি সায়েন্স ক্লাবের উপদেষ্টা ও অণুজীববিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. ফিরোজ আহমেদ।

সায়েন্স ক্লাবের উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. দিদার উল -আলম বলেন, শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞানমনস্ক করে তুলতে নোবিপ্রবি সায়েন্স ক্লাবের বিজ্ঞান মেলার আয়োজন প্রশংসনীয়। শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের গবেষণার ফলে সাম্প্রতিক সময়ে নোবিপ্রবি গবেষণায় এগিয়ে যাচ্ছে। এই আয়োজনের সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে অভিনন্দন জানিয়ে আয়োজনের সফলতা কামনা করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে অধ্যাপক ড. ফিরোজ আহমেদ তার বক্তব্যে মাইক্রোবায়োলজি, ইমিউনোলজি, এন্টিবায়োটিক, ব্যাকটেরিওসিন এসব বিষয়ে আলোচনা করেন।

অধ্যাপক ড. শফিকুল ইসলাম তার বক্তব্যে সায়েন্স ক্লাবের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য এবং প্রতিষ্ঠার পর থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত সায়েন্স ক্লাবের অর্জন তুলে ধরেন। এ ছাড়াও তিনি হিউম্যান জিনোম, ড্রাগস, অনকোজেনিক ভাইরাসের মাধ্যমে ক্যান্সারের চিকিৎসার বিষয়ে আলোচনা করেন।

অনুষ্ঠানে সংগঠনের সভাপতি এস কে ফয়সাল আহমেদ নোবিপ্রবি সায়েন্স ক্লাবের যাত্রা, লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য তুলে ধরেন।

মোট ৬টি ইভেন্ট নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় এই মেলা। ইভেন্টগুলো হলো- সায়েন্টিফিক পোস্টার প্রেজেন্টেশন, তিন মিনিটের রিসার্চ আইডিয়া প্রেজেন্টেশন, বিজনেস আইডিয়া প্রেজেন্টেশন, প্রোগ্রামিং কন্টেস্ট, সায়েন্টিফিক ফটোগ্রাফি কন্টেস্ট, সায়েন্টিফিক ডিবেট কম্পিটিশন এবং কলেজ শিক্ষার্থীদের জন্য সায়েন্টিফিক কুইজ কম্পিটিশন। সায়েন্স ক্লাবের এই আয়োজনে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় এবং কলেজের ৩ শতাধিক শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন।

উৎসবের মিডিয়া পার্টনার হিসেবে ছিল নোবিপ্রবি প্রেসক্লাব ও নোবিপ্রবি সাংবাদিক সমিতি। এ ছাড়াও অর্গানাইজিং পার্টনার হিসেবে ছিল নোবিপ্রবি ডিবেটিং সোসাইটি, আইটি ক্লাব, আইসিই প্রোগ্রামিং ক্লাব, ফটোগ্রাফি ক্লাব, চলো পাল্টাই ফাউন্ডেশন এবং ইইই এসোসিয়েশন।

উল্লেখ্য, সন্ধ্যায় প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

0
You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.

  1. হোম
  2. ক্যাম্পাস
  3. নানা আয়োজনে নোবিপ্রবিতে বিজ্ঞান মেলা অনুষ্ঠিত

নানা আয়োজনে নোবিপ্রবিতে বিজ্ঞান মেলা অনুষ্ঠিত

নোবিপ্রবি প্রতিনিধিঃ নানা আয়োজনে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে(নোবিপ্রবি) দ্বিতীয়বারের মত বিজ্ঞান মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সায়েন্স ক্লাবের আয়োজনে আজ বৃহস্পতিবার( ৮ ডিসেম্বর) বেলা ১০ টায় বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী মোহাম্মদ ইদ্রিস অডিটোরিয়ামে এই মেলা শুরু হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. দিদার-উল-আলম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আব্দুল বাকী, প্রক্টর ও শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. নেওয়াজ মোহাম্মদ বাহাদুর। কি নোট স্পিকার হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োটেকনোলজি অ্যান্ড জেনিটিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. আনোয়ারুল আজিম আকন্দ।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন নোবিপ্রবি সায়েন্স ক্লাবের উপদেষ্টা ও ফার্মেসী বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. শফিকুল ইসলাম, নোবিপ্রবি সায়েন্স ক্লাবের উপদেষ্টা ও অণুজীববিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. ফিরোজ আহমেদ।

সায়েন্স ক্লাবের উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. দিদার উল -আলম বলেন, শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞানমনস্ক করে তুলতে নোবিপ্রবি সায়েন্স ক্লাবের বিজ্ঞান মেলার আয়োজন প্রশংসনীয়। শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের গবেষণার ফলে সাম্প্রতিক সময়ে নোবিপ্রবি গবেষণায় এগিয়ে যাচ্ছে। এই আয়োজনের সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে অভিনন্দন জানিয়ে আয়োজনের সফলতা কামনা করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে অধ্যাপক ড. ফিরোজ আহমেদ তার বক্তব্যে মাইক্রোবায়োলজি, ইমিউনোলজি, এন্টিবায়োটিক, ব্যাকটেরিওসিন এসব বিষয়ে আলোচনা করেন।

অধ্যাপক ড. শফিকুল ইসলাম তার বক্তব্যে সায়েন্স ক্লাবের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য এবং প্রতিষ্ঠার পর থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত সায়েন্স ক্লাবের অর্জন তুলে ধরেন। এ ছাড়াও তিনি হিউম্যান জিনোম, ড্রাগস, অনকোজেনিক ভাইরাসের মাধ্যমে ক্যান্সারের চিকিৎসার বিষয়ে আলোচনা করেন।

অনুষ্ঠানে সংগঠনের সভাপতি এস কে ফয়সাল আহমেদ নোবিপ্রবি সায়েন্স ক্লাবের যাত্রা, লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য তুলে ধরেন।

মোট ৬টি ইভেন্ট নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় এই মেলা। ইভেন্টগুলো হলো- সায়েন্টিফিক পোস্টার প্রেজেন্টেশন, তিন মিনিটের রিসার্চ আইডিয়া প্রেজেন্টেশন, বিজনেস আইডিয়া প্রেজেন্টেশন, প্রোগ্রামিং কন্টেস্ট, সায়েন্টিফিক ফটোগ্রাফি কন্টেস্ট, সায়েন্টিফিক ডিবেট কম্পিটিশন এবং কলেজ শিক্ষার্থীদের জন্য সায়েন্টিফিক কুইজ কম্পিটিশন। সায়েন্স ক্লাবের এই আয়োজনে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় এবং কলেজের ৩ শতাধিক শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন।

উৎসবের মিডিয়া পার্টনার হিসেবে ছিল নোবিপ্রবি প্রেসক্লাব ও নোবিপ্রবি সাংবাদিক সমিতি। এ ছাড়াও অর্গানাইজিং পার্টনার হিসেবে ছিল নোবিপ্রবি ডিবেটিং সোসাইটি, আইটি ক্লাব, আইসিই প্রোগ্রামিং ক্লাব, ফটোগ্রাফি ক্লাব, চলো পাল্টাই ফাউন্ডেশন এবং ইইই এসোসিয়েশন।

উল্লেখ্য, সন্ধ্যায় প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

পাঠকের পছন্দ

মন্তব্য করুন