তিন দফা দাবিতে বেসরকারি মেডিকেল শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

মহামারী করোনাভাইরাস চলাকালীন সময়ে মেডিকেল কলেজের বেতন ও হোস্টেল ফি মওকুফসহ ৩ দফা দাবিতে মানববন্ধন করেছে বেসরকারি মেডিকেল কলেজগুলোর শিক্ষার্থীদের সংগঠন বাংলাদেশ প্রাইভেট মেডিকেল ও ডেন্টাল স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন।

আজ মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) সকাল ১০টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিভিন্ন বেসরকারি মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে এ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে অংশগ্রহনকারী শিক্ষার্থীরা বলেন, বেসকারি মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীদের উপর অর্থিক নিপীড়ন আগে থেকেই চলছে। করোনা পরিস্থিতিতে তার মাত্রা আরও বৃদ্ধি পেয়েছে। করোনাভাইরাসের ফলে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে সকল কলেজগুলো বন্ধ রয়েছে। এই অবস্থায় অভিভাবকরাও অর্থনৈতিক শিথিলতার মধ্যে পরেছেন। এরই মধ্যে প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্তৃপক্ষের বেতন চেয়ে মোবাইলে ক্ষুদেবার্তা পাঠাচ্ছে। এই মহামারীকালীন অবস্থায় দীর্ঘ চার মাসের বেতন একত্রে পরিশোধ করা নিয়ে অনেক অভিভাবকই পড়েছেন বিপাকে। এ সময় তারা এ অবাস্থার উত্তরণে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে করা তিন দফা দাবি সমূহের মধ্যে রয়েছে:
ক. এমবিবিএস কোর্সে ৬০ মাস এবং বিডিএস কোর্সের পুরাতন কারিকুলামে ৪৮ মাস ও নতুন কারিকুলামে ৬০ মাসের বেশি বেতন নেওয়া যাবে না। কোনো শিক্ষার্থী পেশাগত পরীক্ষায় অকৃতকার্য হলে বা কোনো কারণে পিছিয়ে গেলেও তার কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ নেওয়া যাবে নাহ।
খ. প্রফেশনাল পরীক্ষাভিত্তিক বেতন প্রক্রিয়া চালুকরণ।
গ. বৈশ্বিক মহামারী করোনা চলাকালীন মাসগুলোতে বেতন পুনঃনির্ধারণ এবং হোস্টেল ফি পুরোপুরি মওকুফ করতে হবে।

এর আগে করোনা পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ প্রাইভেট মেডিকেল ও ডেন্টাল স্টুডেন্টস এসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এবং প্রধানমন্ত্রী বরাবর বেতন পুনঃনির্ধারনের আবেদন জানানো হয়। তবে এতে কোনো ইতিবাচক সাড়া আসেনি।

প্রসঙ্গত, বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাসের ফলে সারা দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সাথে মেডিকেল কলেজসমূহ বন্ধ রয়েছে। তবে সরকারি মেডিকেলের শিক্ষার্থীদের কলেজের বেতন দেওয়ার সমস্যা না থাকলেও বেসরকারি মেডিকেল কলেজসমূহের শিক্ষার্থীদের বেতনসহ অন্যান্য ফি নিয়ে চাপে পড়েছে। দেশে ৭০টি বেসরকারি মেডিকেল কলেজ এবং ১৭টি ডেন্টাল কলেজে অধ্যায়নরত রয়েছে প্রায় ৩০ হাজারের বেশি শিক্ষার্থী।